টিআইবি’র প্রতিবেদন উদ্দেশ্যপ্রণোদিত: ইসি সচিব হেলালুদ্দীন|117340|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৬ জানুয়ারি, ২০১৯ ২০:০৭
টিআইবি’র প্রতিবেদন উদ্দেশ্যপ্রণোদিত: ইসি সচিব হেলালুদ্দীন
নীলফামারী প্রতিনিধি

টিআইবি’র প্রতিবেদন উদ্দেশ্যপ্রণোদিত: ইসি সচিব হেলালুদ্দীন

নীলফামারি জেলা প্রশাসক কার্যালয় প্রাঙ্গণে আম গাছর চারা লাগান ইসি সচিব হেলালুদ্দীন। ছবি: দেশ রূপান্তর

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনালের (টিআইবি) প্রতিবেদনকে উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলে দাবি করেছেন নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ।

বুধবার বিকেলে নীলফামারীতে জেলা নির্বাচন কার্যালয় পরিদর্শন ও হেল্প ডেস্কের উদ্বোধনের পর সাংবাদিকদের কাছে তিনি এ দাবি করেন। তিনি বলেছেন, যদিও টিআইবি’র প্রতিবেদনটি আমাদের হাতে এখনো পৌঁছায়নি, সেটি হাতে আসার পর পর্যালোচনা করে মন্তব্য করা যাবে।

তিনি বলেছেন, তবে  ৩০ ডিসেম্বর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার পর হঠাৎ করে এ রকম একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে সরকার ও নির্বাচন কমিশনকে অপ্রস্তুত করাটা টিআইবির উদ্দেশ্যপ্রণোদিত কাজ বলে আমি মনে করি।

এ সময় ইসি সচিব আরো বলেছেন, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপহার দিয়েছি। এখন আমরা উপজেলা নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছি। আগামী মার্চ মাসে পাঁচ ধাপে সারা দেশে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ওই নির্বাচনে দেশের প্রত্যেক জেলার সদর ও উপজেলায় ইভিএম ব্যবহার হবে।

তিনি বলেছেন, কারণ দেশের উপজেলা সদরে গণ্যমান্য ও শিক্ষিতরা বাস করেন, সবাই মোবাইল ফোন ব্যবহার করেন এবং যোগাযোগ ব্যবস্থা ভালো এ কারণে এসব উপজেলায় ইভিএম ব্যবহার করা হবে।

ইসি সচিব বলেছেন, ইভিএম ব্যবহার একটি টেকনিক্যাল বিষয় সেই দিক বিবেচনা করে দেশের সদর উপজেলায় ইভিএম ব্যবহারের পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। এখানে কোনো ধরনের সমস্যা না হলে ভবিষ্যতে সব উপজেলা এবং পৌরসভা নির্বাচনে পুরোপুরি ইভিএম ব্যবহার হবে।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি অংশ নিয়ে ফলাফল প্রত্যাখ্যান করে পুনর্নির্বাচনের দাবির প্রশ্নের জবাবে নির্বাচন কমিশন সচিব বলেছেন, ‘নির্বাচন পুনর্বিবেচনার সুযোগ এখন আর নেই।’

তিনি আরো বলেছেন, উপজেলা নির্বাচন কোনো দলীয় নির্বাচন নয়, দলীয় প্রতীকে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন হলেও এটি স্থানীয় সরকারের নির্বাচন। এখানে একজন জনপ্রিয় ব্যক্তি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে অংশ নিতে পারবেন। পাশাপাশি জাতীয় নির্বাচনে সব রাজনৈতিক দল যেমন অংশ গ্রহণ করেছে তেমনি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনেও তারা অংশ গ্রহণ করবে।’

নীলফামারী জেলা নির্বাচন কার্যালয় পরিদর্শন ও হেল্প ডেস্কের উদ্বোধনের পর জেলা নির্বাচন কার্যালয় চত্বরে একটি হাঁড়িভাঙা ও আম্রপালি আমের চারা রোপণ করে রংপুরের উদ্দেশে যাত্রা করেন নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ।

এ সময় জেলা প্রশাসক নাজিয়া শিরিন, রংপুর আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা জি.এম. সাহাতাব উদ্দিন ও জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ফজলুল করিমসহ অন্যান্য কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।