মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

পাইলস থেকে মুক্তি পেতে

আপডেট : ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১০:৫৫ পিএম

পাইলস কী?

 

মলদ্বারের নিম্নাংশ বা মলদ্বারের শিরাগুলো ফুলে গেলে সেগুলোকে সাধারণত অর্শ্ব বা পাইলস বলে। এই অর্শ্ব মলদ্বারের অভ্যন্তরেও হতে পারে আবার বাইরেও হতে পারে। আক্রান্ত ব্যক্তির পায়খানার সঙ্গে রক্ত বের হয়। কখনো কখনো এক দিন রক্ত দেখা দিলে আবার ছয় মাস পর রক্তের দেখা মেলে। দীর্ঘমেয়াদি কোষ্ঠকাঠিন্য বা ডায়রিয়ায় শাকসবজি ও অন্যান্য আঁশযুক্ত খাবার, পানি কম খাওয়াসহ বিভিন্ন কারণে অর্শ্ব বা পাইলস দেখা দিতে পারে।

পাইলসের উপসর্গ

পাইলসে আক্রান্ত হলে পায়খানার সঙ্গে তাজা রক্ত যায়। মুরগি জবাই করলে যেমন তাজা রক্ত দেখা যায়, তেমনি পায়খানার সঙ্গেও রক্ত ঝরতে দেখা যায়। ফোঁটা ফোঁটা রক্ত বের হতে দেখা যায়। এ রোগে আক্রান্ত হলে বিভিন্ন রকম উপসর্গ দেখা দিতে পারে। এক দিন রক্ত বের হলে ছয় মাস পর আবার বের হতে থাকে। দিনে দিনে এটা ছয় মাস থেকে তিন মাস, এক মাস, ১৫ দিন, সাত দিনÑ এভাবে আক্রান্ত হওয়ার সময় যত বাড়ে রক্ত বেশি ঝরতে থাকে।

অনেক সময় মলদ্বারের ভেতর থেকে মাংসপি- বাইরে বের হয়ে আসে। এটি আবার অনেকেই আঙুল দিয়ে ভেতরে ঢুকিয়ে দেয়। এমন অবস্থা হলে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ দিতে হবে।

এ ছাড়া চিকিৎসার নামে অনেকে মলদ্বারে পাউডার দেয়। ফলে মলদ্বারের আশপাশে পচন ধরে। এটাকে অপচিকিৎসা বলে। এমন চিকিৎসা জীবনের জন্য হুমকি। সবার উদ্দেশে বলছি, পাইলস রোগীদের জন্য আমাদের দেশে অনেক ভালো চিকিৎসা আছে।

প্রাথমিক চিকিৎসা

রোগটি প্রাথমিক পর্যায়ে থাকলে আমাদের নিয়মিত বেশি করে শাকসবজি খেতে হবে। সেটি অনুস্মরণ করলে ঠিক হয়ে যায়। এ ছাড়া বেশি করে পানি খাওয়া ও ফলমূল খেলেও প্রাথমিক পাইলস ভালো হয়ে যায়।

করণীয়

কোষ্ঠকাঠিন্য যেন না হয়, সে বিষয়ে সতর্ক থাকা এবং নিয়মিত মলত্যাগ করা। পর্যাপ্ত পরিমাণে শাকসবজি ও অন্যান্য আঁশযুক্ত খাবার খাওয়া ও পানি (প্রতিদিন ৮-১০ গ্লাস) পান করা। সহনীয় মাত্রার অধিক পরিশ্রম না করা। রোজ ছয়-আট ঘণ্টা ঘুমানো। টয়লেটে অধিক সময় ব্যয় না করা ইত্যাদি।

কখন অপারেশন করাতে হয়?

বেশির ভাগ দেখা যায় ১০ থেকে ১২ বছর পাইলসে আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসা করতে হয়। তখন অধিকাংশ রোগীকে অপারেশন করতে হয়। অপারেশনের অধিকাংশ রোগী ভালো হয়ে যায়। সঠিক সময় চিকিৎসা নিলে অপারেশন ছাড়াই পাইলস ভালো হয়।

অধ্যাপক ডা. এস এম এ এরফান
এমবিবিএস, এফসিপিএস (সার্জারি)
অধ্যাপক ও বিভাগীয় প্রধান (সার্জারি বিভাগ)
কেয়ার মেডিকেল কলেজ
চেম্বার : জাপান বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ হসপিটাল
জিগাতলা, ধানমন্ডি, ঢাকা।
০১৮৬৫-৫৫৫ ৫১১, ০১৬২৬-৫৫৫ ৫১১

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত