রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

মিটু’র জেরে অলোক নাথ ছয় মাস নিষিদ্ধ

আপডেট : ০২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০২:৪৪ পিএম

হ্যাশট্যাগ মিটু’র কলঙ্ক মুছতে পারলেন না বলিউড সিনেমার ‘সংসারী বাপু’ অলোক নাথ। শিকার হলেন ছয় মাসের নিষেধাজ্ঞার।

ইন্ডিয়ান ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন ডাইরেক্টরস অ্যাসোসিয়েশনের (আইএফটিডিএ) তরফে শুক্রবার জানানো হয়, ফেডারেশন অব ওয়েস্টার্ন ইন্ডিয়া সিনে এমপ্লয়িজ অ্যাসোসিয়েশন (এফডব্লিউআইসিই) ৬ মাসের জন্য অলোক নাথকে নিষিদ্ধ করেছে। তারা এ অভিনেতাকে কোনো ধরনের সহায়তা করবে না।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানায়, এর আগে সিনে অ্যান্ড টিভি আর্টিস্ট অ্যাসোসিয়েশন (সিআইএনটিএএ) বহিষ্কার করে অলোক নাথকে।

আলোকের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগের সুরাহা করতে ১২ নভেম্বর সভা ডাকে সিআইএনটিএএ। কিন্তু ওই সভায় উপস্থিত থাকেননি অলোক নাথ। এরপরই বর্ষীয়ান অভিনেতাকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

আইএফটিডিএ-র সভাপতি অশোক পণ্ডিত জানিয়েছেন, বিনতা নন্দার অভিযোগের ভিত্তিতে অলোক নাথের বিরুদ্ধে সেক্সুয়াল হ্যারেসমেন্ট অ্যাক্ট অ্যান্ড রুলস (পিওএসএইচ) কমিটিতে অভিযোগ দায়ের করা হয়।

তিনি আরও জানান, ইন্টারনাল কমপ্লেন্টস কমিটি (আইসিসি) তিনবার অলোক নাথকে ডেকে পাঠায়। কিন্তু তিনি কোনোভাবেই সহযোগিতা করেননি, একবারও সভায় আসেননি। এর পরেই এফডব্লিউআইসিই-র দ্বারস্থ হন তারা। অলোক নাথকে ৬ মাসের জন্য নিষিদ্ধ করার অনুমোদন দেয় এফডব্লিউআইসিই। এই সিদ্ধান্তের কথা অভিনেতাকেও জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।

তবে এই বিষয়ে অলোক নাথ বলেন, আইন সঠিক সিদ্ধান্ত নেবে।

কয়েক মাস আগে অলোক নাথের বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও যৌন হেনস্তার অভিযোগ আনেন চিত্রনাট্যকার, পরিচালক ও প্রযোজক বিনতা নন্দা। অলোকে স্ত্রী ছিলেন তার ভালো বন্ধু। একসঙ্গে থিয়েটার করতেন। এ কারণে তাদের বাসায় যাওয়া-আসা ছিল। বিনতা জানান. ১৯৯০ এর দশকে অলোক নাথের বাসায় এক পার্টিতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার হন। এ ছাড়া কয়েকবার তাকে বাজে প্রস্তাব দেওয়া হয়।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত