রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

পূজার ‘অমরাবতীর তীরে’

আপডেট : ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১:৪৯ পিএম

সাফল্যের পাঁচ বছর পার করল দেশের ব্যতিক্রমী নাচের দল ‘তুরঙ্গমী’। এ দলের প্রধান জনপ্রিয় নৃত্যশিল্পী ও কোরিওগ্রাফার পূজা সেনগুপ্ত। তিনি এরই মধ্যে নিজের মেধার প্রমাণ দিয়েছেন দেশ ও বিদেশে। তার একাধিক প্রযোজনা দেশ ও বিদেশের মাটিতে প্রশংসিত হয়েছে। ‘তুরঙ্গমী’র পাঁচ বছর পূর্তি প্রসঙ্গে পূজা বলেন, ‘আমরা খুবই খুশি। মাত্র পাঁচ বছরেই আমাদের দলটি স্বকীয়তা তৈরি করে নিজস্ব জায়গা করে নিয়েছে নৃত্যভুবনে। গত বছর দলের চার বছর পূর্তিতে বড় করে আয়োজন করেছিলাম। সেখানে একাধিক দেশের অ্যাম্বাসাডর উপস্থিত ছিলেন। তাই আমাদের অনুরাগীরা এবারও তেমন কিছু আশা করেছিল। তবে আমার মনে হয়েছে দলের সাফল্য উদ্যাপন করা উচিত তার কাজের মাধ্যমে। আমাদের সর্বশেষ প্রযোজনা ওয়াটারনেস যে পরিমাণ সাড়া ফেলেছে, তেমনি নতুন প্রযোজনা যদি তেমন বা তার বেশি সাড়া ফেলতে পারে, তবেই উদ্যাপন সার্থক হবে। সেই ভাবনা থেকেই ঢাকার নিউ ইস্কাটনে, তুরঙ্গমীর নিজস্ব স্টুডিওতে দলের সদস্যদের নিয়ে ছোটখাটো আনন্দ আড্ডার আয়োজন করা হয়। সেখানে বর্ষসেরা তুরঙ্গমী সদস্যের নাম ঘোষণা করা হয়। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তুরঙ্গমীর পেজ থেকে প্রস্ফুটিত পাঁচ শিরোনামে এক মিনিটের একটি তথ্যচিত্র প্রকাশ করা হয়েছে।’

এদিকে, এ বছরই মঞ্চে আসবে ‘তুরঙ্গমী’র নতুন ড্যান্স থিয়েটার ‘অমরাবতীর তীরে’। আবুল হোসেনের উপন্যাস ‘জল বেহুলা’ অবলম্বনে নির্মিত এই ড্যান্স থিয়েটারে দেখানো হবে সমসাময়িক নাগরিক জীবনের সম্পর্কের টানাপড়েন। পূজা বলেন, ‘অনেক আগেই এর কাজ শুরু করেছি। এই ড্যান্স থিয়েটারে গানের চেয়ে ব্যাকগ্রাউন্ড স্কোর থাকবে বেশি। এরই মধ্যে একাধিক পিচ তৈরি হয়ে গেছে। মিউজিকে কাজ করছেন দেশ ও বিদেশের মিউজিশিয়ানরা। গাইবেনও দেশ-বিদেশের শিল্পীরা। আর নাচের অংশে ‘তুরঙ্গমী’র সদস্যদের পাশাপাশি ঢাকা ও ঢাকার বাইরের অন্য দলের নৃত্যশিল্পী ও থিয়েটারকর্মীও নেওয়া হবে। কারণ এটি অনেক বড় আয়োজনের প্রযোজনা হতে চলেছে। আশা করছি এ বছরের এপ্রিলে এটি মঞ্চে নিয়ে আসতে পারব।’

পূজা বর্তমানে ব্যস্ত আছেন তাদের ছোট্ট একটি প্রযোজনা ‘হাবিং’ নিয়ে। এটি বাংলাদেশের উপজাতীয় ভাষার ওপর নির্মিত। এ ভাষার সঙ্গে নজরুলের গানের চমৎকার মেলবন্ধন করা হয়েছে। এরই মধ্যে প্রযোজনাটি ফিলিপাইনে প্রদর্শন করে ব্যাপক সুনাম কুড়ায় ‘তুরঙ্গমী’। সেই নাচটিই এবার দেশের মাটিতে করবে তারা। আসছে পহেলা ফাল্গুনে চারুকলার বকুলতলায় সকালে রয়েছে এই পরিবেশনা।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের ৩১ জানুয়ারি সব্যসাচী লেখক সৈয়দ শামসুল হককে শ্রদ্ধা জানিয়ে ‘আ ট্রিবিউট টু দ্য প্লেরাইট : সৈয়দ হক’ কোরিওগ্রাফির মাধ্যমে আত্মপ্রকাশ করে ‘তুরঙ্গমী’। এরপর মঞ্চে আসে তাদের সংক্ষিপ্ত প্রযোজনা ‘ফরেভার : চিরদিনের গান’, ‘হাবেং’, ‘অনামিকা সাগরকন্যা’, ‘নারগিস’ ও জাতীয় বিদ্যুৎ সপ্তাহের থিম সং কোরিওগ্রাফি। আর টেলিভিশনের পর্দায় গত বছরের অন্যতম আলোচিত কোরিওগ্রাফি ছিল ‘অরণ্যা’। এপ্রিলে ফিলিপাইনের ড্যান্স এক্সচেঞ্জ ২০১৮ এবং সেপ্টেম্বরে চীনের ডুঙ্ঘুয়াং আন্তর্জাতিক নৃত্য শিক্ষা সম্মেলন ২০১৮ সালে আমন্ত্রণ পায় তুরঙ্গমী। তুরঙ্গমীর শৈল্পিক পরিচালক পূজা সেনগুপ্তর নাচবিষয়ক তিনটি প্রবন্ধ প্রকাশিত হয়েছে ভারত, চীন ও রাশিয়ার আন্তর্জাতিক জার্নালে। অক্টোবর মাসে তুরঙ্গমীর নিজস্ব আয়োজনে রাজধানীর হাতিরঝিলের এম্ফিথিয়েটারে দর্শনীর বিনিময়ে বাংলাদেশের প্রথম ড্যান্স থিয়েটার ‘ওয়াটারনেস’র নবম মঞ্চায়ন অনুষ্ঠিত হয়।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত