গাইবান্ধা-৩ আসনে জয়ের পথে নৌকা|119490|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২৭ জানুয়ারি, ২০১৯ ১৯:৫৬
গাইবান্ধা-৩ আসনে জয়ের পথে নৌকা
গাইবান্ধা প্রতিনিধি

গাইবান্ধা-৩ আসনে জয়ের পথে নৌকা

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গাইবান্ধা-৩ (পলাশবাড়ী-সাদুল্লাপুর) আসনে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ডা. মো. ইউনুস আলী সরকার জয়ের পথে রয়েছেন। সর্বশেষ ৮৫ কেন্দ্রের প্রাপ্ত ফলাফলে তার ভোট সংখ্যা ৭৮ হাজার ৫৫।

তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জাতীয় পার্টির দিলারা খন্দকার লাঙ্গল মার্কায় পেয়েছেন ১৬ হাজার ৩৬৪ ভোট।

রোববার সকাল ৮টায় ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে চলে বিকেল চারটা পর্যন্ত। ১৩২ ভোটকেন্দ্রে ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন ভোটাররা। এই দুই উপজেলায়  মোট ভোটার চার লাখ ১১ হাজার ৮৫৪ জন।

নির্বাচনে এ ছাড়া প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) এস এম খাদেমুল ইসলাম খুদি, ন্যাশনাল পিপলস পার্টির (এনপিপি) মিজানুর রহমান তিতু ও স্বতন্ত্র প্রার্থী আবু জাফর মো. জাহিদ।

এদিকে বিকেল তিনটায় গাইবান্ধা প্রেস ক্লাবে ভোট বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন জাসদের প্রার্থী এসএম খাদেমুল ইসলাম খুদি। তিনি বলেন, সকালে ভোটগ্রহণ সুষ্ঠুভাবে হলেও পরে তা আর ঠিক থাকেনি। ভোটে অনিয়মের অভিযোগ আনেন তিনি।

ভোট বর্জনের বিষয়ে গাইবান্ধা জেলা জাসদের সাধারণ সম্পাদক গোলাম মারুফ মনা বলেন, ভোট বর্জনের বিষয়টি খুদির সম্পূর্ণ ব্যক্তিগত বিষয়। এটি আমাদের দলীয় সিদ্ধান্ত নয়।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রথম তফসিলের আটজন প্রার্থীর মধ্যে প্রতীক বরাদ্দের পর এই আসনে ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী ড. টিআইএম ফজলে রাব্বী চৌধুরী গত বছরের ১৯ ডিসেম্বর মারা গেলে ৩০ ডিসেম্বর এই আসনের ভোটগ্রহণ বন্ধ থাকে।

রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক আবদুল মতিন দেশ রূপান্তরকে বলেন, নির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে অনুষ্ঠিত হয়েছে। কোথাও কোনো দুর্ঘটনা বা অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট একাদশ সংসদ নির্বাচনের ফল প্রত্যাখ্যান করে এবং এ নির্বাচনেও অংশ নেয়নি।