বিরল লজ্জায় দুই অধিনায়ক|113695|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৮ ২১:২০
বিরল লজ্জায় দুই অধিনায়ক
অনলাইন ডেস্ক

বিরল লজ্জায় দুই অধিনায়ক

সেঞ্চুরিয়নে বক্সিং ডে টেস্টে পেয়ার পেয়েছেন দুই অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসি ও সরফরাজ আহমেদ।

বক্সিং ডে টেস্ট সব সময়ই স্মরণীয় করে রাখতে চান ক্রিকেটাররা। সেঞ্চুরিয়নে দক্ষিণ আফ্রিকা ও পাকিস্তানের মধ্যকার সিরিজের প্রথম টেস্টে নিশ্চয়ই সেই লক্ষ্যই ছিল দুই দলের ক্রিকেটারদের। কিন্তু প্রোটিয়া অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসি ও পাকিস্তান অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ কিনা নাম লেখালেন লজ্জার এক রেকর্ডে। যে রেকর্ড দুঃস্বপ্নেও ভাবতে চাইবেন না ব্যাটসম্যানরা।

সেঞ্চুরিয়নে স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকা ও পাকিস্তানের মধ্যকার সিরিজের প্রথম টেস্টে দুই অধিনায়কই পেয়েছেন পেয়ার। ক্রিকেট ইতিহাসে এর আগে দুই অধিনায়কের এক সঙ্গে উভয় ইনিংসে শূন্য রানে আউট হওয়ার রেকর্ড নেই।

শুক্রবার পাকিস্তানের বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্ট দুই দিন বাকি থাকতেই ৬ উইকেটে জিতে নেয় দক্ষিণ আফ্রিকা।

প্রথম ইনিংসে শূন্য রানে আউট হওয়ার পর দ্বিতীয় ইনিংসেও শূন্য রানে আউট হন পাকিস্তান অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ। ডু প্লেসিও হেঁটেছেন সেই পথে।

টস জিতে আগে ব্যাট করতে নেমে পাকিস্তান প্রথম ইনিংসে ১৮১ রান করে। সরফরাজ সাত নম্বরে ব্যাট করতে নেমে ৪ বল খেলে শূন্য করে ফেরেন। ডুয়ানে অলিভিয়েরের শিকার হন এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান।

দ্বিতীয় ইনিংসে কাগিজো রাবাদার বলে ফাফ ডু প্লেসির হাতে ক্যাচ হন সরফরাজ। ২ বল খেলে রানের খাতা খুলতে পারেননি এবারও।

ডু প্লেসি প্রথম ইনিংসে ‘গোল্ডেন ডাক’ মেরে ফিরেছিলেন। শাহিন শাহ আফ্রিদির বলে বাবর আজমের হাতে ক্যাচ হন প্রোটিয়া অধিনায়ক। দ্বিতীয় ইনিংসেও শাহিন শাহ আফ্রিদির বলে কাটা পড়েন ডু প্লেসি। ৬ বল খেলে শূন্য রান করে এবার হাসান আলির হাতে ক্যাচ ডানহাতি ব্যাটসম্যান। একই সঙ্গে পান পেয়ারের জ্বালা।

পাকিস্তান তাদের দ্বিতীয় ইনিংসে ১৯০ রানে গুটিয়ে যায়। প্রথম ইনিংসে ২২৩ রান করা দক্ষিণ আফ্রিকার সামনে লক্ষ্য দাঁড়ায় ১৪৯ রানের। হাশিম আমলার অপরাজিত ৬৩ রানে ৬ উইকেটের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে দক্ষিণ আফ্রিকা।