শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

১৭ বছর পর ইংলিশদের লঙ্কা জয়

আপডেট : ১৮ নভেম্বর ২০১৮, ০৭:১৫ পিএম

ইংলিশরা জয়ের আভাস পেয়েছিল শনিবারই। ক্যান্ডি টেস্টের চতুর্থ দিন শেষে জয় থেকে ৭৫ রানের দূরে দাঁড়িয়ে ছিল শ্রীলঙ্কা। তবে হাতে ছিল মোটে ৩ উইকেট। রোববার শেষ দিনে স্বাগতিকদের ওই উইকেটগুলো নিতে ইংল্যান্ডের লেগেছে মাত্র ৮.৪ ওভার। ৫৭ রানে দ্বিতীয় টেস্ট জিতেছে ইংল্যান্ড।  তাতে ১৭ বছর পর শ্রীলঙ্কার মাটিতে টেস্ট সিরিজ জেতার গৌরব তাদের।

তিন ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথমটি হয়েছিল গলে। ইংল্যান্ড ২১১ রানে সেটি জিতে ১-০ তে লিড নেয়। এবার ক্যান্ডি টেস্ট জিতে ২-০ তে সিরিজ পকেটে পুরেছে জো রুটের দল। এই সিরিজ জয় ইংল্যান্ডের জন্য কতটা মহার্ঘ্য তা একটা পরিসংখ্যানেই পরিষ্কার হবে। ২০০১ সালে শেষবার শ্রীলঙ্কায় ২-১ এ সিরিজ জিতেছিল তারা। এরপর চারবারের প্রচেষ্টায় এবারই সফল কেবল। ২০০৪ এবং ২০০৮ সালে টেস্ট সিরিজ হেরেছিল ইংলিশরা। ২০১২ সালের সিরিজ ১-১ এ ড্র হয়।

শ্রীলঙ্কার মাটিতে এটা অবশ্য ইংল্যান্ডের তৃতীয় সিরিজ জয়। প্রথমবার ওখানে সিরিজ জিতেছিল ১৯৮২ সালে।  আরও একটা মজার তথ্য হলো- উপমহাদেশের মাটিতে ২০০০ সালের পর থেকে ১৭টা সিরিজ খেলেছে ইংল্যান্ড। এটা তাদের ছয় নম্বর সিরিজ জয়। সর্বশেষ ২০১২ সালে ভারতে টেস্ট সিরিজ জিতেছিল তারা।

ক্যান্ডিতে জ্যাক লিচ ৫ উইকেট নিয়ে ইংল্যান্ডের জয় নিশ্চিত করেন। পঞ্চম ও শেষ দিনে শুরুটা ভালোই করেছিলো স্বাগতিকরা। প্রথম ১৫ মিনিটের পর লিচ আর মঈন আলিকে আক্রমণে আনেন অধিনায়ক রুট। বাঁহাতি ডিকভেলা এবং সুরাঙ্গা লাকমলের উইকেট তুলে নেন স্পিনার মঈন। মিলিন্দা পুষ্পাকুমারাকে ক্যাচ বানিয়ে ৫ উইকেট পূর্ণ করেন লিচ। ইংল্যান্ড মাতে জয়োৎসবে।

এই টেস্টের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত স্পিনাররাই রাজত্ব করেছেন। ১৯৫৬ সালে জিম লেকার ওল্ড ট্র্যাফোর্ডের যে টেস্টে ১৯ উইকেট নিয়েছিলেন, সেই টেস্টের পর এই প্রথম দুই ইনিংসেই কোনো ইংলিশ পেসার উইকেট পাননি। প্রথমবার ১৯৫২ সালে কানপুর টেস্টে ইংল্যান্ডের পেসাররা দুই ইনিংসে উইকেটশূন্য ছিলেন।

ক্যান্ডি টেস্টে দুই দলের স্পিনাররা সম্মিলিতভাবে নিয়েছেন ৩৮ উইকেট। কোনো টেস্টে এটাই স্পিনারদের সবচেয়ে বেশি উইকেট শিকার। ১৯৬৯-৭০ এ নাগপুর টেস্টে ভারত আর নিউজিল্যান্ডের স্পিনাররা মিলে একবার সর্বাধিক ৩৭ উইকেট দখল করেছিলেন। ক্যান্ডির স্পিনাররা সেই রেকর্ড ভাঙলেন।

তিন টেস্ট সিরিজের শেষ টেস্ট ২৩ নভেম্বর কলম্বোতে শুরু হবে। সেই টেস্টেও স্পিনারদের দাপট অব্যাহত থাকবে কিনা সেটাই এখন দেখার।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

ইংল্যান্ড ইনিংস: ২৯০ ও ৩৪৬

শ্রীলঙ্কা ইনিংস: ৩৩৬ ও ২৪৩ (লক্ষ্য ৩০১) (চতুর্থ দিন শেষে ২২৬/৭) ( ম্যাথুজ ৮৮, করুনারত্নে ৫৭, ডিকভেলা ৩৫, ধনঞ্জয়া ৮*; অ্যান্ডারসন ০/১২, লিচ ৫/৮৩, মঈন ৪/৭২, রশিদ ১/৫২, রুট ০/১৫)

ফল: ইংল্যান্ড ৫৭ রানে জয়ী।

সিরিজ: ৩ ম্যাচের সিরিজে ইংল্যান্ড ২-০ তে এগিয়ে।

ম্যান অব দ্য ম্যাচ: জো রুট

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত