পোস্টারে সুচিত্রার ছবি ব্যবহার করে সমালোচিত মুনমুন|132803|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ৩০ মার্চ, ২০১৯ ১৩:৩১
পোস্টারে সুচিত্রার ছবি ব্যবহার করে সমালোচিত মুনমুন
অনলাইন ডেস্ক

পোস্টারে সুচিত্রার ছবি ব্যবহার করে সমালোচিত মুনমুন

ঠিক পাঁচ বছর আগের মতো। এবারের ভারতের লোকসভা নির্বাচনের প্রচারেও তৃণমূল প্রার্থী নায়িকা মুনমুন সেন ভোটারদের উদ্দেশে বলছেন, “আমি সুচিত্রা সেনের মেয়ে। আসানসোলে এসেও মায়ের আশীর্বাদ ও উপস্থিতি অনুভব করছি।”

স্থানীয় সংবাদমাধ্যম জানায়, মুনমুনের সম্মতি নিয়ে পশ্চিম বর্ধমান জেলা সভাপতি ভি শিবদাসনের নির্দেশে তৈরি হয়েছে অভিনব সব ব্যানার ও হোর্ডিং। সব মিলিয়ে আড়াই লাখ প্রচার উপকরণে থাকছেন সুচিত্রা।

সেখানে ‘উত্তর ফাল্গুনী’র মতো বাংলা ছবি তো আছেই, আছে দিলীপ কুমারের সঙ্গে প্রথম হিন্দি সিনেমা ‘দেবদাস’, দেব আনন্দের বিপরীতে ‘সরহদ’, ধর্মেন্দ্রর সঙ্গে ‘মমতা’, সঞ্জীব কুমারের সঙ্গে ‘আঁধি’র সুচিত্রা সেন। মূলত এই সব ভাবা হয়েছে আসানসোলের হিন্দিভাষী ভোটারদের কথা মাথায় রেখে।

এ নিয়ে স্থানীয় তৃণমূল নেতা উৎপল সেন বলেন, ‘‘মুনমুন সেনের নাম নিলেই সুচিত্রা সেনের কথা মানুষের মনে চলে আসে। সুচিত্রা সেন বাঙালির মননে স্বপনে আজও আছেন। আগামী দিনেও থাকবেন। এখন যাদের বয়স ৪৫ বছর, তারা আরও বেশি নস্টালজিক হয়ে উঠছেন। মানুষের মনের সেই ভাবাবেগটাকেই আমরা আরও বেশি করে জাগিয়ে তুলতে চাইছি। মনে করিয়ে দিতে চাইছি ভোটপ্রার্থী মুনমুন সেন সুচিত্রা সেনের মেয়ে।’’

তৃণমূলের এই প্রচার-কৌশল কানে যেতেই সমালোচনা করতে ছাড়েননি বিজেপি প্রার্থী বাবুল সুপ্রিয়। তিনি বলেন, “বাংলা চলচিত্রকে দেশের কাছে তুলে ধরেছেন সুচিত্রা সেন। তার মেয়ে মুনমুন সেন তৃণমূল প্রার্থী। কিন্তু আপামর বাঙালির হৃদয়ে যে মহানায়িকা রয়েছেন, তাকে রাজনৈতিক স্বার্থে ব্যবহার করা উচিত নয়।”

শুধু এ গায়কই নন, অনেকেই তৃণমূলের এই পদক্ষেপের সমালোচনা করেছেন।