পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি আতঙ্কে এবার বিজেপি কর্মীর আত্মহত্যা|172133|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ৫ অক্টোবর, ২০১৯ ১৬:৩৪
পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি আতঙ্কে এবার বিজেপি কর্মীর আত্মহত্যা
অনলাইন ডেস্ক

পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি আতঙ্কে এবার বিজেপি কর্মীর আত্মহত্যা

পশ্চিমবঙ্গে নাগরিক তালিকা-এনআরসি আতঙ্কে এবার আত্মাহুতি দিলেন ক্ষমতাসীন বিজেপিরই কর্মী। তিনি নদীয়ার রানাঘাটের বিজেপি সাংসদ জগন্নাথ সরকারের ঘনিষ্ঠ লোক বলে জানা গেছে।

বিরোধীদের প্রবল আপত্তির মুখেও রাজ্যটিতে এনআরসি করার জন্য বিজেপি সরকার বদ্ধ পরিকর। এতে নাগরিকত্ব হারানোর আশঙ্কায় একের পর এক আত্মহত্যার ঘটনা ঘটছে। যার সর্বশেষ শিকার বিজেপি সক্রিয় কর্মী রানাঘাটের নিবাস সরকার।

আসামে ১৯ লাখ মানুষ নাগরিকত্ব হারানোর পর  পশ্চিমবঙ্গের মানুষও এনআরসি নিয়ে আতঙ্কে ভুগছে। এখন পর্যন্ত ১৫ জনের মতো মানুষ আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছেন।

সংবাদ প্রতিদিন জানায়, শুক্রবার অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে রানাঘাটের বিজেপি সাংসদের ঘনিষ্ঠ নিবাস সরকার। সিপিএমের দাবি, এনআরসি নিয়ে আতঙ্কের জেরে আত্মঘাতী হয়েছেন তিনি।

হাঁসখালির মিলননগর এলাকার বাসিন্দা নিবাস। বৃহস্পতিবার দুপুরে তাকে ঘরে অসুস্থ অবস্থায় দেখতে পান ভাড়াটিয়ারা। তড়িঘড়ি উদ্ধার করে প্রথমে বগুলা গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় তাকে। সেখান থেকে শক্তিনগর জেলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

লোকসভা নির্বাচনে সময় রানাঘাটের বিজেপি প্রার্থীর প্রচারণা সভায় হনুমান সেজে  খবরের শিরোনাম হয়েছিলেন নিবাস সরকার। সিপিএমের পলিট ব্যুরো সদস্য মোহাম্মদ সেলিম টুইটারে দাবি করেন, এনআরসি ভীতির জেরে আত্মঘাতী হয়েছেন নিবাস।

যদিও নিবাসের পরিবার তা অস্বীকার করেছে। বর্তমানে রানাঘাট কেন্দ্রের সাংসদ জগন্নাথও দাবি করেন, ‘একেবারেই ব্যক্তিগত কারণে উনি আত্মঘাতী হয়েছেন। এর সঙ্গে এনআরসি-র কোনো সম্পর্ক নেই। যত সব হাস্যকর কথা।’ ইতিমধ্যেই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।