‘নৌকা শ্লোগান দিয়ে বন্দুকধারীরা ঝাঁপিয়ে পড়ে’|112126|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২০ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১৮:৪৬
‘নৌকা শ্লোগান দিয়ে বন্দুকধারীরা ঝাঁপিয়ে পড়ে’
নিজস্ব প্রতিবেদক

‘নৌকা শ্লোগান দিয়ে বন্দুকধারীরা ঝাঁপিয়ে পড়ে’

চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে গণসংযোগকালে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর চাচার নেতৃত্বে নৌকা শ্লোগান দিয়ে বন্দুকধারীরা হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি দলীয় প্রার্থী সাবেক প্রতিমন্ত্রী জাফরুল ইসলাম চৌধুরী। বৃহস্পতিবার বিকালে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে এমন হামলার শিকার হননি বলে জানান তিনি। 

 সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বলেন, ‘১৯ ডিসেম্বর দুপুর দুইটায় বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মীসহ সরল ইউনিয়নের দুই নম্বর ওয়ার্ডে গণসংযোগ করতে গেলে ৪০ থেকে ৫০ জনের একটি দল “নৌকা নৌকা” শ্লোগান দিতে দিতে অন্তত ২০টি বন্দুকসহ আমাদের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। তারা এলোপাথাড়ি গুলি ও লোহার রড দিয়ে আমাদের পেটাতে থাকে। এতে আমিসহ ১০/১২ জন আহত হই। আমাকে তারা বন্দুকের নল ও রড দিয়ে পিটিয়ে আহত করে। একজন প্রার্থী নিজ এলাকায় তাঁর চাচার নেতৃত্বে ডাকাত ও সন্ত্রাসীদের হাতে অবৈধ অস্ত্র তুলে দিয়ে এ হামলার মাধ্যমে একটি কলঙ্কময় ইতিহাস সৃষ্টি করেছে।’

বিএনপি প্রার্থী সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করে আরো বলেন, নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মোস্তাফিজুর রহমানের সমর্থকরা ধানের শীষের সমর্থকদের প্রতিনিয়ত হুমকি ধমকি দিয়ে আসছে এবং আচরণবিধি লঙ্ঘন করছে। প্রশাসন তা শুনেও না শোনার ভান করে আছে। আওয়ামী লীগ প্রার্থীর চাচা সরল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান রশিদ আহমদকে স্থানীয় ডাকাতদের সঙ্গে নিয়ে বিএনপি নেতাকর্মীদের ঘরে ঘরে গিয়ে হুমকি দিচ্ছে।’
 
তিনি বাঁশখালীতে এসব ডাকাত-সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার ও অস্ত্র উদ্ধারের মাধ্যমে এলাকায় নির্বাচনী পরিবেশ সৃষ্টি ও শান্তি ফিরিয়ে আনার আহ্বান জানান।