একাই লড়ছেন স্মিথ|154412|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১১ জুলাই, ২০১৯ ১৮:১৪
একাই লড়ছেন স্মিথ
অনলাইন ডেস্ক

একাই লড়ছেন স্মিথ

ছবি: এএফপি

স্টিভ স্মিথ ও অ্যালেক্স ক্যারির ব্যাটে শুরুর বিপর্যয় কাটিয়ে উঠেছিল অস্ট্রেলিয়া। কিন্তু ২৮তম ওভারে আদিল রশিদ এই জুটি ভেঙেছেন। ফিরিয়ে দিয়েছেন বাউন্সারে আঘাতে আহত হওয়ার পরও ব্যাট করে যায় অ্যালেক্স ক্যারিকে। তার জোড়া আঘাতে ফের চাপে অস্ট্রেলিয়া।

এই প্রতিবেদন লেখার সময় অস্ট্রেলিয়ার স্কোর ৩৬ ওভার শেষে ১৬১/৬। তিন নম্বরে নেমে স্টিভ স্মিথ এখন একাই লড়ে যাচ্ছেন। ৬৭ রানে অপরাজিত তিনি। প্যাট কামিন্স ৪ রানে অপরাজিত।

এজবাস্টনে বিশ্বকাপের দ্বিতীয় সেমিফাইনালে টস জিতে আগে ব্যাটিং বেছে নেয় অস্ট্রেলিয়া। কিন্তু মাত্র ১৪ রানে হারিয়ে ফেলে ৩ উইকেট। এরপর স্মিথ ও ক্যারি চতুর্থ উইকেটে যোগ করেন ১০৩ রান।

২৮তম ওভারের দ্বিতীয় বলে ক্যারিকে বদলি ফিল্ডার জেমস ভিন্সের হাতে ক্যাচ বানান রশিদ। একই ওভারের শেষ বলে ফিরিয়ে দেন মার্কাস স্টয়নিসকেও (০)। এরপর গ্লেন ম্যাক্সওয়েলও বড় রান করতে পারেননি। ৩৫তম ওভারে আর্চারের শিকার হয়ে ফিরেছেন। ২৩ বলে ২২ রান করেন তিনি।

এর আগে রানের খাতা না খুলেই ফিরতে হয়েছে অজি অধিনায়ক ফিঞ্চকে। দলের রান তখন মাত্র চার। দলীয় স্কোরে আর ৬ রান জমা পড়তেই উইকেট ছাড়া হন ওয়ার্নার। এর একটু পর আউট চার নম্বরে নামা হ্যান্ডসকম্ব।

নিজের প্রথম ওভারের প্রথম বলেই প্রতিপক্ষ শিবিরে আঘাত হানেন ইংলিশ পেসার জোফরা আর্চার। তার বলটি ক্রস ব্যাটে খেলতে গিয়ে এলবিডব্লিউ হন ফিঞ্চ। মাত্র ৪ রানেই গুরুত্বপূর্ণ উইকেটটি হারায় অস্ট্রেলিয়া।

টুর্নামেন্টে আগের ম্যাচগুলোতে পারফরম্যান্সে বেশ উজ্জ্বল ছিলেন ফিঞ্চ। নয় ইনিংসে তিনটি অর্ধশতক ও দুটি শতক হাঁকিয়েছেন তিনি।

দলীয় ১০ রানে দ্বিতীয় উইকেট হারায় অস্ট্রেলিয়া। নিজের দ্বিতীয় ওভারের চতুর্থ বলে ওয়ার্নারকে জনি বেয়ারস্টোর ক্যাচে পরিণত করেন ক্রিস ওকস। এবারের বিশ্বকাপে আগের নয় ম্যাচে অসাধারণ নৈপুণ্য দেখিয়েছেন ওয়ার্নার। তিন শতক ও তিন অর্ধশতক রয়েছে তার নামের পাশে।

নামের প্রতি মোটেও সুবিচার করতে পারেননি বিশ্বকাপে অভিষিক্ত পিটার হ্যান্ডসকম্ব। ওকসের বলে ঠিকমতো ব্যাট চালাতে পারেননি চার নম্বরে নামা এই ব্যাটসম্যান। ইনসাইডেজ হয়ে এলোমেলো হয়ে যায় স্টাম্প।