বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ১০ শ্রাবণ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

অবশেষে ফিরে এল শচীন

আপডেট : ০৫ জানুয়ারি ২০১৯, ১১:০৬ পিএম

চার দিন ধরে লাপাত্তা ছিলেন শচীন, এদিকে তাকে নিয়ে সবাই দুশ্চিন্তায়। অবশেষে নিরাপদেই ফিরে এসেছেন তিনি। শচীন নাম শুনে হয়তো অনেকেই আঁতকে উঠলেন। আসলে এটি হলো চিতাবাঘের নাম।

পশ্চিমবঙ্গের এক সাফারি পার্কে জন্মানো চিতাবাঘটির নাম রাখা হয় ভারতের কিংবদন্তী সাবেক ক্রিকেটার শচীন টেন্ডুলকারের নামে। চার বছর বয়সী বাঘটি  ইংরেজি নববর্ষের দিনে পার্ক থেকে পালিয়ে যায়।

তার সন্ধানে কী করা হয়নি, ড্রোন থেকে শুরু করে প্রশিক্ষিত হাতি পর্যন্ত কাজে লাগানো হয়। শিকারের টোপও দেওয়া হয়েছিল। এরপরেও তাকে খুঁজে না পেয়ে দুশ্চিন্তায় ছিল কর্তৃপক্ষ। শুক্রবার নিজ থেকেই ডেরায় ফিরে আসে বাঘটি।  

এনডিটিভি জানায়, বাঘটি পার্ক থেকে বেরিয়ে যাবার পর আশেপাশের গ্রামের মানুষ আতংকে ছিল। তবে এখনো বাঘটি শিকার ধরতে শেখেনি জানায় পার্কের চিড়িয়াখানার কর্মকর্তায় বিনোদ কুমার।

তিনি বলেন, চিতাবাঘটি জন্ম থেকেই বন্দিদশায় বেড়ে ওঠায় এখনো নিজ থেকে শিকার খুঁজতে অক্ষম।

ক্ষিধায় কাতর হয়েই খাঁচায় ফিরে এসেছে বলে জানান তিনি। বিনোদ বলেন, আমরা শচীনের খাঁচার ভেতরে মাংস রেখে সেটি খোলা রেখেছিলাম। শুক্রবার রাতে ক্ষুধার্ত অবস্থায় ফিরে এসে নিজেই খাঁচায় ঢুকে পড়ে সে।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত