শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

বিজিবি সদর দপ্তরে ডিজি

ভারতের অভ্যন্তরে নিহত হওয়া সীমান্ত হত্যা নয়

আপডেট : ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০২:১৫ এএম

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) মহাপরিচালক (ডিজি) মেজর জেনারেল সাফিনুল ইসলাম বলেছেন, সীমান্তের শূন্যরেখা বা ২০০ গজের মধ্যে কাউকে হত্যা করলে সেটা সীমান্ত হত্যাকাণ্ড হবে। ভারতের অনেক ভেতরে গিয়ে কেউ গুলিতে বা পিটুনিতে মারা গেলে, একে সীমান্ত হত্যাকাণ্ড না বলে সাধারণ হত্যা বলতে হবে। গতকাল বুধবার বিজিবির আভিযানিক কার্যক্রমকে আধুনিক, যুগোপযোগী ও গতিশীল করতে রাজধানীর পিলখানায় বিজিবি সদর দপ্তরে স্থাপিত ‘সীমান্ত ডাটা সেন্টার’-এর উদ্বোধন শেষে ডিজি এসব কথা বলেন। সীমান্তে হত্যা নিয়ে সাফিনুল বলেন, ‘আমাদের দেশের নাগরিকরা আত্মীয়তা বা অন্য কোনো কারণে অবৈধভাবে সীমান্ত পার হয়ে ভারতে যায়। সেখানে অবৈধ অনুপ্রবেশ বা কোনো অপরাধ সংঘটনের কারণে তারা নিহত হচ্ছে।’ ওই সময় সীমান্তে হত্যা শূন্যের কোঠায় আনতে অবৈধভাবে অনুপ্রবেশ বন্ধ করা জরুরি বলে মত দেন তিনি।

ডিজি বলেন, ‘চলতি বছর সীমান্তের ওপারে আট বাংলাদেশি নাগরিক নিহত হয়েছে। তারা কেউই শূন্যরেখার ২০০ গজের মধ্যে মারা যায়নি; বরং নিহত হয়েছে ভারতের ১০ থেকে ২০ কিলোমিটার অভ্যন্তরে। শীতকালে কুয়াশাজনিত কারণে অবৈধভাবে সীমান্ত পারাপার বেড়ে যায়। কিছু বাংলাদেশি নাগরিক ভারতের দেওয়া কাঁটাতারের বেড়া কেটে দেয়। এসবের মাধ্যমে তারা অবৈধভাবে সীমান্ত পার হয় এবং হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়। সীমান্ত হত্যা কমাতে আমরা সীমান্তে বেশ কিছু সচেতনতামূলক কার্যক্রম গ্রহণ করেছি। তাদের সচেতন করে তোলার জন্য বিভিন্ন কাজ করেছি।’

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘ভারতের অভ্যন্তরে যেসব হত্যাকাণ্ড হয়, সেটি সীমান্ত হত্যাকাণ্ড নয়; বরং পেটি ক্রাইম (ছোট অপরাধ)। এসব হত্যাকাণ্ড হওয়ার পর বিএসএফের কাছে ব্যাখ্যা চেয়েছি। বিএসএফপ্রধানের সঙ্গে আলাপ করেছি। আমি তাদের বলেছি, ‘আপনাদের তো ননলিথ্যাল (প্রাণঘাতী নয় এমন) অস্ত্র ব্যবহার করা কথা। কিন্তু আপনারা লিথ্যাল কেন ব্যববহার করছেন?’ তারা আমাকে আশ্বস্ত করেছেন যে, তারা বিষয়টি দেখবেন। সীমান্তরক্ষী বাহিনীর সদস্য যারা আছেন তাদের আরও সতর্ক করবেন।’

বিএসএফ সদস্যদের বিষয়ে বিজিবি ডিজি বলেন, ‘তাদের সীমান্তরক্ষী বাহিনী প্রতিনিয়ত পরিবর্তন হয়। নতুন ইউনিটের সদস্য এসে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের বিষয়টি জানতে সময় লাগছে। প্রতিটি ঘটনার পর আমরা বিএসএফের কাছে ব্যাখ্যা চেয়েছি। সীমান্ত হত্যা শূন্যের কোঠায় আনতে তারা প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। সব জায়গায় শুধু বিএসএফই গুলি করে না, মাঝে মাঝে খাসিয়া উপজাতিরা দেশীয় অস্ত্র দিয়ে গুলি করে।’

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত