বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

৪ হাজারি ক্লাবে মুশফিক

আপডেট : ৩০ নভেম্বর ২০১৮, ০৮:১২ পিএম

তামিম ইকবালের পর বাংলাদেশের দ্বিতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে টেস্ট ক্রিকেটে ৪ হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করেছেন মুশফিকুর রহিম। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ঢাকা টেস্টে ৮ রান করতেই এই কীর্তি গড়েন তিনি।

শুক্রবার মিরপুর স্টেডিয়ামে বাংলাদেশের প্রথম ইনিংসে দেবেন্দ্র বিশুর করা ৬৫ তম ওভারের চতুর্থ বল পয়েন্টে কাট করেই মাইলফলক স্পর্শ করা রান পেয়ে যান মুশফিক। এদিন অবশ্য লম্বা ইনিংস খেলতে পারেনি ডানহাতি এই ব্যাটার। ব্যক্তিগত ১৪ রানে বোল্ড হন শেরমন লুইসের সুইং করা বল লাইন মিস করে।

চার হাজার রান করতে মুশফিককে খেলতে হয়েছে ১২৩ ইনিংস। ১০৬ ইনিংস খেলে দেশের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে গত জুনে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে ৪ হাজার রানের ঘরে পৌঁছান তামিম।

২০০৫ সালে ১৭ বছর বয়সে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে লর্ডস টেস্টে অভিষেক মুশফিকের। পাঁচ বছর পর ইংলিশদের বিপক্ষেই ঢাকা টেস্টে ১ হাজার রান স্পর্শ করেন তিনি। এতে তার লেগে যায় ৪১টি ইনিংস।

ধীরে ধীরে নিজেকে মেলে ধরতে থাকেন মুশফিক। ২ হাজার রান করতে তার লাগে ৬৭ ইনিংস, ৩ হাজার করতে ৯৫ ইনিংস।

এই অর্জনের পথে আরও কিছু কীর্তি গড়েছেন মুশফিক। টেস্টে বাংলাদেশের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে ২০১৩ সালে ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকান তিনি। দেশের একমাত্র ব্যাটার হিসেবে টেস্টে দুটি ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকানোর রেকর্ড রয়েছে তার। চলতি মাসের শুরুতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ঢাকা টেস্টের প্রথম ইনিংসে অপরাজিত ২১৯ রানের ইনিংস খেলেছিলেন তিনি। দুই ডাবল সেঞ্চুরিসহ টেস্টে মুশফিক মোট শতক ছয়টি, অর্ধশতক ১৯টি।

টেস্টে ৪ হাজার রানের কাছে থাকা বাংলাদেশের আরেক নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান সাকিব আল হাসান। ৫৪ টেস্ট পর্যন্ত তার রান ৩৭২৭।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত