শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

ওয়ার্নের আলো-আঁধার

আপডেট : ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০১:২০ এএম

কিংবদন্তি বলতে যা বোঝায় শেন ওয়ার্ন ঠিক তাই। তার মতো লেগ স্পিনার ক্রিকেটে খুব বেশি আসেনি। শতাব্দীর সেরা বলটি বেরিয়েছে তার হাত থেকেই। এর চেয়েও বড় কথা, একসময় হারিয়ে যেতে বসা লেগ স্পিন শিল্পটাকে আবার ফিরিয়ে এনেছিলেন ক্রিকেটে। ডন ব্র্যাডম্যান তাকে সর্বকালের সেরা লেগ স্পিনারের স্বীকৃতি দিয়েছেন। কিন্তু সব স্বীকৃতি আর উৎকর্ষের চূড়ায় ওঠার পরেই ঘটেছে পতন। ২০০৩ সালে ড্রাগ টেস্টে পজিটিভ হওয়ার পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে এক বছরের জন্য নিষদ্ধ হয়েছিলেন। ঘটনাটা ঘটেছিল ২০০৩ সালের বিশ্বকাপের ঠিক আগের দিন। নিষিদ্ধ ‘ফ্লুইড ট্যাবলেট’ খেয়েছিলেন। এরপর ড্রাগ টেস্টে পজিটিভ হলে তাকে সরাসরি দেশে পাঠিয়ে দিয়েছিল ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। বোর্ডের ড্রাগ কোড ভঙ্গের দায়ে এক বছরের জন্য ক্রিকেট থেকে নির্বাসনও দেওয়া হয় ওয়ার্নকে। এই এক বছর ধারাভাষ্যকারের ভূমিকায় বিভিন্ন চ্যানেলে ক্রিকেট বিশ্লেষণ করেছেন তিনি। ফুটবলের কনসালটেন্সিও করেছিলেন। এরপর আবার মাঠে ফেরেন। আগের চেয়ে দুরন্ত ফর্ম নিয়ে হাজির হয়েছিলেন। অনেকেই বলেন, এক বছর নিষিদ্ধ হওয়ার ফলে শেন ওয়ার্নের টেস্ট ক্যারিয়ার আরও লম্বা হয়েছিল। শেষ পর্যন্ত ১৪৫ টেস্ট খেলে থামেন অস্ট্রেলিয়ান কিংবদন্তি এ লেগি। উইকেট নিয়েছিলেন ৭০৮টি।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত