মেহেদী বীরত্বে শিরোপা বাংলাদেশের|110496|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ৩ নভেম্বর, ২০১৮ ১৯:২৭
মেহেদী বীরত্বে শিরোপা বাংলাদেশের
ক্রীড়া প্রতিবেদক

মেহেদী বীরত্বে শিরোপা বাংলাদেশের

ছবি: বাফুফে

শেষ মুহূর্তে নিয়মিত গোলরক্ষক মিতুল হাসানকে তুলে নিয়ে মেহেদী হাসানকে নামিয়ে যেন জুয়াই খেললেন বাংলাদেশ কোচ মোস্তফা আনোয়ার পারভেজ। তাতেই বাজিমাত! সেমিফাইনালের মতো ফাইনালেও নায়ক বনে গেছেন মেহেদী। টাইব্রেকারে ঠেকিয়ে দিয়েছেন পাকিস্তানের ৩টি শট। শনিবার নেপালের কাঠমান্ডুর আনফা কমপ্লেক্সে টাইব্রেকারে পাকিস্তানকে ৩-২ গোলে হারিয়ে সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা পুনরুদ্ধার করেছে বাংলাদেশ।

তিন বছর আগে বয়সভিত্তিক এই আসরের শিরোপা দেশের মাটিতে জিতেছিল বাংলাদেশের কিশোররা। এবার সেই শিরোপা আবার ঘরে আনলো নেপালের মাটি থেকে। আর অনন্য এক রেকর্ডের অংশীদার হলেন কোচ পারভেজ। একই সঙ্গে খেলোয়াড় এবং কোচ হিসেবে সাফ শিরোপার স্বাদ পেয়েছেন সাবেক এই মিডফিল্ডার। ২০০৩ সালে খেলোয়াড় হিসেবে জিতেছিলেন বড়দের সাফ শিরোপা। এবার তার শিষ্যরা এনে দিলেন বয়সভিত্তিক এই সাফ আসরের শ্রেষ্ঠত্ব।

টাইব্রেকারে শিরোপা ভাগ্য নিশ্চিত করার আগে কিন্তু ভাগ্যের সহায়তা ভালোই পেয়েছিল লাল-সবুজ কিশোররা। আত্মঘাতী গোলে ২৫ মিনিটে এগিয়ে যাওয়ার পর বাংলাদেশ খানিকটা রক্ষণাত্মক হয়ে যায়। তাতে পাকিস্তান চেপে বসেছিল বাংলাদেশ রক্ষণের ওপর। অবশেষে পাকিস্তান ম্যাচে ফেরে ৫৪ মিনিটে। মাহবুল্লাহ পেনাল্টি থেকে সমতাসূচক গোলটি করেন। বাকি সময়টায় দু’দলই গোলের চেষ্টা করে গেছে। নির্ধারিত ৯০ মিনিটের শেষ মুহূর্তে মিতুলকে উঠিয়ে ভারতের বিপক্ষে সেমিফাইনাল জয়ের নায়ক মেহেদীকে মাঠে নামান বাংলাদেশের কোচ।

টাইব্রেকারের প্রথম চেষ্টায় রাজন হাওলাদার বার উঁচিয়ে মারলে ক্ষণিকের হতাশায় ঢেকে গিয়েছিল বাংলাদেশ শিবির। আত্মবিশ্বাসী মেহেদী অবশ্য এক ঝটকায় সেই মেঘ কাটিয়ে দেন পাকিস্তানের জুনায়েদ আহমেদের শট ঠেকিয়ে। এরপর তৌহিদুল ইসলাম, রাজা আনসারি ও রুস্তম ইসলাম লক্ষ্যভেদ করেন। অন্যদিকে পাকিস্তানের হয়ে আদনান জাস্টিনের নেয়া দ্বিতীয় শটটিও দৃঢ়তায় ঠেকিয়ে দেন মেহেদী। পাকিস্তানের মাহবুল্লাহ এবং ওয়াসিফ গোল করলে ব্যবধান কমে ৩-২ হয়। আর তখনই যেন শেষ নাটকটি জমিয়ে দিতে বাংলাদেশের শেষ শটটি পাকিস্তান গোলরক্ষকের হাতে তুলে দেন রবিউল। অর্থাৎ পাকিস্তান শেষ শটটি লক্ষ্যভেদ করলে সাডেন ডেথের পরীক্ষায় নামতে হবে বাংলাদেশকে। এমন পরিস্থিতিতে সেই সুযোগ পাকিস্তানকে দেননি মেহেদী। মুদাসসর নজরের শেষ শটটি ঠেকিয়ে কাঠমান্ডুর আনফা কমপ্লেক্সে বাংলাদেশকে গৌরবের মুহূর্ত এনে দেন মেহেদী।