উদ্বোধনী প্রদর্শনীতে সেলিম আল দীনের ‘পুত্র’|112116|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২০ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১৭:৩৩
উদ্বোধনী প্রদর্শনীতে সেলিম আল দীনের ‘পুত্র’
নিজস্ব প্রতিবেদক

উদ্বোধনী প্রদর্শনীতে সেলিম আল দীনের ‘পুত্র’

মঞ্চ নাটক ‘পুত্র’-এর মহড়ার একটি দৃশ্য। ছবি: ঢাকা থিয়েটার

শেষ মুহূর্তের মহড়ায় ব্যস্ত ঢাকা থিয়েটারের শিল্পীরা। মঞ্চে আসছে দলটির নতুন নাটক সেলিম আল দীনের লেখা ‘পুত্র’। অবশ্য এর আগে ২০১০ সালে শিল্পকলা একাডেমির প্রযোজনায় মঞ্চায়িত হয় নাটকটি। মোহাম্মদ জসিম উদ্দিনের নির্দেশনায় তখন অভিনয় করেন বাকার বকুল ও এনাম তারা সাকি।

এবার ভিন্ন আঙ্গিকে মঞ্চে আসছে ঢাকা থিয়েটার। দলটির ৪৭তম প্রযোজনা হিসেবে নির্দেশনা দিচ্ছেন শিমূল ইউসুফ। শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টায় নাটকটির উদ্বোধনী প্রদর্শনী হবে জাতীয় নাট্যশালার মূল মিলনায়তনে। পরদিন একই সময়ে দ্বিতীয় প্রদর্শনী হবে।

‘পুত্র’-এর শিল্প নির্দেশনায় রয়েছেন প্রখ্যাত শিল্পী ঢালি আল মামুন। আলোক পরিকল্পনা করেছেন নাসিরুল হক খোকন, কোরিওগ্রাফি করেছেন এশা ইউসুফ। যন্ত্র সংগীতে আছেন সৌজন্য অধিকারী। আবহ সংগীত সাকি ব্যানার্জী।

নাটকটির বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করবেন এশা ইউসুফ, মিলু চৌধুরী, আসাদুজ্জামান আমান, সামিউন জাহান দোলা, সাজ্জাদ আহমেদ রাজীব, রফিকুল ইসলাম, সউদ চৌধুরী, শাহজাদা সম্রাট চৌধুরী, তারেক আহমেদ প্রমুখ।

নাটকের গল্প এমন- মাইট্টাল সিরাজ ও তার স্ত্রী যমুনাপাড়ের মেয়ে আবছা। তাদের পুত্র মানিক আমগাছে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে। নিয়ম অনুযায়ী ধর্মীয় কৃত্যহীন লাশ মাটিতে পুঁতে ফেলতে হয় এবং আমগাছটিও কেটে ফেলতে হয়। এ ঘটনার দুই বছর পর প্রবল শীতের রাতে কিছুটা উষ্ণতা পেতে এ দম্পতি আমগাছটির শেকড় তুলে এনে আগুন জ্বালায়।

একদিকে পুড়ে নিঃশেষ হয়ে আসতে থাকে আমগাছটির শেকড়। অন্যদিকে বাবা-মায়ের অন্তরে পুত্র হারানোর যন্ত্রণা যেন দ্বিগুণ তীব্রতায় জ্বলতে থাকে। মৃত পুত্রের জন্য উদ্বেগ, আশঙ্কা, ভীতি এবং কখনো কখনো ক্ষোভের মধ্য দিয়ে তারা জীবিত পুত্রের অপূর্ণ সব ইচ্ছা-আকাঙ্ক্ষার স্মরণ করতে করতে একসময় গাছের শেকড়কেও পুত্র ভাবতে শুরু করে। কষ্ট, আহাজারি, বিষাদ, বিরোধ এই আখ্যানে এক জটিল সমীকরণের সৃষ্টি হয়।

এ আখ্যান পরাবাস্তব এক অদেখা জীবনের জটিল এক মনস্তাত্ত্বিক টানাপোড়েন। যার চরিত্রগুলো নির্মিত হতে থাকে কবিতার আদলে। সেলিম আল দীনের লেখা এই চমৎকার নাটকটির মঞ্চ উপস্থাপন কেমন হবে? সেটাই দেখার অপেক্ষায় এখন ঢাকার দর্শক।