পুলিশ কেন গিয়েছিল ড. কামালের চেম্বারে?|113265|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১৭:৩৯
পুলিশ কেন গিয়েছিল ড. কামালের চেম্বারে?
নিজস্ব প্রতিবেদক

পুলিশ কেন গিয়েছিল ড. কামালের চেম্বারে?

বুধবার মতিঝিলে ড. কামালের চেম্বার থেকে বের হয়ে আসছেন পুলিশ কর্মকর্তারা। ছবি: রুবেল রশিদ

বুধবার দুপুর ১২টার দিকে পুলিশের একটি দল সরকারবিরোধী জোট জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতা ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেনের ব্যক্তিগত চেম্বারে গিয়ে দেখা করেছেন। মঙ্গলবার ঐক্যফ্রন্ট ও নির্বাচন কমিশনের (ইসি) সঙ্গে বৈঠকে পুলিশকে ‘জানোয়ার বাহিনী’ বলার অভিযোগ ওঠে কামাল হোসেনের বিরুদ্ধে। পরদিন তার চেম্বারে পুলিশ সদস্যদের যাওয়ার ঘটনায় প্রশ্ন উঠেছে বিভিন্ন মহলে।

মতিঝিল জোনের উপ-কমিশনার আনোয়ার হোসেন, রমনা জোনের উপ-কমিশনার কামরুজ্জামান, মতিঝিল জোনের অতি: উপ-কমিশনার শিবলি নোমান ও ট্রাফিক বিভাগের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ড. কামালের চেম্বারে যান। তার সঙ্গে প্রায় একঘণ্টা কথা বলেন পুলিশ কর্মকর্তারা।

এ সময় ড. কামালের সঙ্গে ফোনে কথা বলেন ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া।

মতিঝিল জোনের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার শিবলি নোমান দেশ রূপান্তরকে বলেন, বুধবার   দুপুরে ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া ফোন করেছিলেন ড.  কামালকে। গণফোরাম নেতার চেম্বারে যাওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেও অন্য একটি অনুষ্ঠানের কারণে যেতে পারেননি বলে ফোনে দুঃখ প্রকাশ করেছেন কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া।

শিবলি নোমান বলেন, এ ছাড়া ডিএমপি কমিশনারের সঙ্গে তার আর কী কথা হয়েছে সে বিষয়ে জানি না।

তবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ঢাকা মহানগর পুলিশের একাধিক কর্মকর্তা দেশ রূপান্তরকে জানান, মঙ্গলবার নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে অনুষ্ঠিত বৈঠকে ড. কামাল হোসেন পুলিশ বাহিনীকে নিয়ে যে মন্তব্য করেছেন, তার জের ধরে পুলিশ কর্মকর্তাদের মধ্যে এক ধরনের ক্ষোভ তৈরি হয়েছিল।

তারা বলেন, সেই প্রেক্ষিতে ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া তার সঙ্গে দেখা করার সিদ্ধান্ত নেন। পরবর্তীতে পুলিশের আরেক পক্ষের আপত্তির কারণে তিনি সেখানে যাননি।

ড. কামালের সঙ্গে দেখা করা প্রসঙ্গে মতিঝিল জোনের উপ-কমিশনার আনোয়ার হোসেন বলেন, রেগুলার ডিউটির অংশ হিসেবে তার সঙ্গে দেখা হয়েছে, কথা হয়েছে। নিরাপত্তার জন্য কিছু লাগবে না কিনা সে বিষয়ে জানতে চাওয়া হয়েছে।

‘এ বিষয়ে প্রয়োজন হলে তিনি ( ড.কামাল) ফোন করবেন বলে জানিয়েছেন’।

পুলিশ কর্মকর্তারা চলে যাওয়ার পর ড. কামাল সাংবাদিকদের বলেন, ‘পুলিশ আমার নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বিগ্ন। প্রয়োজন অনুযায়ী আমাকে তারা নিরাপত্তা দিতে চায়।’

তিনি বলেন, ‘পুলিশ কর্মকর্তারা আমাকে বলেছেন, তারা আমার নিরাপত্তার ব্যাপারে খুবই উদ্বিগ্ন। কোনো কিছু প্রয়োজন হলে চেম্বারে ও বাসায় তারা ব্যবস্থা নেবে। দরকার হলে গাড়ির সঙ্গেও নিরাপত্তা দেবে। এ ছাড়া কিছু বলেনি।’

তিনি বলেন, ডিএমপি কমিশনারের আসার কথা থাকলেও কাজে আটকা পড়ায় এবং যানজটের কারণে আসতে পারেননি বলে দুঃখপ্রকাশ করেছেন।