প্রতিবন্ধী তরুণীকে হত্যার পর ধর্ষণ|148432|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৩ জুন, ২০১৯ ০০:০০
প্রতিবন্ধী তরুণীকে হত্যার পর ধর্ষণ
নরসিংদী প্রতিনিধি

প্রতিবন্ধী তরুণীকে হত্যার পর ধর্ষণ

নরসিংদীর শিবপুরে ধর্ষণে বাধা দেওয়ায় শারীরিক প্রতিবন্ধী এক তরুণীকে হত্যার পর ধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনার দুদিন পর গত শনিবার কাজিরচর গ্রামের একটি কলাবাগান থেকে ওই তরুণীর লাশ উদ্ধার করা হয়। গত মঙ্গলবার রাতে কলেজ গেট এলাকা থেকে সাইফুল ইসলাম (২৮) নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১১। গতকাল বুধবার দুপুরে নরসিংদী প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে এসব তথ্য জানায় র‌্যাব।

সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব-১১ অধিনায়ক শমসের উদ্দিন বলেন, গত মার্চ মাসের দিকে শিবপুর মাছিমপুর গ্রামের প্রতিবন্ধী সাবিনা আক্তারের (২১) সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে দুলালপুর গ্রামের সাইফুলের।

এরপর সাবিনাকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে কয়েকবার ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। এর মধ্যে গত ৬ জুন বৃহস্পতিবার বিকেলে বিয়ে করবে বলে সাবিনাকে নিয়ে টান ছলনা গ্রামের উদ্দেশে রওনা করে সাইফুল। পরে রাত ৯টার দিকে পার্শ্ববর্তী কাজিরচর গ্রামের একটি কলাবাগানে নিয়ে যায়। সেখানে শারীরিক সম্পর্ক তৈরির চেষ্টা চালালে বাধা দেন সাবিনা। ক্ষিপ্ত হয়ে সাইফুল তার গায়ের খোলা শার্ট দিয়ে সাবিনার গলা পেঁচিয়ে ও মুখ চেপে ধরে তাকে শ্বাসরোধে হত্যার পর ধর্ষণ করে। পরে সাবিনার মোবাইল ও ভ্যানিটিব্যাগ নিয়ে বাড়ি চলে আসে। মোবাইলটি বন্ধ করে বাড়ির বাথরুমে আর ভ্যানিটিব্যাগ বাড়ির পাশে নর্দমায় ফেলে দেয়।

র‌্যাব-১১ অধিনায়ক শমসেরউদ্দিন আরও বলেন, এ ঘটনায় নিহতের মা আফিয়া আক্তার গত শনিবার রাতে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিকে আসামি করে শিবপুর থানায় মামলা করেন। র‌্যাব-১১ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আলেপউদ্দিনের (পিপিএম) নেতৃত্বে অভিযানে নামে র‌্যাবের একটি বিশেষ দল। এরই পরিপ্রেক্ষিতে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে মঙ্গলবার রাতে শিবপুর কলেজ গেট এলাকা থেকে সাইফুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে অভিযুক্ত সাইফুল হত্যা ও ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছে।