মোহাম্মদপুরে নারীর ক্ষতবিক্ষত লাশ|136203|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৪ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০
মোহাম্মদপুরে নারীর ক্ষতবিক্ষত লাশ
বজ্রপাত ও মাটিচাপায় নিহত আরও ২
নিজস্ব প্রতিবেদক

মোহাম্মদপুরে নারীর ক্ষতবিক্ষত লাশ

রাজধানীর মোহাম্মদপুরে হাত ও পায়ের রগকাটা এবং মাথা থেঁতলানো এক নারীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ঢাকা উদ্যানের একটি টিনশেড বাসায় গতকাল শনিবার সকালে তার লাশ পাওয়া যায়। তার নাম-পরিচয় জানা যায়নি। এ ছাড়া ডেমরায় বজ্রপাতে এবং বাড্ডার আফতাবনগরে মাটি চাপা পড়ে দুই শ্রমিক নিহত হয়েছে।

মোহাম্মদপুর থানার পরিদর্শক (অপারেশন) শরিফুল ইসলাম জানিয়েছেন, গত ৬ এপ্রিল এক যুবক দম্পতি পরিচয়ে ওই নারীসহ ঢাকা উদ্যানের ৪ নম্বর সড়কে বাসা ভাড়া নেয়। আনুমানিক ৩০ বয়সী এই নারীকে দুই পা ও বাঁ হাতের রগ কাটা এবং মাথার ওপরের অংশ থেঁতলানো অবস্থায় পাওয়া যায়। তিনি বলেন, ‘সকালে অন্য একটি কক্ষের বাসিন্দা এক নারী বাথরুমে গিয়ে দেখেন, একটি চাকু বাঁকা হয়ে পড়ে আছে। এই চাকু কার তা খোঁজ নিতে গিয়ে নতুন ভাড়াটিয়ার কক্ষের জানালা দিয়ে রক্তাক্ত নারীকে পড়ে থাকতে দেখেন।’

মোহাম্মদপুর থানার ওসি গণেশ গোপাল বিশ্বাস দেশ রূপান্তরকে বলেন, ‘বঁটি ও চাকু দিয়ে কুপিয়ে এবং নির্যাতন করে ওই নারীকে হত্যা করা হয়েছে। তার পরিচয় উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।’ তার লাশ ময়নাতদন্তের জন্য সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

বজ্রপাতে শ্রমিক নিহত : ডেমরার সারুলিয়ায় বজ্রপাতে রেজাউল ইসলাম (২০) নামের এক কারখানা শ্রমিকের বজ্রপাতে মৃত্যু হয়েছে। গতকাল দুপুরে অচেতন অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। ডেমরা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. সেলিম জানান, দুপুরে খোলা জায়গায় গোসল করার সময় বজ্রপাতে অচেতন হয়ে পড়ে যান তিনি। সহকর্মীরা তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। রেজাউলের বাড়ি পঞ্চগড়ের অটোয়ারী উপজেলায়।

মাটিচাপা পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু : বাড্ডার আফতাবনগর এলাকায় মাটি চাপা পড়ে সেলিম মিয়া (২৫) নামের এক শ্রমিক মারা গেছেন। বাড্ডা থানার ভারপ্রাপ্ত ওসি রফিকুল ইসলাম জানান, সেলিমের রাস্তার পাশের ওয়াসার লাইনে মাটি খোঁড়ার কাজ করছিলেন। দুপুরে হঠাৎ মাটি চাপা পড়ে গুরুতর আহত হন। অজ্ঞান অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। সেলিমের বাড়ি গাইবান্ধায়।