মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

ভরাডুবির দায় নিলেন আমির খান

আপডেট : ২৭ নভেম্বর ২০১৮, ০১:৩০ পিএম

‘থাগস অব হিন্দুস্তান’ সিনেমার ভরাডুবির দায় নিজের কাঁধে নিলেন আমির খান। বিনোদন দিতে পারেননি বলে দর্শকদের কাছে দুঃখ প্রকাশ করলেন এ বলিউড অভিনেতা। সঙ্গে জানালেন, তার টিম সর্বোচ্চ শক্তি দিয়ে সিনেমাটি বানানোর চেষ্টা করেছিল।

সম্প্রতি মুম্বাইয়ে অনুষ্ঠিত চিত্রনাট্য প্রতিযোগিতার মঞ্চে সিনেমাটির ব্যর্থতা নিয়ে মুখ খুলেন আমির খান। ওই সময় তার সঙ্গে ছিলেন লেখক জুহি চতুর্বেদি ও আনজুম রাজাবালি।

‘থাগস অব হিন্দুস্তান’ সিনেমায় প্রথমবার অমিতাভ বচ্চনের সঙ্গে পর্দা ভাগাভাগি করেন আমির খান। নায়িকা ছিলেন ক্যাটরিনা কাইফ ও ফাতিমা সানা শেখ। কিন্তু বড় তারকা ও বাজেট সিনেমাটিকে দিতে পারেনি ব্যবসায়িক সাফল্য।

আমির খান বলেন, “আমি মনে করি আমরা ভুল করেছি, আমি এর পুরো দায়িত্ব নিতে চাই। আমরা ভালো একটা সিনেমা বানানোর জন্য খুব চেষ্টা করেছি। আমরা নিজেদের পুরো সামর্থ প্রয়োগ করতে পিছপা হইনি। কিন্তু কোথাও ভুল হয়ে গেছে।”

তিনি আরও বলেন, “অনেকে সিনেমাটি পছন্দ করেছেন। আমরা তাদের কাছে কৃতজ্ঞ। কিন্তু এ সংখ্যা খুবই কম। আমরা জানি বেশির ভাগ দর্শকই ছবিটি পছন্দ করেননি।”

সর্বশেষ কয়েক বছরে তারে জমিন পার, গজিনি, থ্রি ইডিয়টস, পিকে ও দঙ্গলের মতো সিনেমা উপহার দিয়ে দর্শকের আস্থা অর্জন করেন আমির খান।

আমির বলেন, “আমি দর্শকদের কাছে ক্ষমা চাই এবার তাদের বিনোদিত করতে পারিনি। আমি জানি তারা অনেক প্রত্যাশা নিয়ে সিনেমা হলে গিয়েছিলেন কিন্তু  উপভোগ করতে পারেননি।”

আরও জানান, পরের সিনেমার জন্য কঠোর পরিশ্রম করবেন।

ইয়াশ রাজ ফিল্মসের ব্যানারে নির্মিত ‘থাগস অব হিন্দুস্তান’ পরিচালনা করেন বিজয় কৃষ্ণ আচারিয়া। চলতি বছরের অন্যতম প্রতিক্ষীত সিনেমা হিসেবে বিবেচনা করা হলেও মুক্তির দিন থেকে দর্শক-সমালোচক দ্বারা নিন্দিত হয়।

‘থাগস অব হিন্দুস্তান’-এর ব্যর্থতা নিয়ে আগাম কোনো ধারণা পেয়েছিলেন কিনা এ প্রশ্নে আমির খান বলেন, “প্রকাশ্যে এ বিষয়ে কথা বলা আমার জন্য স্বস্তিকর নয়। কারণ যখন সিনেমাটি করেছি আমি এর সঙ্গে ঘনিষ্ঠবোধ করেছি। এটা আমার সন্তানের মতো। তাই সিনেমাটি প্রত্যাশা মতো সফল না হলেও আমার সন্তান হয়েই থাকবে।”

‘থাগস অব হিন্দুস্তান’ নিয়ে আর প্রত্যাশা কী? এ প্রসঙ্গে জানান, শিগগিরই চীনে সিনেমাটি মুক্তি পাবে। সেখানে কী ঘটে দেখার অপেক্ষায় আছেন।

আমির খানের সর্বশেষ দুই সিনেমা দঙ্গল ও সিক্রেট সুপারস্টার চীনে ভালো ব্যবসা করেছে।

মঞ্চে আমিরের পাশে থাকা আনজুম রাজাবালি নিশ্চিত করেন, এ নায়কের পরের প্রজেক্ট হচ্ছে ‘মহাভারত’। অবশ্য এ নিয়ে মন্তব্য আসেনি ‘কেয়ামত সে কেয়ামত তক’ অভিনেতার পক্ষ থেকে।

   
সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত