শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

বেড়াতে যাওয়ার আগে খেয়াল রাখুন

আপডেট : ২৪ নভেম্বর ২০১৮, ১২:১১ পিএম

অনেকে বছরে অন্তত একবার, আবার কেউ কেউ বেশ কয়েকবার দূরে কোথাও ঘুরতে যাওয়ার পরিকল্পনা করে থাকেন। নিয়মিত ভ্রমণকারীদের জন্য প্রস্তুতিটা সহজ। কিন্তু যারা অনিয়মিত তাদের জন্য বেশ কঠিন হয়ে পড়ে।

কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয় মাথায় রাখলেই ভ্রমণ সহজ ও উপভোগ্য হয়ে উঠে মনে করেন ক্রিস্টি উইড্রো। ঘোরাঘুরির এক দশকের অভিজ্ঞতা রয়েছে তার। অর্ডিনারি ট্রাভেলার ডটকমে নিজের অভিজ্ঞতা থেকে কিছু ভ্রমণ টিপস তুলে ধরেন ক্রিস্টি।

স্বাভাবিক থাকা: ভ্রমণে ধৈর্য ধরতে হবে। বেশি ঢিলেমি বা তাড়াহুড়ো করা যাবে না। এতে কাজে ভুল করার আশঙ্কা থেকে যায়।

তালিকা তৈরি করা: যেকোনো ধরনের ভ্রমণের ক্ষেত্রেই পূর্ব প্রস্তুতি হিসেবে একটি তালিকা তৈরি করতে হবে। কী কী সঙ্গে নেবেন ও কী কী করবেন তার তালিকা করে সে অনুযায়ী কাজ করতে হবে। তালিকা করতে বসলে অনেক কিছুই বাদ পড়তে পারে। যখন কোনোকিছু মাথায় আসবে তখনই নোটবুকে টুকে রাখুন।

স্থানীয় কিছু শব্দ শিখে নেওয়া: যেখানে যাচ্ছেন ওই এলাকার সাধারণ কিছু শব্দ শিখে নিন। যেমন; ধন্যবাদ দেওয়া, অনুরোধ করা, দুঃখ প্রকাশ প্রভৃতি।

ক্যামেরার বাড়তি ব্যাটারি: দূরে কোথাও ঘোরাঘুরির সময় ক্যামেরা তো সঙ্গে থাকেই। ক্যামেরার জন্য বাড়তি ব্যাটারি নেবেন। এতে করে বিশেষ কোনো মুহূর্ত বা দৃশ্য ফ্রেমবন্দি করতে চার্জ না থাকার সমস্যায় পড়বেন না।

ট্রাভেল ইন্সুরেন্স: দীর্ঘ সময়ের জন্য দূরে কোথাও ঘুরতে যাওয়ার সময় অবশ্যই ট্রাভেল ইন্সুরেন্স করা উচিত। আকস্মিক বিপদের সময় জরুরি প্রয়োজনে কাজে লাগবে।

গুরুত্বপূর্ণ ডকুমেন্টের ফটোকপি: ভ্রমণের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র- যেমন; পাসপোর্টের ফটোকপি আলাদা ব্যাগে রাখুন। পাসপোর্ট বা অন্য কোনো কাগজ নিতে ভুল করলেও যাতে জরুরি মুহূর্তে ফটোকপি দিয়ে কাজ চালানো যায়।

সাজ-সরঞ্জাম: প্রয়োজনীয় জিনিসগুলো আগেই প্যাকিং করতে হবে। যাতে আগ মুহূর্তে তাড়াহুড়ো করতে গিয়ে গুরুত্বপূর্ণ কিছু নিতে ভুল না হয়।

ইলেকট্রিক ডিভাইস, ওষুধ ও টুথব্রাশ: দৈনন্দিন প্রয়োজনীয় ইলেকট্রিক ডিভাইস, ওষুধ ও টুথব্রাশের মতো জিনিস সঙ্গে নিতে ভুলবেন না। প্রয়োজনে আগেই এগুলো ব্যাগে পুরে নিন। নয়তো নতুন করে কিনতে গিয়ে অর্থ ও সময় দুটোরই অপচয় হবে।

ভাড়া জেনে নিন: গন্তব্যের পরিবহন খরচ আগে থেকেই জেনে নেওয়া ভালো।

শরীর আর্দ্র রাখা: উড়োজাহাজে ভ্রমণের সময় শরীর আর্দ্র রাখতে হবে। দীর্ঘ সময় বিমানে চড়লে আর্দ্রতার ঘাটতি হয়।

হোটেলের রুম নাম্বার ও ঠিকানা: যেখানে থাকবেন সেই হোটেলের ঠিকানা ও রুম নাম্বার অবশ্যই মোবাইলে টুকে রাখতে হবে।

স্থানীয়দের সাহায্য: অপরিচিত জায়গায় ঘুরতে গেলে স্থানীয় লোকজনের কাছ থেকে ভালো রেস্টুরেন্ট, দর্শনীয় স্থান ও ভালো কফিশপের খোঁজ নিতে পারেন।

সানস্ক্রিন ক্রিম ব্যবহার: প্রতিদিন রোদে বেরুনোর সময় আমরা শরীরে সানস্ক্রিন ক্রিম ব্যবহার করলেও বেড়াতে গেলে সেটি নেওয়া হয় না। অবশ্যই সানস্ক্রিন ক্রিম সঙ্গে নিতে হবে।

আগেভাগেই টিকিট বুকিং: সুলভ মূল্য টিকিট পাওয়ার জন্য ফ্লাইটের অনেক আগেই বুকিং করতে হবে। বছরের কোন সময়টায় সুলভ মূল্যে ভ্রমণ করা যায় সেদিকে খেয়াল রাখুন।

নির্ধারিত সময়ের আগেই বের হোন: বাড়ি থেকে নির্ধারিত সময়ের আগেই বের হওয়ার চেষ্টা করবেন। এতে ভুল হওয়ার আশঙ্কা কমে যায়।

পরিবারের সঙ্গে আলোচনা করা: এটা ভ্রমণের ক্ষেত্রে খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।

ব্যক্তিগত জিনিস আলাদা করা: কোথাও ঘুরতে যাওয়ার সময় অবশ্যই আলাদা আলাদা ব্যাগে ব্যক্তিগত জিনিসপত্র রাখার চেষ্টা করবেন। যাতে কোনো একটি ব্যাগ হারিয়ে গেলেও সমস্যা কম হয়। নগদ টাকা ও ক্রেডিট কার্ড/ব্যাংক কার্ড আলাদা ব্যাগে রাখুন। এক ব্যাগে সব টাকা না রাখাই বুদ্ধিমানের কাজ।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত