মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

সিরাজগঞ্জের প্রথম শহীদ মিনার

আপডেট : ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১২:৫৬ এএম

সিরাজগঞ্জ শহরের ইলিয়ট ব্রিজের পূর্বপাশে ১৯৫৩ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি রাতে নির্মিত হয় জেলার প্রথম শহীদ মিনার। জেলার এই কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারটি এখনো কালের সাক্ষী হয়ে টিকে আছে। তবে অবহেলা, অযতœ আর রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে ইতিহাসের পাতা থেকে তা ক্রমশ হারিয়ে যাওয়ার উপক্রম হয়ে পড়েছে। মহান ভাষা আন্দোলনের শহীদদের স্মরণে একুশে ফেব্রুয়ারি শহীদ মিনারটি ফুলে ফুলে সাজানো হলেও এটা সংরক্ষণে কোনো উদ্যোগ নেই।

সিরাজগঞ্জের প্রবীণ সাংবাদিক ও লেখক আবদুল কুদ্দুস জানান, এই শহীদ মিনারটি নির্মাণের সময় প্রথম ইট পুঁতে ছিলেন জিন্নত আলী নামের এক শিশু। তিনি ছিলেন তৎকালীন রিকশা শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক নূর মোহাম্মদ বোচার ছেলে। সেই জিন্নত আলী এখন আর বেঁচে নেই। ২০১৭ সালে তিনি পরলোকগমন করেন। যুবক বয়সে পেশায় তিনি ছিলেন একজন রাজমিস্ত্রী। শেষ বয়সে তিনি রাজমিস্ত্রীর পেশা ছেড়ে রিকশা চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করেন। ১৯৫৩ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি রাতে শ্রমিকরা বিভিন্ন স্থান থেকে ইট, বালু, সিমেন্ট সংগ্রহ করে এনে ইলিয়ট ব্রিজের পূর্বপাশের কোনায় জড়ো করেন। এরপর শহীদ মিনার নির্মাণের জন্য শ্রমিকরা ছাত্র, শিক্ষক ও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের নিয়ে এক জরুরি বৈঠক করেন। ওই বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয় ২০ ফেব্রুয়ারি রাতের মধ্যেই শহীদ মিনার নির্মাণকাজ শেষ করা হবে এবং সকালে ওই নবনির্মিত শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধা জানাবে সবাই। পরদিন একুশে ফেব্রুয়ারি সকালে শহীদদের প্রতি ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান তারা।

১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে পাকসেনা ও রাজাকাররা মিলে শহীদ মিনারটি ভেঙে দেয়। দেশ স্বাধীনের পর ১৯৭৪ সালে পুনরায় ওই শহীদ মিনারটি নির্মাণ করা হয়। এটিই এখন সিরাজগঞ্জের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার। ১৯৮৮ সাল থেকে শহীদ মিনারটি সিরাজগঞ্জ পৌরসভার অধীনে পরিচালিত হয়ে আসছে। এদিকে শহীদ মিনারটির সংরক্ষণের যথাযথ উদ্যোগ না থাকায় এর উভয় পাশে দোকানপাট, কাঁচাবাজার, সিনেমা হলসহ নানা স্থাপনা গড়ে তোলা হয়েছে। অযতেœ ক্রমশ ধ্বংসের উপক্রম হয়েছে সিরাজগঞ্জে প্রথম নির্মিত এই শহীদ মিনার। এ ব্যাপারে সিরাজগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আবদুর রউফ মুক্তা বলেন, অচিরেই শহীদ মিনারটির সংস্কারের কাজ শুরু হবে। এর সৌন্দর্য বর্ধনসহ সংরক্ষণের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা করা হবে।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত