ছয় হাজার শিশুর ‘বাবা’ শান্তিরক্ষীরা|110758|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২৫ নভেম্বর, ২০১৮ ১৭:১২
ছয় হাজার শিশুর ‘বাবা’ শান্তিরক্ষীরা
অনলাইন ডেস্ক

ছয় হাজার শিশুর ‘বাবা’ শান্তিরক্ষীরা

লাইবেরিয়ায় ৬ হাজার শিশু জন্ম দিয়েছিলেন শান্তিরক্ষা মিশনের কর্মীরা। ছবি: সিজিটিএন

আফ্রিকা অঞ্চলের অন্যতম সংঘাতপূর্ণ দেশ লাইবেরিয়ায় ছয় হাজার শিশুর জন্ম দিয়েছিলেন শান্তিরক্ষা মিশনের কর্মীরা। দেশটিতে কাজ করতে গিয়ে স্থানীয় নারীদের সাথে যৌন সম্পর্ক গড়ে তুলেন তারা। 

এসব শিশুদের তথ্য সংরক্ষণ ও সহায়তা দিয়ে যাওয়া একটি প্রতিষ্ঠানের বরাতে বার্তা সংস্থা এপি একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে সম্প্রতি। যেখানে বলা হচ্ছে,  ১৯৯০ সালে জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা কর্মসূচি শুরু হয় লাইবেরিয়াতে। পরবর্তী আট বছর সেখানে অবস্থান করেন শান্তিরক্ষা কর্মীরা।

অধিকাংশ শিশুই কখনো তাদের বাবার দেখা পায়নি, অনেকের কাছে রয়েছে শুধু কিছু স্মৃতিচিহ্ন। এমন এক শিশু মোসেস জেড কেইন যার বয়স এখন ২১ বছর। তিনি বলছেন, “আমার বাবা যখন দায়িত্ব শেষ করে লাইবেরিয়া ছেড়ে চলে যান তখনও আমি মায়ের গর্ভে। ”

বাবার একটি টিশার্ট দেখিয়ে বলেন, “আমার মা বলেন, এই টিশার্ট পরে আমার বাবা তার কাছে আসতেন। মা এখনও সেই সব স্মৃতি ভুলেননি।”

শান্তিরক্ষা কর্মীদের জন্ম দেওয়া এসব শিশুদের অনেককে তাদের মাও ছেড়ে গেছে। অনাথ হিসেবে রাস্তাতেই বড় হয়েছে তারা। 

১৪ বছর ধরে চলে লাইবেরিয়ার গৃহযুদ্ধ। দীর্ঘ এ সংঘাতে প্রায় আড়াই লাখ মানুষ নিহত হয় এবং গৃহহারা হয় পাঁচ লাখেরও বেশি। এখনও এ যুদ্ধকে আফ্রিকার সবচেয়ে রক্তক্ষয়ী যুদ্ধ বলা হয়। এ সময় সরকারি ও আন্তর্জাতিক শান্তিরক্ষা মিশন দেশটিকে শান্তি স্থাপনে কাজ করে।   

এপির প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, এসব শিশুর জন্ম দেওয়া কিছু নারী ধর্ষিত হয়েছিলেন শান্তিরক্ষা কর্মীদের দ্বারা। তবে যৌথ সম্মতিতে গড়ে উঠা সম্পর্কে বেশিরভাগ শিশুর জন্ম হয়।  

শান্তিরক্ষা কর্মসূচিতে গিয়ে যে কোন ধরনের যৌন সম্পর্ক পশ্চিম আফ্রিকার দেশগুলোর জোট ইকোনমিক কমিউনিটি অব ওয়েস্ট আফ্রিকান স্টেট (ইসিওডব্লিওএএস) এবং জাতিসংঘের আচরণ বিধির লঙ্ঘন। শান্তি মিশনে থাকাকালে প্রটোকল ও নিরাপত্তা সুবিধাকে ব্যবহার করে নারীদের যৌন নিপীড়ন করার আশঙ্কা থেকে কর্মীদের জন্য এ নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়।