মোদিকে ফের চিঠি: মামলা দিয়ে চুপ করানো যাবে না|172967|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ৯ অক্টোবর, ২০১৯ ১৪:৩৮
মোদিকে ফের চিঠি: মামলা দিয়ে চুপ করানো যাবে না
অনলাইন ডেস্ক

মোদিকে ফের চিঠি: মামলা দিয়ে চুপ করানো যাবে না

ভারতে ‘ক্রমবর্ধমান অসহিষ্ণুতা ও গণপিটুনির’ নিন্দা করে কয়েক মাস আগে দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে খোলা চিঠি দিয়েছিলেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, অপর্ণা সেন ও শ্যাম বেনেগালসহ নানা অঙ্গনের বিশিষ্টজনেরা। এর জেরে চিঠিতে স্বাক্ষরকারীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়।

এই সময় জানায়, সেই মামলার বিরোধিতা করে ফের চিঠি লিখলেন ১৮০ জন বিশিষ্ট ব্যক্তি। এই তালিকায় রয়েছেন অভিনেতা নাসিরুদ্দিন শাহ, ইতিহাসবিদ রোমিলা থাপারসহ অনেকে।

সোমবার চিঠি দিয়ে তারা প্রশ্ন তুলেছেন, কীভাবে প্রধানমন্ত্রীকে লেখা একটি চিঠির ভিত্তিতে কারো বিরুদ্ধে মামলা হতে পারে?

সেখানে বলা হয়, ‘দেশে বেড়ে চলা গণপিটুনির ঘটনার উদ্বেগ প্রকাশ করে নাগরিক সমাজের দায়িত্ব পালন করার জন্য সাংস্কৃতিক জগতে আমাদের ৪৯ সহকর্মীর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে।’

এই চিঠিতে যারা সই করেছেন, তাদের মধ্যে রয়েছেন লেখক অশোক বাজপেয়ি, জেরি পিন্টো, শিক্ষাবিদ ইরা ভাস্কর, কবি জিত্‍‌ থাইল, লেখক শামসুল ইসলাম, সংগীতকার টিএম কৃষ্ণা। তারা স্পষ্টই বলেছেন, আইনের অপব্যবহার করে সহকর্মীদের হেনস্তা করা হচ্ছে।

চিঠিতে তারা প্রশ্ন তুলেছেন, ‘প্রধানমন্ত্রীকে লেখা খোলা চিঠি কী করে রাষ্ট্রদ্রোহ হতে পারে?’ সঙ্গে যোগ করেন, “মানুষের কণ্ঠস্বর স্তব্ধ করতে আইনের অপব্যবহার করা হচ্ছে। এটা বিরুদ্ধ স্বর দমন করার নিপুণ ষড়যন্ত্র।’

অসহিষ্ণুতা, গণপিটুনির মতো ইস্যুতে উদ্বেগ প্রকাশ করে তিন মাস আগে চিঠি লিখেছিলেন ৪৯জন বুদ্ধিজীবী। বিহারের এক আইনজীবীর অভিযোগের ভিত্তিতে চিঠিতে স্বাক্ষরকারী সমস্ত বুদ্ধিজীবীর বিরুদ্ধেই এফআইআর হয়।

আইনজীবীর অভিযোগ, ‘এই চিঠি লিখে তারা দেশের মান ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির পরিশ্রমকে ছোট করতে চেয়েছেন। তারা দেশদ্রোহী ও বিচ্ছিন্নতাবাদীদের সমর্থন করেছেন। এটা মেনে নেওয়া যায় না। তাই আমি এফআইআর করেছি।’

পুলিশ জানায়, আইপিসির একাধিক ধারায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে তাদের বিরুদ্ধে। এর মধ্যে রয়েছে রাষ্ট্রদ্রোহিতা, অস্থিরতা তৈরি করা, ধর্মীয় ভাবাবাগে আঘাত, শান্তি বিঘ্নিত করার চেষ্টার মতো অভিযোগ।