বাঁচানো গেল না যমজ ৭ শিশুকে|136169|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৪ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০
বাঁচানো গেল না যমজ ৭ শিশুকে
লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি

বাঁচানো গেল না যমজ ৭ শিশুকে

লক্ষ্মীপুর শহরের সিটি হাসপাতালে একসঙ্গে জন্ম নেওয়া সাত শিশুর মৃত্যু হয়েছে। গত শুক্রবার রাতে জন্মের কয়েক ঘণ্টার মধ্যে একে একে তাদের মৃত্যু হয়। ওইদিনই রাত ১০টার দিকে স্বাভাবিকভাবে এই সাত শিশুর জন্ম দেন নাজমা আক্তার (২০) নামে এক নারী। তিনি লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার লাহারকান্দি এলাকার পাটোয়ারী বাড়ির মো. রাজুর স্ত্রী। সাত নবজাতকের মধ্যে চারটি মেয়ে ও তিনটি ছেলে সন্তান ছিল।

সিটি হাসপাতালের ব্যবস্থাপক ওমর ফারুক দেশ রূপান্তরকে বলেন, ‘শুক্রবার বিকেলে নাজমা আক্তারের প্রসববেদনা দেখা দিলে তাকে রাত সাড়ে ৯টার দিকে আমাদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে রাত ১০টার দিকে অপারেশন ছাড়াই তিনি একের পর এক স্বাভাবিকভাবে সাত সন্তানের জন্ম দেন।’

নির্দিষ্ট সময়ের আগে মাত্র পাঁচ মাসে নাজমা সন্তান প্রসব করেন জানিয়ে ওমর ফারুক আরও বলেন, ‘নবজাতকগুলো ছিল অপরিণত। তাদের প্রত্যেকের অবস্থা ছিল আশঙ্কাজনক।’

সিটি হাসপাতালের চিকিৎসক আবদুল্লাহ নওশের বলেন, ‘নির্দিষ্ট সময়ের আগে সাত সন্তানের জন্ম হয়। তারা প্রত্যেকে ঝুঁকিতে ছিল। আমরা সুস্থ করতে চেষ্টা করেছি। এসব শিশুকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা শিশু হাসপাতাল অথবা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শিশু বিভাগে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু ঢাকায় নেওয়ার আগেই তাদের সবার মৃত্যু হয়।’

সিটি হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাকিবুল আহসান জানান, ভোর ৪টা পর্যন্ত একে একে সব নবজাতকের মৃত্যু হয়। নাজমা আক্তার এখনো আশঙ্কামুক্ত নন।