মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

মাঝিকে সম্মান করলো বলিউড

আপডেট : ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৪:৩৪ এএম

সর্দার প্যাটেল বিদ্যালয় থেকে পাস, পুনের ‘ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন ইনস্টিটিউট’ থেকে চলচ্চিত্র পরিচালনায় অনার্স করা কেতন মেহতার ভারতীয় চলচ্চিত্র জগতে বেশ সুনাম আছে। গল্প খুঁজে বেড়ান যে পরিচালক, দশরথ মাঝির গল্পটি শুনেই তিনি অবাক হয়ে গেলেন। জীবনে অনেক গল্প শুনেছেন, কিন্তু এ তো অবিশ্বাস্য। এমন মানুষের জীবন নিয়ে সিনেমা বানানোর সিদ্ধান্ত নিতে তার কয়েক সেকেন্ড মাত্র সময় লাগল। লোকে মাঝিকে পাগল বলত, জানা ছিল তার। কিন্তু কীভাবে এক হাতে পাহাড়ের মাঝে রাস্তা বানিয়ে ফেললেন? দেখতে গেলেন। পাহাড়, সেটির মাঝের রাস্তা নিজের চোখে দেখে উদ্দীপ্ত হয়ে সিনেমার কাজে নামলেন। নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকীকে বলার পর ‘লাঞ্চবক্স’ তারকাও একবাক্যে রাজি। ঠিক হলো গল্প শুরু হবে মাঝির যৌবনে। জীবনের শেষে গিয়ে সমাপ্ত। অনেক ভাষার ছবির অভিনেত্রী রাধিকা আপ্তে হলেন ফাল্গুনী দেবী। তারা চিত্রনাট্য তৈরি করতে গেলোরে গেলেন। তবে ভগিরথ মাঝি ও পরিবারের অন্যরা বেঁকে বসলেন। বললেন, আজতক আমরা তো কম প্রতিশ্রুতি শুনিনি। কম ভিআইপিরা তো আমাদের বাড়িতে আসেননি, কিন্তু এই গরিব পরিবারটিকে রক্ষা করার প্রতিশ্রুতি কেউই রাখেননি। ‘আমরা সিনেমার লোক, তার জীবন সারা দুনিয়ার মানুষের কাছে তুলে ধরব, তাতে মানুষ তার সম্পর্কে জানবে’ বলে রক্ষা পেল শ্যুটিং ইউনিট।

গ্রামের লোক, স্থানীয় সাংবাদিক মহলের সঙ্গে অনেকগুলো সভা, সাক্ষাৎকারের পর মেহতা দিল্লিতে ফিরলেন। পত্রিকাগুলো ঘাঁটলেন সমানে। সবকিছু মিলিয়ে হলো চিত্রনাট্য। তবে স্ত্রীর সঙ্গে স্বামীর জীবন জানতে গিয়েই বিপদে পড়লেন। খুব সামান্যই জানা যায়, অসংখ্য ‘কিন্তু’র জবাব নেই। তাদের ভালোবাসার কোনো তথ্যই তো তেমন নেই। তাহলে এই অসাধ্য সাধনে কীভাবে নামলেন মাঝি? বাধ্য হয়ে কল্পনা করেই এগুতে হলো।

কেন রাজি হলেন? সিদ্দিকী উত্তরটি এভাবেই দিলেন, ‘গল্পটি সুন্দর, আমাদের শুনতে বাধ্য করে। তিনি অসম্ভবকে সম্ভব করেছেন। তার কাজ হাজার হাজার মানুষের উপকার করছে। তিনি তরুণদের জন্য আদর্শ উদাহরণ।’ তবে ছবিটিতে শুটিং করতে গিয়েই তারা বিপদে পড়লেন। বিরাট এক হাতুড়ি নিয়ে যখন পাহাড় ভাঙা শুরু করলেন, লোকে ভিড় করে জিজ্ঞেস করতে লাগল, এ কোন পাগলের আমদানি? পরে সব জেনে নায়ক-নায়িকা দেখতে ভিড় জমালো।

ছবিটি শেষ হওয়ার পর মুক্তি দেবেন, তখন মেহতাকে আদালতে দাঁড়াতে হলো। পরিচালক ধনঞ্জয় কাপুর মামলা করলেন, মাঝির জীবন নিয়ে ছবি বানানোর এখতিয়ার তার নেই। কিন্তু শুনানি শেষে আদালত মেহতার পক্ষেই রায় দিলেন। ‘মাঝি-দি মাউনটেন ম্যান’ নামে ছবিটি ২০১৩ সালে মুক্তি পেল।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত