প্রধানমন্ত্রীর সতর্কবার্তা|113181|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০
প্রধানমন্ত্রীর সতর্কবার্তা
পাভেল হায়দার চৌধুরী

প্রধানমন্ত্রীর সতর্কবার্তা

একাদশ সংসদ নির্বাচন ঘিরে প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা নাশকতার আশঙ্কা করছেন বলে জানিয়েছেন দলটির একাধিক কেন্দ্রীয় নেতা। প্রধানমন্ত্রীকে উদ্ধৃত করে দেশ রূপান্তরকে তারা বলেছেন, দশম সংসদ নির্বাচন বর্জনকারী বিএনপি ও তাদের জোট নির্বাচনী সব কর্মকা- স্থগিত করে নাশকতার প্রস্তুতি নিচ্ছে। লন্ডনে অবস্থানরত বিএনপি নেতা তারেক রহমান জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রধান ড. কামাল হোসেনকে ফোন করে নির্বাচন থেকে সড়ে দাঁড়াতে বলেছেন বলে প্রধানমন্ত্রী দলীয় নেতাদের জানিয়েছেন। আওয়ামী লীগের ওই কেন্দ্রীয় নেতারা বলেন, গতকাল মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে দলের কয়েকজন কেন্দ্রীয় নেতার কাছে নাশকতার ঘটনা ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করে নেতাকর্মীদের সজাগ-সতর্ক থাকতে নির্দেশ পাঠাতে বলেছেন শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, সহিংসতার প্রস্তুতি নিচ্ছে বিএনপি-জামায়াত। কেন্দ্রীয় নেতাদের তিনি বলেন, আমার কাছে খবর আছেÑ বিদেশে পলাতক বিএনপি নেতা তারেক ড. কামালকে ফোন করে নির্বাচন থেকে সড়ে দাঁড়াতে বলেছে। তাদের সর্বাত্মক প্রস্তুতি এখন নাশকতার। সারা দেশের নেতাকর্মীদের সজাগ-সতর্ক থাকতে খবর পাঠাও। তাদের মিশন ‘টার্গেট কিলিং’ ও গুম।
আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা জানান, রাষ্ট্রীয় বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার কর্মকর্তারা প্রধানমন্ত্রীকে নির্বাচন ঘিরে বড় ধরনের সহিংসতার ঘটনা ঘটতে পারে বলে তথ্য দিয়েছেন। বিএনপি-জামায়াত হত্যার প্রস্তুতি নিয়ে মাঠে নামবে বলে জানিয়েছেন গোয়েন্দারা। এ তথ্য পাওয়ার পরেই শেখ হাসিনা পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি), ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনারসহ সর্বোচ্চ কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে যেকোনো মূল্যে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে নির্দেশ দিয়েছেন। তারা জানান, পরিস্থিতি নিয়ে গতকাল দুপুর থেকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর শীর্ষ কর্মকর্তাদের সঙ্গে কয়েক দফা কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে তথ্য আছে বিএনপি-জামায়াত নাশকতার পথ বেছে নিয়েছে। এ জন্য তিনি সবাইকে সজাগ-সতর্ক থাকতে বলেছেন। তিনি আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেছেনÑ যে কোনো মূল্যে শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখতে হবে।
গণভবনে কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে কথা বলার সময় সেখানে উপস্থিত দুই নেতা দেশ রূপান্তরকে বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী তথ্য পেয়েছেন সারা দেশে ‘টার্গেট কিলিং মিশনে’ নামবে বিএনপি-জামায়াত জোট। তাদের এই মিশনে আমাদের দলীয় নেতাকর্মীদের পাশাপাশি প্রার্থীরাও রয়েছেন। গণভবনে ডেকে তিনি আমাদের এসব অবহিত করেছেন। শেখ হাসিনা সারা দেশে নেতাকর্মীদের পাশাপাশি প্রার্থীদেরও সজাগ-সতর্ক থাকার বার্তা পাঠাতে বলেছেন নেতাদের। দলীয় নেতাদের তিনি আরো জানিয়েছেন, বিএনপি-জামায়াত জোট দেশি-বিদেশি ইন্ধনে এ সব ঘটনা ঘটাবে। তাদের উদ্দেশ্য নির্বাচন ভ-ুল করা। প্রধানমন্ত্রী নিজে আইজিপি ও ঢাকার পুলিশ কমিশনারের সঙ্গে এ ব্যাপারে কথা বলেছেন।’

একইদিন আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে এক সংবাদ সম্মেলনে দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান বলেন, বিএনপি-জামায়াত জোট দেশব্যাপী সন্ত্রাস-নৈরাজ্য, নাশকতা ও সহিংসতার পথ বেছে নিয়েছে। দেশবাসীকে বিএনপি-জামায়াত ও ঐক্যফ্রন্টের নাশকতা সম্পর্কে সতর্ক থাকতে হবে।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সভাপতিম-লীর সদস্য ফারুক খান দেশ রূপান্তরকে বলেন, বিএনপি সুষ্ঠু পরিবেশে নির্বাচন চায় না। তারা যে কোনো মূল্যে নির্বাচন ভ-ুল করতে চায়। এ জন্য তারা বেছে নিয়েছে কীভাবে নাশকতা করা যায়, নির্বাচন প্রশ্নবিদ্ধ করা যায়। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ সভাপতি সবাইকে সজাগ-সতর্ক থাকতে নির্দেশ দিয়েছেন।