সাংবাদিকদের সাড়ে ৩৯ হাজার কোটি টাকা গুগলের পেটে!|147794|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১০ জুন, ২০১৯ ০৯:৫৪
সাংবাদিকদের সাড়ে ৩৯ হাজার কোটি টাকা গুগলের পেটে!
অনলাইন ডেস্ক

সাংবাদিকদের সাড়ে ৩৯ হাজার কোটি টাকা গুগলের পেটে!

২০১৮ সালে ‍যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইট ব্যবহার করে ৩৯ হাজার ৫৩৮ কোটি টাকার বেশি আয় করেছে মার্কিন প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান গুগল।

১৯৯২ সালের দিকে প্রতিষ্ঠিত হওয়া ওয়াশিংটন ডিসির গণমাধ্যমভিত্তিক অলাভজনক মৈত্রী সংগঠন ‘নিউজ মিডিয়া অ্যালায়েন্স’র বরাত দিয়ে এমন খবর জানিয়েছে দ্য নিউইয়র্ক টাইমস। এই সংগঠনটি যুক্তরাষ্ট্রের দুই হাজার পত্রিকার অনলাইন ডেটা ব্যবহার করে ওই অর্থের হিসাব করেছে। 

তাদের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ‍গুগল এই টাকা আয় করেছে তাদের সার্চ এবং গুগল নিউজের মাধ্যমে। প্রতিষ্ঠানটির এই আয়ের পরিমাণ শেষ দুটি ‘অ্যাভেঞ্জার্স’ মুভির বিক্রীত টিকিটের দামের থেকে বেশি!  শুধু তাই নয়; বিশ্বের কোনো পেশাদার ক্রীড়া প্রতিষ্ঠানও এত টাকা বছরে আয় করে না।

‘নিউজ মিডিয়া অ্যালায়েন্স’র প্রধান নির্বাহী ডেভিড চাভার্ন বলছেন, গুগলের এই আয় থেকে সাংবাদিকদেরও প্রাপ্য রয়েছে, কারণ তারাই কনটেন্টগুলো প্রস্তুত করে।

গুগলের ব্যবসার ক্ষেত্রে নিউজ গুরুত্বপূর্ণ অংশ। তাদের ক্লিকের ৪০ শতাংশ আসে বিভিন্ন গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠানের কনটেন্ট থেকে। গুগল সরাসরি প্রকাশকদের অর্থ তো দেয়ই না, বরং বিভিন্ন শিরোনাম পোস্ট করে ক্লিক আদায় করে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের উত্থানের পর থেকে বিভিন্ন ব্রাউজার গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠানকে ব্যবহার করে কোটি কোটি ডলার কামিয়ে নিচ্ছে। ওই প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের নিজস্ব আয় থেকে সরাসরি কোনো অর্থ প্রকাশকদের দেয় না। তৃতীয় পক্ষের ডিজিটাল বিজ্ঞাপন থেকে বিভিন্ন হিসাব-নিকাশ শেষে নামমাত্র অংশ পান তারা। বিজ্ঞাপনের প্রায় পুরো অর্থ চলে যায় গুগল কিংবা ফেসবুকের অ্যাকাউন্টে।

আপনি যখন গুগলে সার্চ করে কোনো নিউজ পড়েন, তখন তাদের ওয়েবসাইটে সেটি কাউন্ট হয়। অনেক সময় নিউজ পড়তে পড়তে কনটেন্টের ভেতর কিছু বিজ্ঞাপন দেখতে পান, এই বিজ্ঞাপনগুলোতে আপনি ক্লিক করলে গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠানগুলো কিছু টাকা পায়। বিজ্ঞাপনের বড় একটা অংশ গুগল, ফেসবুক কিংবা মজিলা নিয়ে যায়। টাকা ভাগ করার এই নীতিমালা নিয়েও আছে বিতর্ক।

রীতিমতো ‘কইয়ের তেলে কই ভাজা’র পাশাপাশি গুগল, ফেসবুক আবার অন্য ধরনেরও প্রতারণা করে। নিউজ সাইট তাদের বিজ্ঞাপন না দিলে কনটেন্ট পাঠকের কাছে পৌঁছায় না।

গুগলের আয় খতিয়ে দেখতে নিজস্ব উদ্যোগে ‘নিউজ মিডিয়া অ্যালায়েন্স’ অনলাইনভিত্তিক একটি গবেষণা চালিয়েছে। সংবাদমাধ্যম এবং প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে সম্পর্ক কেমন হবে, সেটি নিয়ে আলোচনা করছে তারা।

চলতি দশকে আয়ের অভাবে প্রিন্ট মিডিয়া রীতিমতো হুমকির মুখে পড়েছে। অন্যদিকে অনলাইনে সরব হয়েও অধিকাংশ প্রতিষ্ঠান চাহিদামতো আয় করতে পারছে না।

চাভার্ন আশা করছেন, তাদের নতুন গবেষণা প্রকাশ্যে আশার পর আয় সংক্রান্ত বিশ্বাসের ভিত্তি শক্ত হবে।

তিনি বলছেন, ‘নাগরিক সমাজের জন্য কনটেন্টের গুরুত্বপূর্ণ উপাদান নিউজ। আমি মনে করি পাঠক, লেখক থেকে শুরু করে রাজনীতিবিদরা বুঝবেন সাংবাদিকতা শেষ হয়ে গেলে প্রজাতন্ত্র টিকিয়ে রাখা ভয়ংকর ব্যাপার হবে।’

গুগল তাদের আয়ের এই খবর নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হয়নি।

নিউজ মিডিয়া অ্যালায়েন্স গবেষণাটি করেছে অর্থনৈতিক পরামর্শক সংস্থা কেস্টোন’র সহায়তায়।