ট্রাম্পকে বাঁচাতে গিয়ে শ্রীঘরে আইনজীবী|111354|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১১:১৯
ট্রাম্পকে বাঁচাতে গিয়ে শ্রীঘরে আইনজীবী
অনলাইন ডেস্ক

ট্রাম্পকে বাঁচাতে গিয়ে শ্রীঘরে আইনজীবী

ঘুষ দেওয়া, মিথ্যাচার, ষড়যন্ত্রসহ একাধিক অপরাধে কোহেনকে দোষী সাব্যস্ত করেছে আদালত। ছবি: এনডিটিভি

কেলেঙ্কারির হাত থেকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে বাঁচাতে গিয়ে নিজেই ফেঁসেছেন তার সাবেক আইনজীবী মাইকেল কোহেন। ট্রাম্পের সাবেক ব্যক্তিগত এই আইনজীবীকে তিন বছরের জেল দিয়েছে নিউ ইয়র্কের আদালত।

ঘুষ দেওয়া, মিথ্যাচার, ষড়যন্ত্রসহ একাধিক অপরাধে কোহেনকে দোষী সাব্যস্ত করেছে আদালত।

নির্বাচনের আগে নিজের বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড ধামাচাপা দেওয়ার জন্য কোহেনকে দিয়ে প্রায় চল্লিশ লাখ ডলারের জরিমানা, ঘুষ, প্রতারণা বাবদ খরচসহ নানান অপরাধমূলক কাজ করিয়েছিলেন ট্রাম্প।

২০১৬ সালের ওই নির্বাচনের আগে ট্রাম্পের সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে মুখ বন্ধ রাখার জন্য পর্ন তারকা ড্যানিয়েলস এবং সাবেক প্লেবয় মডেল কারেন ম্যাকডোগালকে অর্থ দেন কোহেন। অবৈধভাবে এ অর্থ দিয়ে নির্বাচনী প্রচারের আর্থিক নিয়ম লঙ্ঘন করেছেন তিনি।

নিজের এই পরিণতির জন্য ট্রাম্পকে দায়ী করছেন কোহেন। আদালতে দাঁড়িয়ে বিচারককে বলেন, ‘আলোর পথের পরিবর্তে ট্রাম্প আমাকে অন্ধকার পথে ঠেলে দিয়েছেন।’

ট্রাম্পের প্রতি ‘অন্ধ আনুগত্যই’ কাল হয়েছে বলে দাবি ৫২ বছর বয়সী এই আইনজীবীর। “আমি ভেবেছিলাম একজন আইনজীবী হিসেবে ট্রাম্পকে রক্ষা করা আমার দায়িত্ব। তার প্রতি অন্ধ আনুগত্য আজ আমাকে এখানে এনে দাঁড় করিয়েছে।”

নিজের সাবেক আইনজীবীর এই পরিণতি নিয়ে এখনো প্রকাশ্যে মুখ খোলেননি প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প।