নামে বার্মা কাজে চীন|137494|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২১ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০
নামে বার্মা কাজে চীন
রূপান্তর ডেস্ক

নামে বার্মা কাজে চীন

মিয়ানমারের পূর্বাঞ্চলীয় পাহাড়বেষ্টিত অঞ্চল ওয়া। এশিয়ার দুর্গম এলাকাগুলোর মধ্যে একটি। অঞ্চলটিতে মিয়ানমারের কোনো আইন কার্যকর না। ঘন বনাঞ্চলে আবৃত আর ব্যাপক মাত্রায় সামরিকায়ন করা অঞ্চলটির কর্র্তৃপক্ষ কার্যত ওয়াকে মিয়ানমার থেকে বিচ্ছিন্ন করে রেখেছে গত কয়েক দশক ধরে।
ওয়ার ভেতরে গেলে মনে হবে চীনের কোনো অঞ্চল যেন। চারপাশ ঘেরা তল্লাশি চৌকির মাঝের এই অঞ্চলে পণ্য কেনাবেচা হয় চীনা মুদ্রায়। দারিদ্র্যপীড়িত ওয়ার নারীদের মধ্যে চীনের সীমান্তবর্তী শহর পাংসাংয়ে ম্যাসাজ পার্লার চালাতে দেখা যায়। আর পুরুষরা কম মজুরিতে ক্যাসিনো, রেস্টুরেন্ট এবং নির্মাণাধীন ভবনে কাজ করে। ওয়ার প্রত্যেক নথিভুক্ত পরিবারের একজন সদস্যকে বাধ্যতামূলকভাবে ওই অঞ্চলের সেনাবাহিনীতে যোগ দিতে হয়। সর্বশেষ তথ্য অনুসারে, ওয়াতে ২৫ হাজার সদস্যের একটি শক্তিশালী সেনা দল রয়েছে। ওয়ার তরুণ-তরুণীরা মাসে ২০০ ইয়েন বা ৩০ ডলার পাওয়ার জন্য ওই সেনাদলে যোগ দেয়। তবে সেনাদলে বাধ্যতামূলক যোগদান নিয়ে স্থানীয়দের নেই কোনো অভিযোগ।
ওয়ার স্থানীয় যুবক অং অং দুই বছর আগে ইউনাইটেড ওয়া স্টেট আর্মিতে (ইউডব্লিউএসএ) যোগ দেয়। তার মতে, ‘সৈনিক হিসেবে জীবন কেমন তা বলা আসলে কঠিন। এটাকে কঠিন ভাবলে কঠিন। আমি সেনাবাহিনীতে থাকতে পেরে খুশি।’ নান সাই লাও নামের এক স্থানীয় কর্মী বলেন, ‘আমি এখানে বড় হয়েছি। বন্ধুদের সঙ্গে আমরা মাঝে মধ্যে নিকটবর্তী পাহাড়ে যাই। আমি চীনা ভাষাশিক্ষা স্কুলে পড়া শেষ করেছি। বর্তমানে একটি রেস্টুরেন্টে কাজ করছি আমি।’ মিয়ানমার এবং চীন থেকেও অনেকে ওয়াতে বাস করছে। তবে এক্ষেত্রে চীনা নাগরিকদের বেশি দেখা যায়। ওয়া স্টেট আর্মিতেও অনেক চীনা সদস্য রয়েছে।
আঞ্চলিক মাদক নির্মূল পুলিশ জানায়, ওয়াতে প্রচুর পরিমাণে মাদক উৎপাদন করা হয়। বিশ্বের কেমিক্যাল জাতীয় মাদকের একটি উল্লেখযোগ্য অংশই যায় ওয়া থেকে। মিয়ানমার এবং চীন সরকার এই মাদক উৎপাদন রোধে কোনো পদক্ষেপ নেয় না।
চলতি সপ্তাহে ওই অঞ্চলে সামরিক প্যারেড অনুষ্ঠিত হয়। গত ত্রিশ বছর ধরে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর সঙ্গে চলমান অস্ত্রবিরতি চুক্তির পূর্তি পালনেই ওই প্যারেডের আয়োজন করা হয়। বিশ্লেষকদের মতে, ওই অঞ্চলটি মিয়ানমারের মধ্যে চীনের আধিপত্যবাদিতার চিহ্ন হিসেবে কাজ করে। সূত্র : এএফপি