ডিপ্লোমাধারী কুকুর!|112161|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২১ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০
ডিপ্লোমাধারী কুকুর!
রূপান্তর ডেস্ক

ডিপ্লোমাধারী কুকুর!

নিউ ইয়র্কের ক্লার্কসন বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মানসূচক ডিপ্লোমা ডিগ্রি পেল গ্রিফিন নামের একটি কুকুর। ওয়াশিংটন পোস্টের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, গত ১৫ ডিসেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়টি থেকে অকুপেশনাল থেরাপির ওপর মাস্টার ডিগ্রি অর্জন করেন নর্থ ক্যারোলাইনার উইলসন শহরের বাসিন্দা ব্রিটানি হলওয়ে। ব্রিটানিকে তার গবেষণায় সাহায্য করার কারণেই গ্রিফিনকে একই দিনে এই ডিগ্রি দেওয়া হয়।

২০১৬ সালে ‘পস ফর প্রিজনস’ নামক সংস্থার কাছে একটি পরিষেবা কুকুরের জন্য আবেদন করেন ব্রিটানি। কারণ তীব্র ব্যথার কারণে হুইলচেয়ার ছাড়া চলাচল করা মুশকিল তার জন্য। এ ছাড়া দীর্ঘদিন নিঃসঙ্গতায়ও ভুগছিলেন তিনি।

সংস্থাটির নির্ধারিত প্রকল্পে কারাবন্দিরা কুকুরদের প্রশিক্ষণ দেয়। কুকুর যেন মানুষের কাজে পরিষেবা দিতে পারে বিষয়টি মাথায় রেখেই প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। আর এই কুকুররা নিজেদের মালিক নিজেরাই পছন্দ করতে পারে।

এ ব্যাপারে ব্রিটানি বলেন, প্রথমদিন আমার হুইলচেয়ার দেখে অনেক কুকুর ভয় পেয়েছিল। তবে গ্রিফিন সোজা আমার কোলে উঠে গাল চাটতে শুরু করে। সে থেকেই গ্রিফিনের সঙ্গে পথচলা শুরু। মোবাইলটা খুঁজে পাওয়া না গেলে গ্রিফিন সঙ্গে সঙ্গে তা খুঁজে এনে দেয়।

শুধু তা-ই নয়, কুকুরটি মালিকের জন্য দরজা খুলে দেওয়া থেকে লাইট জ্বালানোর মতো কাজও করে দেয়। অবশ্য এ ক্ষেত্রে ব্রিটানিকে লেজার রশ্নি দিয়ে বস্তুটি দেখিয়ে দিতে হয় গ্রিফিনকে। ওই রশ্নি দেখলেই মুহূর্তের মধ্যে হাজির গ্রিফিন।

ব্রিটানির ক্লাস করা থেকে শুরু করে ইন্টার্নশিপের সময় সঙ্গ দিয়েছে গ্রিফিন। কখনো ব্রিটানির ক্লাসে যেতে ভালো না লাগলে গ্রিফিন জোর করে তাকে ক্লাসে নিয়ে গেছে। তবে গ্রিফিন থাকায় ব্রিটানির সবচেয়ে বেশি যে সুবিধা হয়েছে, তা হলো নিঃসঙ্গতার সমস্যা কেটেছে। এই নিঃসঙ্গতা থেকে সৃষ্ট ব্যথার কারণে কোমরে এবং মেরুদণ্ডের সমস্যায় ভুগছিলেন ব্রিটানি। যদিও কুকুরটি তার সঙ্গী হওয়ার পর থেকে আগের তুলনায় অনেক কম ব্যথায় ভুগছেন তিনি।

ব্রিটানি জানান, আগামীতে চাকরি করতে গেলেও তিনি গ্রিফিনকে নিয়ে যাবেন। কুকুরটিকে ছাড়া কোনো কিছু করা সম্ভব নয় বলেও মনে করেন তিনি। আজকের যা কিছু অর্জন তা সবই গ্রিফিনের জন্য এবং কুকুরটিকে সম্মানসূচক ডিগ্রি দেওয়ায় বেশ খুশি ব্রিটানি।