শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

ঝালকাঠিতে ফের ‘ধর্ষকে’র লাশ

‘স্বীকারোক্তি’র সেই চিরকুট

আপডেট : ০২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৩:২৫ এএম

পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়া মাদ্রাসাছাত্রীকে দল বেঁধে ধর্ষণের ঘটনায় করা মামলায় আরেক আসামির লাশ মিলেছে ঝালকাঠিতেই, যার বুকে একইভাবে ধর্ষণের স্বীকারোক্তির চিঠি পেয়েছে পুলিশ। নিহত রাকিব হাসান (২৮) ভাণ্ডারিয়ার শিয়ালকাঠী ইউনিয়নের ভিটাবাড়ী গ্রামের আবুল কালামের ছেলে। গতকাল শুক্রবার দুপুরে রাজাপুর সদর ইউনিয়নের আঙ্গারিয়া গ্রাম থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

রাজাপুর থানার ওসি মো. জাহিদ হোসেন দেশ রূপান্তরকে বলেন, ‘স্থানীয়দের কাছে খবর পেয়ে আজ বেলা ১২টায় আঙ্গারিয়া গ্রামের একটি পরিত্যক্ত ইটভাটা-সংলগ্ন বাগানের পাশ থেকে রাকিবের লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহতের মাথায় রক্তাক্ত জখম, মাথার ডান পাশে ও চোখের নিচে চোয়ালের ওপর আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তার বুকে লেমিনেটিং করা একটি কাগজের চিরকুটে লেখা ছিল ‘আমি পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়ার (অমুকের) ধর্ষক রাকিব। ধর্ষণের পরিণতি ইহাই। ধর্ষকরা সাবধান। হারকিউলিস’।

এর আগে একই ধর্ষণের মামলার প্রধান আসামি সজলের লাশ গত ২৬ জানুয়ারি ঝালকাঠির কাঁঠালিয়া উপজেলার একটি ধানক্ষেত থেকে উদ্ধারের কথা জানায় পুলিশ। মাথায় গুলিবিদ্ধ ওই লাশের গলায় ঝোলানো চিরকুটে লেখা ছিল, ‘আমার নাম সজল মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণ করার কারণে আমার এই পরিণতি।’ গত ১২ জানুয়ারি সকালে ভাণ্ডারিয়া উপজেলার হেতালিয়া গ্রামে এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে পানের বরজে নিয়ে ধর্ষণ করা হয়। ওই ঘটনার পর মেয়েটির পরিবার গত ১৭ জানুয়ারি ভাণ্ডারিয়া থানায় মামলা করে। শিয়ালকাঠী ইউনিয়নের ভিটাবাড়ী  গ্রামের আবুল কালামের ছেলে রাকিব হাসান (২৮) এবং নদমুলা গ্রামের আলম জোমাদ্দারের ছেলে সজল জোমাদ্দারকে (২৮) সেখানে আসামি করা হয়।

রাকিবের বাবা আবুল কালাম আজাদ মোল্লা মোবাইল ফোনে দেশ রূপান্তরকে জানান, তার ছেলে তাবিদ ইসলাম রাকিব ঢাকায় আশা বিশ্ববিদ্যালয়ের এলএলবি অনার্স পঞ্চম সেমিস্টারে পড়ত। সজল ও রাকিব মামাতো-ফুপাতো ভাই। ঘটনার কয়েক দিন আগে ছুটিতে বাড়ি গেলে ঘটনার দিন সজল রাকিবকে ডেকে নিয়ে যায়।

তিনি বলেন, ‘পরে ধর্ষণের কথা স্থানীয়দের কাছে জানতে পারি। নিখোঁজ হবার আগে আমি আমার ছেলের সাথে কথা বলেছি। ধর্ষণের সময় ও উপস্থিত ছিল, তবে ও ধর্ষণ করেনি। ধর্ষণের ঘটনার পর মামলা হলে ওরা দুজন পালিয়ে ঢাকায় যায়। গত ২৫ জানুয়ারি রাকিব ঢাকা থেকে নিখোঁজ হয়। আজ দুপুরে শুনি রাজাপুরে রাকিবের লাশ পাওয়া গেছে। ঘটনা শুনে আমি ঢাকা থেকে বাড়ির পথে রওনা হয়েছি।’

এর আগে গত ১৭ জানুয়ারি ঢাকার আশুলিয়ায় দলবদ্ধ ধর্ষণের শিকার ১৬ বছর বয়সী এক পোশাককর্মীর মৃত্যুর ঘটনায় করা মামলায় একই পোশাক কারখানার লাইন চিফ ও ঝিনাইদহের কালীগঞ্জের আবদুল লতিফের ছেলে রিপনের (৩৯) লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। তার গলায় ঝোলানো একটি চিরকুটে লেখা ছিলÑ ‘আমি ধর্ষণ মামলার মূল হোতা’। এর আগে ধর্ষণের ঘটনায় করা মামলার আসামির লাশ উদ্ধারের একাধিক ঘটনা থাকলেও শরীরের মধ্যে চিরকুট পাওয়ার ঘটনা এ বছরই প্রথম ঘটেছে।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত