ইউএনওদের ৯০ লাখ টাকার গাড়ি অনুমোদন|149918|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২০ জুন, ২০১৯ ০০:০০
ইউএনওদের ৯০ লাখ টাকার গাড়ি অনুমোদন
নিজস্ব প্রতিবেদক

ইউএনওদের ৯০ লাখ টাকার গাড়ি অনুমোদন

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তারা (ইউএনও) পাচ্ছেন ৯০ লাখ ৩১ হাজার টাকা দামের মিতসুবিশি পাজেরো স্পোর্টস কিউএক্স জিপ। প্রথম পর্যায়ে ৬৬ জন ইউএনওর জন্য এসব গাড়ি কেনা হচ্ছে। পর্যায়ক্রমে সব ইউএনও এই গাড়ি পাবেন। গতকাল বুধবার সরকারি ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে গাড়ি কেনার এই প্রস্তাব অনুমোদন করা হয়। ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির আহ্বায়ক অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল অসুস্থ থাকায় কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক এতে সভাপতিত্ব করেন। বৈঠকে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের জন্য নিউক্লিয়ার ফুয়েল তথা ইউরেনিয়াম কেনার প্রস্তাবও অনুমোদন দিয়েছে ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি। বাংলাদেশ ও রাশান ফেডারেশনের মধ্যে স্বাক্ষরিত আন্তঃরাষ্ট্রীয় সহযোগিতা চুক্তির আওতায় নিউক্লিয়ার ফুয়েল সাপ্লাইয়ের নিমিত্ত একক উৎস রাশান ফেডারেশনের নির্ধারিত ঠিকাদার টিভিইএল জয়েন্ট স্টক কোম্পানি থেকে সরাসরি ক্রয় চুক্তির মাধ্যমে ইউরেনিয়াম কেনা হবে।

বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব নাসিমা বেগম সাংবাদিকদের বলেন, এজন্য টিভিইএল জয়েন্ট স্টক কোম্পানির সঙ্গে শিগগিরই চুক্তি করবে সরকার। ২০২৭ সাল থেকে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে নিউক্লিয়ার ফুয়েল রিলোড করা হবে। সে সময় এসব ইউরেনিয়াম প্রয়োজন হবে। এজন্য এখনই চুক্তি করতে হবে। চুক্তিতে আনুমানিক ব্যয় ধরা হয়েছে ৫২৩ কোটি ৯০ লাখ টাকা।

তিনি আরও বলেন, ২০২৭ সালে ইউরেনিয়ামের বাজারদর অনুযায়ী দাম কম কিংবা বেশি হতে পারে। পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে প্রতি ১৮ মাস পরপর নিউক্লিয়ার ফুয়েল রিলোড করা হবে। এক্ষেত্রে নির্ধারিত ঠিকাদার টিভিইএল জয়েন্ট স্টক কোম্পানির কাছ থেকে ইউরেনিয়াম ক্রয় করবে সরকার।

ইউএনওদের গাড়ি কেনা সম্পর্কে নাসিমা বেগম বলেন, ‘চলতি (২০১৮-১৯) অর্থবছরের বাজেট থেকে এসব গাড়ি কেনার অর্থ বরাদ্দ দেওয়া হবে। গাড়িগুলোর ব্র্যান্ড মিতসুবিশি পাজেরো স্পোর্টস কিউএক্স জিপ। এসব গাড়ি কিনতে সরকারের মোট ব্যয় হবে ৫৯ কোটি ৬০ লাখ ৮৫ হাজার টাকা।’

নাসিমা বেগম বলেন, সরকারি প্রতিষ্ঠান প্রগতি ইন্ডাস্ট্রিজ গাড়িগুলো সরবরাহ করবে। এর আগে ৫ মে ইউএনওদের জন্য মিতসুবিশির পাজেরো স্পোর্টস কিউএক্স মডেলের জিপ সরাসরি ক্রয় পদ্ধতিতে কেনার নীতিগত অনুমোদন দেয় অর্থনৈতিক বিষয়-সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি। গতকালের বৈঠকে কমিটির সদস্য, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সিনিয়র সচিব, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সচিব ও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।