বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

টিএসসিতে স্পিকার

অবাধ তথ্যপ্রবাহের সুবর্ণ সময়ে বাংলাদেশ

আপডেট : ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৩:৫১ এএম

বাংলাদেশ এখন অবাধ তথ্যপ্রবাহের সুবর্ণ সময়ে বলে মনে করেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। গতকাল শুক্রবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-ছাত্র কেন্দ্র মিলনায়তনে ‘ব্রডকাস্ট জার্নালিস্ট সেন্টারের’ প্রথম সম্প্রচার সম্মেলন ও কেন্দ্র উদ্বোধন অনুষ্ঠানে এ মন্তব্য করেন তিনি। এ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে সম্প্রচার গণমাধ্যমের কর্মীদের কাজের নিরাপত্তা, ঝুঁকি মোকাবিলাসহ গবেষণা ও নীতি সহায়তায় কাজ করার প্রত্যাশা নিয়ে যাত্রা শুরু হলো ব্রডকাস্ট জার্নালিস্ট সেন্টারের।

স্পিকার বলেন, দেশে গণমাধ্যমের কর্মপরিধি ও কাজের পরিসর অনেক বিস্তৃত হয়েছে। বিশাল কর্মযজ্ঞকে সামনে রেখে ব্রডকাস্ট জার্নালিস্ট সেন্টার ট্রাস্টিবোর্ড গঠন করা হয়েছে, যা গণমাধ্যমের অগ্রযাত্রায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। তিনি বলেন, কল্যাণমূলক ও ঝুঁকি মোকাবিলা, পেশাগত ও অর্থনৈতিক সক্ষমতা বাড়ানো এবং গবেষণা ও নীতি সহায়তার লক্ষ্য সামনে নিয়ে সম্প্রচার সাংবাদিক কেন্দ্র যেন কার্যকরভাবে এগিয়ে যেতে পারে, সেটিই আমাদের প্রত্যাশা।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ জানান, ডাউনলিংক করা বিদেশি টিভি চ্যানেলে বিনা অনুমতিতে বিদেশি বিজ্ঞাপন প্রচার আইনত অপরাধ। এটি বন্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেবে সরকার। মন্ত্রিসভার প্রথম বৈঠকেই নবম ওয়েজ বোর্ড নিয়ে আলোচনা হয় জানিয়ে তিনি বলেন, প্রথম বৈঠকে নতুন করে কমিটি গঠনের প্রস্তাব করা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী সেটির অনুমোদন দিয়েছেন। নবম ওয়েজ বোর্ডের ভেতরে সম্প্রচার সাংবাদিকদের বেতনের ক্ষেত্রে আলাদা নীতিমালা করার কথা বলা আছে।

হাছান মাহমুদ বলেন, আজ গণমাধ্যম যথেষ্ট স্বাধীনভাবে কাজ করছে। গণমাধ্যমকর্মীদের সুরক্ষায় একাধিক নীতিমালা করা হয়েছে। বর্তমানে লাইসেন্সপ্রাপ্ত ৪৪টির মধ্যে ৩০টিরও বেশি বেসরকারি টিভি সম্প্রচারে আছে, যা পশ্চিম বাংলার চেয়ে বেশি।

পরে ‘সম্প্রচার শিল্প : সম্ভাবনা ও সংকট’ প্রতিপাদ্যে এটিএন নিউজের হেড অব নিউজ মুন্নী সাহার সঞ্চালনায় আলোচনায় অংশ নেন তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ, সাবেক সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, সাংবাদিক সৈয়দ ইশতিয়াক রেজা, মোজাম্মেল বাবু, রুবানা হক, শাকিল আহমেদ প্রমুখ।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত