রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

হজের খরচ বাড়ছে

আপডেট : ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০২:১৮ এএম

এ বছরে হজ পালনে বাড়তি টাকা গুনতে হবে বাংলাদেশিদের। এবার হজ প্যাকেজের দাম বেড়েছে ২০ হাজার ৫৭১ টাকা, যা গত বছরের প্যাকেজের তুলনায় পাঁচ শতাংশের কিছুটা বেশি। সৌদি সরকার বিভিন্ন ধরনের সার্ভিস চার্জ ও ভাড়া বাড়ানোর কারণে বাংলাদেশ সরকার এ ব্যয় বাড়াতে বাধ্য হচ্ছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। যারা তৃতীয়বারের মতো হজে যেতে চান, তাদের এ প্যাকেজের বাইরেও অতিরিক্ত ৪৭ হাজার ২৫০ টাকা পরিশোধ করতে হবে।ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ২০১৯ সালের হজ প্যাকেজে এসব ব্যয় অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। তারা জানান, বাড়তি ব্যয়ের হজ প্যাকেজ অনুমোদনের জন্য আগামীকাল সোমবার অনুষ্ঠেয় মন্ত্রিসভা বৈঠকের এজেন্ডাভুক্ত করে মন্ত্রীদের কাছে পাঠানো হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে তার কার্যালয়ে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে।

চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী ১০ আগস্ট হজ অনুষ্ঠিত হবে। এ বছর বাংলাদেশ থেকে এক লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন হজ পালন করতে পারবেন। তাদের মধ্যে সাত হাজার ১৯৮ জন যাবেন সরকারি ব্যবস্থাপনায়। বাকিরা ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয় অনুমোদিত হজ এজেন্সির মাধ্যমে বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় যাবেন। 

হজ এজেন্সিস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (হাব) মহাসচিব শাহাদাত হোসেন তসলিম দেশ রূপান্তরকে বলেন, ‘মন্ত্রিসভা অনুমোদন করার দুই-একদিনের মধ্যে আমরা বেসরকারি হজ প্যাকেজ ঘোষণা করব। হজ প্যাকেজের দাম যেটুকু বেড়েছে, তা বাড়ানো হয়েছে সৌদি সরকারের জন্য। ওই দেশের সরকার বিভিন্ন সার্ভিস চার্জ ও সেবার দাম বাড়িয়েছে।’

ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের একাধিক কর্মকর্তা জানান, সরকারি ব্যবস্থাপনার হজযাত্রীদের জন্য প্যকেজ ১-এর দাম নির্ধারণ করা হয়েছে চার লাখ ১৮ হাজার ৫০০ টাকা। প্যাকেজ ২-এর মূল্য তিন লাখ ৪৪ হাজার টাকা। বেসরকারি ব্যবস্থাপনার হজযাত্রীদের হজ প্যাকেজের দাম সরকারি ব্যবস্থাপনার হজযাত্রীদের প্যাকেজ ২-এর টাকার কম হতে পারবে না।

গত বছর প্যকেজ ১-এর দাম ছিল তিন লাখ ৯৭ হাজার ৯২৯ টাকা। সেই হিসাবে এবারের প্যাকেজের দাম ২০ হাজার ৫৭১ টাকা বেশি। প্যাকেজ ২-এর দাম নির্ধারণ করা হয়েছে তিন লাখ ৪৪ হাজার টাকা। গত বছর এই প্যাকেজের দাম ছিল তিন লাখ ৩১ হাজার ৩৫৯ টাকা। গত বছরের তুলনায় এ বছর প্যাকেজ ২-এর বাড়তি খরচ ১২ হাজার ৬৪১ টাকা।

উভয় প্যাকেজেই বিমানভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে এক লাখ ২৮ হাজার টাকা, যা গত বছরের তুলনায় ১০ হাজার ১৯১ টাকা কম। গত বছর বিমানের ভাড়া ছিল এক লাখ ৩৮ হাজার ১৯১ টাকা। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির অজুহাত দেখিয়ে হজ প্যাকেজে বিমানভাড়া এক লাখ ৪৪ হাজার টাকা নির্ধারণ করার প্রস্তাব দিয়েছিল। কিন্তু বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় বিমানের প্রস্তাব মানেনি। মোট প্যাকেজের দাম বেড়ে যাওয়ায় বিমানভাড়া গতবারের চেয়ে ১০ হাজার ১৯১ টাকা কম নির্ধারণ করা হয়েছে। যদিও শেষ পর্যন্ত মোট প্যাকেজের দাম গতবারের চেয়ে বেশিই নির্ধারণ করা হয়েছে।

এ বছর মক্কা ও মদিনায় বাড়িভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে এক লাখ ৬৭ হাজার ৯৬২ টাকা। সৌদি আরবে বাড়িভাড়া বৃদ্ধি ও ভাড়ার ওপর কর আরোপ করায় গত বছরের তুলনায় বাড়িভাড়া ১০ হাজার ৩৪৩ টাকা বৃদ্ধি পেয়েছে। মক্কা-মদিনা-মুজদালিফা-মিনা-আরাফাহ যাতায়াতের বাসভাড়া ৪০ হাজার ৮৮২ টাকা। গত বছরের তুলনায় এটি ১৫ হাজার ৩২৬ টাকা বেশি। জমজমের পানির খরচও বেড়েছে এক টাকা ৮৭ পয়সা। গত বছর এই খরচ ছিল ২৫৮ টাকা।

সৌদি হজ মন্ত্রণালয়ের অনুকূলে ৫০ সৌদি রিয়াল এবং জেনারেল কার সিন্ডিকেটের অনুকূলে আরও ১৮ সৌদি রিয়াল সমপরিমাণ এক হাজার ৫৩০ টাকা পরিশোধ করবেন প্রতি যাত্রী। সরকারি ব্যবস্থাপনার জন্য বাংলাদেশ সরকার এ অর্থ দেবে। ট্রেন সার্ভিস যারা গ্রহণ করবেন, তাদের অতিরিক্ত ২৪ হাজার ৯৮১ টাকা পরিশোধ করতে হবে। এ ছাড়া অন্যান্য হজযাত্রীদের ক্ষেত্রে ১৯ হাজার ৩৫ টাকা সার্ভিস চার্জ ও ভাড়া বাড়ানো হয়েছে।

বাংলাদেশি টাকার সঙ্গে সৌদি রিয়ালের বিনিময় হার ২২ টাকা ৫০ পয়সা নির্ধারণ করা হয়েছে। প্রত্যেক হজ এজেন্সি কমপক্ষে ১৫০ এবং সর্বোচ্চ ৩০০ হজযাত্রী পাঠাতে পারবে। একটি ফ্লাইটে তিনজন মোয়াল্লেমের বেশি ও তিনটি এজেন্সির বেশি হজযাত্রী পাঠানো যাবে না। হজযাত্রীদের কোরবানির টাকা ইসলামী ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকের মাধ্যমে পরিশোধ করার জন্য সৌদি সরকার অনুরোধ জানিয়েছে।

কমন স্পেসসহ মক্কা ও মদিনায় হজযাত্রীদের জন্য বাড়ি ভাড়া করতে হবে। প্রত্যেক এজেন্সিকে সৌদি আরবে ব্যাংক হিসাব খুলতে হবে। এই হিসাবের মাধ্যমে বাড়ি বা হোটেল ভাড়া ও খাবার সরবরাহের দাম পরিশোধ করতে হবে। এক শতাংশ অতিরিক্ত বাড়িভাড়া পরিশোধ করতে হবে। হারাম শরিফ থেকে দুই কিলোমিটারের বেশি দূরত্বে বাসস্থানের ব্যবস্থা করলে হজ এজেন্সিকে হজযাত্রীদের আনা-নেওয়ার জন্য পরিবহনের ব্যবস্থা করতে হবে। ভাড়াকৃত বাড়ি বা হোটেলেই হজযাত্রীদের রাখতে হবে।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত