বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

আবাসন মেলায় ভিড়

আপডেট : ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০১:৩০ এএম

বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হচ্ছে আবাসন মেলা। পছন্দসই বাড়ি কিনতে সেখানে ভিড় জমিয়েছেন রাজধানীর বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ। কেউ দেখছেন বড় প্লট-ফ্ল্যাট, কেউ ছোট ফ্ল্যাট, খোলামেলা জায়গাসহ অ্যাপার্টমেন্ট খুঁজছেন কেউ কেউ। তবে এখন পর্যন্ত মধ্যবিত্তদের উপস্থিতি বেশি থাকায় ছোট ফ্ল্যাটের চাহিদা বেশি দেখা গেছে।

গতকাল শুক্রবার ছুটির দিনে আবাসন মেলা ছিল জমজমাট। মেলায় নি¤œ মধ্যবিত্ত ও মধ্যবিত্ত ক্রেতাদের টানতে ছাড় দিচ্ছে বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠান। একই সঙ্গে আছে বিভিন্ন প্যাকেজ। মেলা প্রাঙ্গণ ঘুরে দেখা যায়, রিহ্যাব (রিয়েল এস্টেট অ্যান্ড হাউজিং অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ) আয়োজিত শীতকালীন আবাসন মেলার তৃতীয় দিনে ক্রেতাদের বড় অংশের চাহিদা ছিল ছোট থেকে মাঝারি আয়তনের ফ্ল্যাট। সকালের দিকে দর্শনার্থী-ক্রেতার উপস্থিতি কিছুটা কম থাকলেও বিকেলের দিকে প্রচুর ভিড় হয়। এবার খোলামেলা পরিবেশে ক্রেতারা বেশি যাচাই-বাছাই করার সুযোগ পাচ্ছেন। ছোট-বড় সব ধরনের ডেভেলপারই গ্রাহকদের কাছ থেকে সাড়া পাচ্ছেন। গৃহায়ন খাতে ঋণ প্রদানকারী আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও ব্যাংক মেলায় অংশ নেওয়ায় ক্রেতাদের বাড়তি সুবিধা হয়েছে। গ্রাহকরা আবাসন প্রতিষ্ঠানের স্টলের পাশাপাশি আর্থিক প্রতিষ্ঠানের স্টলেও ঢু মারছেন। অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানগুলো জানিয়েছে, অনেক গ্রাহক কোম্পানির প্রকল্পগুলোর প্রসপেক্টাস নিয়ে গেছেন। তারা যাচাই-বাছাই করে পরবর্তী সময়ে যোগাযোগ করবেন বলে আশা করছে প্রতিষ্ঠানগুলো। রাজধানীর বাড্ডা থেকে আবাসন মেলায় এসেছেন বেসরকারি চাকরিজীবী সাইফুল ইসলাম। তিনি বলেন, ‘ছুটির দিন হওয়ায় মেলায় আসার সুযোগ পেয়েছি। অনেক কোম্পানি এক ছাদের নিচে এসেছে। পরিবারের সদস্যদের স্বপ্ন ছোট একটা ফ্ল্যাটের। দেখি এবারের মেলায় স্বপ্ন পূরণ করতে পারি কি না।’

ছুটির দিনে ক্রেতার উপস্থিতি বাড়ায় মেলায় অংশ নেওয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর কর্মকর্তারাও বেশ খুশি। রূপায়ণ হাউজিং এস্টেট স্টলের বিক্রয় কর্মকর্তা মো. জিয়াউর রহমান বলেন, ‘এবারের মেলায় ছোট ফ্ল্যাট বা অ্যাপার্টমেন্টের চাহিদা বেশি। গ্রাহকদের কথা মাথায় রেখে রাজধানীর বসুন্ধরায় সুন্দর, পরিচ্ছন্ন পরিবেশে আমরাই দিচ্ছি স্বপ্নের বাড়ি। মেলার প্রথম দিন থেকেই আমরা ভালো সাড়া পাচ্ছি। ইতোমধ্যে বেশ কয়েকটি ফ্ল্যাট বিক্রি-বুকিং করতে পেরেছি। আশা করছি, শেষের দিনগুলোতে বিক্রি-বুকিং বাড়বে।’

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত