সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

বাঘের সঙ্গে আধাঘণ্টা লড়াই করে ফেরা

আপডেট : ০২ জানুয়ারি ২০১৯, ০৯:৩৯ পিএম

সুন্দরবনে মাছ শিকার করতে গিয়ে বাঘের সঙ্গে আধাঘণ্টা লড়াই করে জীবন নিয়ে ফিরে এসেছেন মাসুম হাওলাদার (৩০) নামে এক জেলে। বাঘের মুখ থেকে ফেরা এই জেলে এখন শঙ্কামুক্ত রয়েছেন।

বুধবার বিকেলে সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের শরণখোলা রেঞ্জের ধানসাগর স্টেশনের তাম্বুলবুনিয়া এলাকায় বাঘের সঙ্গে ওই জেলের লড়াই হয়।

আহত মাসুমকে সন্ধ্যায় শরণখোলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। তিনি জেলার শরণখোলা উপজেলার উত্তর রাজাপুর গ্রামের আবদুল জলিল হাওলাদারের ছেলে।

মাসুমের দুই সহযোগী মামুন হাওলাদার ও তার ছোট ভাই জাহিদুল হাওলাদার সাংবাদিকদের বলেন, বুধবার সকালে ধানসাগর স্টেশন থেকে পাস পারমিট নিয়ে নৌকায় করে সুন্দরবনে তাম্বলবুনিয়া খাল এলাকায় বড়শি দিয়ে মাছ শিকারে যান তারা।

বিকেল ৩টার দিকে বড়শির টোপ সংগ্রহের জন্য জাহিদুল খালে জাল ফেলে মাছ শিকার করছিলেন আর মাসুম খালের পাড়ে দাঁড়িয়ে ছিলেন। এসময় সুন্দরবনের ভেতর থেকে একটি বাঘ পেছন থেকে হঠাৎ মাসুমের ওপর আক্রমণ করে। তাদের মধ্যে প্রায় আধাঘণ্টা ধরে ধস্তাধস্তি চলার একপর্যায়ে জাহিদুলের ডাক-চিৎকার শুরু করলে আশেপাশে থাকা অন্য জেলেরা লাঠিসোঁটা নিয়ে ছুটে আসলে বাঘ মাসুমকে ছেড়ে বনের গহীনে ঢুকে যায়।

ততক্ষণে মাসুমের শরীরের বিভিন্ন স্থান বাঘের নখ ও দাঁতের আঘাতে ক্ষতবিক্ষত হয়। পরে তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে শরণখোলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য নিয়ে আসা হয়।

শরণখোলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. অসীম কুমার সমাদ্দার রাতে এই প্রতিবেদককে বলেন, বাঘের আক্রমণে আহত জেলে মাসুমকে সন্ধ্যায় ভর্তি করা হয়। তার বাম হাতে বাঘের নখের আঁচড় আর ডান পায়ে কামড়ের চিহ্ন রয়েছে। তাকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। তিনি এখন শঙ্কামুক্ত।

সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) মাহমুদুল হাসান বলেন, সুন্দরবনে পাস পারমিট নিয়ে মাছ শিকার করতে যাওয়া জেলে মাসুমকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত