৩৫০০ কিলোমিটার হাঁটল ‘শিয়াল মামা’|152615|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ৩ জুলাই, ২০১৯ ০০:০০
৩৫০০ কিলোমিটার হাঁটল ‘শিয়াল মামা’
প্রতিদিন ডেস্ক

৩৫০০ কিলোমিটার হাঁটল ‘শিয়াল মামা’

নরওয়ে আর কানাডা, দুই মহাদেশের এই দেশ দুইটির মধ্যে দূরত্ব প্রায় সাড়ে তিন হাজার কিলোমিটার। মাঝে বরফে ঢাকা পাহাড়, সমুদ্র। কোনো ধরনের যানবাহন ছাড়া দীর্ঘ এই পথ পাড়ি দেওয়া যেকোনো প্রাণীর পক্ষেই প্রায় অসম্ভব। কিন্তু এই অসম্ভবকে সম্ভব করেছে মেরু অঞ্চলের তরুণ একটি শেয়াল। তাও আবার মাত্র ৭৬ দিনে।

পোলার রিসার্চ সাময়িকীর এক নিবন্ধে বলা হয়েছে, শেয়ালটি ২০১৮ সালের ২৬ মার্চ নরওয়ের স্পিটবার্গেন থেকে যাত্রা শুরু করে মোট তিন হাজার ৫০০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে কানাডার ইলেসমেয়ার দ্বীপে পৌঁছায়। ৭৬ দিনের এই যাত্রাপথে শেয়ালটি প্রতিদিন গড়ে ৪৬ দশমিক ৩ কিলোমিটার করে পথ পাড়ি দিয়েছে। এর মধ্যে পুরোপুরি বরফে ঢাকা গ্রিনল্যান্ডের কিছু অংশ সে পাড়ি দিয়েছে অবিশ্বাস্য গতিতে। সেখানে শেয়ালটি এক দিনে ১৫৫ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়েছে। তবে কোথাও কোথাও আবহাওয়া ও পর্যাপ্ত খাবারের অভাবে তাকে দিনে গড়ে ১০ কিলোমিটার গতিতে চলতে হয়েছে।

শেয়ালটি যাত্রা শুরু করার আগেই তার গলায় একটি স্যাটেলাইট ট্রান্সমিটার ঝুলিয়ে দেন নরওয়ের পোলার ইনস্টিটিউটের গবেষকরা। ওই গবেষক দলের ইভা ফুগলেই বলেন, তারা যখন শেয়ালটির গতিবিধি পর্যবেক্ষণ করছিলেন তখন তাদের

 

বিশ্বাসই হচ্ছিল না যে প্রাণীটি এমন অসম্ভব কিছু করে ফেলবে। তাই সে যখন ইলেসমেয়ার পৌঁছায় সেটি আমাদের কাছে অবিশ্বাস্য ঠেকেছে। 

তিনি জানান, মেরু শেয়ালটি পথ পাড়ি দেওয়ার গতি আগের একটি শেয়ালের রেকর্ড ভেঙে দিয়েছে। আলাস্কার সেই শেয়ালটির চাইতে এটির গতি ছিল প্রায় দেড়গুণ। এছাড়া ১৫৫ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করে এই প্রজাতির প্রাণীদের মধ্যে একদিনে সর্বোচ্চ দূরত্ব অতিক্রমের রেকর্ডও গড়েছে। 

ইভা বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনজনিত কারণে যখন মেরু অঞ্চল উষ্ণ হয়ে উঠছে তখন সেখানকার একটি প্রাণীর এই দীর্ঘপথ পাড়ি দেওয়ার ঘটনা নতুন আশার সঞ্চার করে। প্রাণীগুলো যেকোনো পরিস্থিতিতে অভিযোজিত হওয়ার ইঙ্গিত দেয়।