সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

সায়েন্স ফিকশন

চাহিদা বেশি, বই কম

আপডেট : ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৩:৫৯ এএম

তরুণ পাঠকদের পছন্দের শীর্ষ থাকে সায়েন্স ফিকশন বই। এবার মেলায় এখন পর্যন্ত সায়েন্স ফিকশনের বই প্রকাশ হয়েছে কম। প্রকাশকরা বলছেন, দিন গড়ালে আরও বই আসবে। বাংলা একাডেমির জনসংযোগ উপবিভাগের তথ্য অনুযায়ী, মেলার প্রথম সপ্তাহে সায়েন্স ফিকশনের বই প্রকাশ হয়েছে মাত্র ১৬টি। গতকাল শুক্রবার ছুটির দিন বইমেলা শুরু হয় সকাল ১১টায়। দিনভর মানুষের ভিড় ছিল চোখে পড়ার মতো। সব বয়সী মানুষের মিলনমেলায় পরিণত হয়েছিল ‘অমর একুশে গ্রন্থমেলা-২০১৯’।

দুপুর গড়িয়ে বিকেল নামার আগেই ছুটির দিনে বইমেলায় ভিড় বেড়েছে বইপ্রেমীদের। কেউ বই কিনছেন কেউবা ঘুরে দেখছেন স্টল। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় দেখা মেলে অনেক স্কুল, কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়পড়–য়াদের। তাদের পছন্দ সায়েন্স ফিকশন বই। কেউ কেউ বলেছে রহস্য গল্পের কথাও।

মেলা ঘুরে দেখা যায়, তরুণদের চোখ ছিল সায়েন্স ফিকশন বইয়ের দিকে। ধানমন্ডি থেকে বইমেলায় আসা ভিকারুননিসা নূন স্কুলের শিক্ষার্থী সাদিয়া আফরিন দেশ রূপান্তরকে বলেন, ‘এবারের মেলায় প্রিয় লেখক জাফর ইকবালের বই কিনব। পাশাপাশি অন্য লেখকদেরও বেশ কয়েকটি সায়েন্স ফিকশনের বই কিনব।’ এদিকে বইমেলার প্রথম সপ্তাহে সায়েন্স ফিকশনের বই খুব বেশি প্রকাশ হয়নি। মেলার প্রথম সপ্তাহে বই প্রকাশ হয়েছে মাত্র ১৬টি। পাঞ্জেরী এনেছে জগদীশচন্দ্র বসুর লেখা সায়েন্স ফিকশন ‘পলাতক তুফান’, তাম্রলিপি এনেছে মুহম্মদ জাফর ইকবালের লেখা বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনী ‘নিয়ান’ ও মাহফুজুর রহমানের ‘মহাজগতের রঙিন জীবন’, কথাপ্রকাশ এনেছে সাজ্জাদ কবীরের ‘গুডবাই টু আর্থ’, অনিন্দ্য প্রকাশ এনেছে মোশতাক আহমেদের ‘জকি’, শিলা প্রকাশনী এনেছে তানভীর রবিনের ‘রক্তিম সাইমন’, তৃণলতা এনেছে আহসান হাবীবের ‘বিজ্ঞান কল্প গল্প’, রূপ প্রকাশন এনেছে স্টিফেন হকিং লুসি হকিংয়ের পাঁচটি সায়েন্স ফিকশন। যার মধ্যে আছেÑ ‘জর্জ’স কসমিক ট্রেজার হান্ট’, জর্জ’স সিক্রেট কি টু দ্য ইউনিভার্স, জর্জ’স অ্যান্ড দ্য বিগ ব্যাং, জর্জ’স অ্যান্ড দ্য আন ব্রেকেবল কোড, জর্জ’স অ্যান্ড দ্য ব্লু মুন’। অনিন্দ্য প্রকাশ এনেছে আসিফ মেহেদীর ‘ট্রুপিটু পৃথিবীর মহাবিপদ’, অন্যধারা পাবলিকেশন্স এনেছে আবু নেসার শাহীনের ‘রোবট এলিয়েনের যুদ্ধ’ কথাপ্রকাশ এনেছে মুহম্মদ মনিরুল হুদার ‘নীল চশমা’, পাঞ্জেরী পাবলিকেশন্স এনেছে ন. সিদ্দিকীর ‘মা ও রোবট’। এছাড়া বিগত বছরে প্রকাশিত সায়েন্স ফিকশনের বইও বিক্রি হচ্ছে এবারের মেলায়। পাঠকের চাহিদার মধ্যে রয়েছে জাফর ইকবাল ও হুমায়ূন আহমেদের সায়েন্স ফিকশন সমগ্র।

তাম্রলিপির প্রকাশক এ কে এম তারিকুল ইসলাম রনি বলেন, ‘সায়েন্স ফিকশন সবাই ভালো লিখতে পারেন না। আর যারা ভালো লেখেন তাদের বইয়ের দিকেই পাঠকের আগ্রহ বেশি। আমাদের স্টলে এসে স্কুল-কলেজেপড়–য়ারা সায়েন্স ফিকশনের বই কিনতে চায়।’

অষ্টম দিনের নতুন বই

বাংলা একাডেমির জনসংযোগ উপবিভাগের তথ্য অনুযায়ী, বইমেলার অষ্টম দিন মেলায় এসেছে ২৬৩টি নতুন বই। এর মধ্যে গল্পগ্রন্থ ৩৪, উপন্যাস ৩৩, প্রবন্ধ ১৯, কবিতা ৮৩, গবেষণা ৩, ছড়া ৭, শিশুসাহিত্য ১৩, জীবনী ১১, মুক্তিযুদ্ধ ৬, নাটক ১, ভ্রমণ ৫, ইতিহাস ৩, রাজনীতি ৩, চিকিৎসা/স্বাস্থ্য ২, কম্পিউটার ৩, রম্য/ধাঁধা ৪, ধর্মীয় ৩, অনুবাদ ১, অভিধান ১, সায়েন্স ফিকশন ২, অন্যান্য ২১।

ছুটির দিনে শিশুপ্রহর

গতকাল শুক্রবার ছুটির দিন মেলার শুরুতেই ছিল শিশুপ্রহর। সকাল ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত শিশুপ্রহরে বাঁধভাঙা আনন্দে মেতে ওঠে শিশুরা। এ সময় শিশু চত্বরের সিসিমপুর মঞ্চে শিশুদের আনন্দের সঙ্গী হয় ইকরি, টুকটুকি, হালুম, শিকু। এদিন শিশুপ্রহরে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার। শিশুপ্রহর ঘুরে শিশুদের সঙ্গে ছবি তোলেন রাষ্ট্রদূত। এ সময় মিলার বলেন, ‘২০১৩ সাল থেকে ইউএসএআইডির সহযোগিতায় সিসিমপুর চলছে। এটি অত্যন্ত জনপ্রিয় একটি অনুষ্ঠান যা নিউ ইয়র্কের কিছু কার্টুন চরিত্রের আদলে সৃষ্টি। বর্তমানে বাংলাদেশে প্রায় ৩০ লাখ শিশুর আনন্দের সঙ্গী সিসিমপুর। এটি শুধু টিভি অনুষ্ঠান নয়, এটি একটি প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষা ব্যবস্থাও। এর মাধ্যমে শিশুরা ভাষা, নৈতিকতা এবং মনন সম্পর্কে জানতে পারে।’

আজ শনিবার বইমেলায় যা থাকবে

আজ শনিবার বইমেলার নবম দিন। মেলা চলবে সকাল ১১টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত। এদিন সকাল ১০টায় একাডেমি প্রাঙ্গণে শিশু-কিশোর সংগীত প্রতিযোগিতা, সাধারণ জ্ঞান ও উপস্থিত বক্তৃতার প্রাথমিক নির্বাচন হবে। ১১টা-১টা পর্যন্ত থাকবে শিশুপ্রহর। বিকেল ৪টায় মেলার মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত হবে লেখক অনুবাদক আবদুল হক : জন্মশতবর্ষ শ্রদ্ধাঞ্জলি শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন সৈয়দ আজিজুল হক। আলোচনায় অংশগ্রহণ করবেন অজয় দাশগুপ্ত, সোহরাব হাসান ও আহমাদ মাযহার। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন সুব্রত বড়–য়া। সন্ধ্যায় রয়েছে কবিকণ্ঠে কবিতাপাঠ, কবিতা-আবৃত্তি ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত