রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

মনোনয়ন না পেলেও হতাশ নন নারী তারকারা

আপডেট : ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১০:০২ পিএম

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ঘিরে বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও দেখা গেছে চাঞ্চল্য। মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের ও প্রগতিশীল শক্তি হিসেবে আওয়ামী লীগের পক্ষে তারকারা মাঠে নামেন, অংশ নেন নানামুখী প্রচারণায়।

রেকর্ডসংখ্যক তারকাকে এবার জাতীয় নির্বাচনে সংসদ সদস্য হিসেবে মনোনয়নপত্র কিনতে দেখা গেছে।

হাতেগোনা কয়েকজন তারকা সরাসরি নির্বাচনে অংশ নেন। তাদের মধ্যে আওয়ামী লীগের হয়ে দু’জন সংসদ সদস্য হিসেবে নির্বাচিতও হন। তারা হলেন নায়ক ফারুক ও সংগীত শিল্পী মমতাজ বেগম।

একাদশ নির্বাচনে বিশাল বিজয় অর্জন করে ক্ষমতায় আসা আওয়ামী লীগের অফিসে তারপরও নারী তারকাদের ভিড় চোখে পড়ে। উদ্দেশ্য সংরক্ষিত আসনে এমপি হওয়ার বাসনা।

প্রায় ২০ জনের মতো নারী তারকা এ সময় নারী সংসদ সদস্য হওয়ার জন্য মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন।

অভিনেত্রী সুবর্ণা মুস্তাফা, চিত্রনায়িকা কবরী, অভিনেত্রী শমী কায়সার, চিত্রনায়িকা পূর্ণিমা, মৌসুমী, সুজাতা, পপি, অরুণা বিশ্বাস, অপু বিশ্বাস, মুক্তি, আনোয়ারা, শাহনূর, ফাল্গুনী হামিদ, রোকেয়া প্রাচী, তারিন জাহান, জ্যোতিকা জ্যোতি, চয়নিকা চৌধুরী, সুইটিসহ অনেকেই এ সময় মনোনয়নপত্র সংগ্রহের জন্য দৌড়ঝাঁপ করেন।

তবে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে মোট ঘোষিত ৪৩ নারী সংসদ সদস্যের মধ্যে মনোনয়ন পেয়েছেন মাত্র ১ জন তারকা। তিনি সুবর্ণা মুস্তাফা।

সুবর্ণা মুস্তাফাকে মনোনয়ন দেওয়ার ব্যাপারটিকে তারকারাও সাধুবাদ জানিয়েছেন। দেশ রূপান্তরকে অনেক তারকাই বলেছেন, তাকে মনোনয়ন দেওয়ায় আমাদের কোনো দুঃখ নেই। তিনি সবার ঊর্ধ্বে। সর্বজন স্বীকৃত একজন গুণী মানুষকেই প্রধানমন্ত্রী মনোনীত করেছেন।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের হয়ে সরাসরি মনোনয়ন চেয়েছিলেন কবরী, রোকেয়া প্রাচী, জ্যোতিকা জ্যোতিসহ আরও অনেকে।

সরাসরি মনোনয়ন না পেয়ে তারা সংরক্ষিত মহিলা আসনেও মনোনয়নপত্র জমা দেন। মনোনয়ন না পাওয়ায় কোনো মনোবেদনা কাজ করছে কি না জানতে চাইলে অনেকে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি। তবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন নায়িকা দেশ রূপান্তরকে বলেছেন, ‘প্রধানমন্ত্রী যাকে যোগ্য মনে করেছেন তাকেই মনোনীত করেছেন। দলের সঙ্গে ছিলাম। ভবিষ্যতেও থাকব। এতে মন খারাপের কিছু নেই।’

অভিনেত্রী জ্যোতিকা জ্যোতি বলেন, ‘সংরক্ষিত মহিলা আসনে মনোনয়ন না পাওয়ায় কোনো দুঃখবোধ নেই। বরং একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সংরক্ষিত নারী আসনে মনোনীত সব সাংসদকে অভিনন্দন জানাই। আশা করি জননেত্রী শেখ হাসিনার অগ্রযাত্রার যোগ্য সহযাত্রী হিসেবে তারা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘এবার যাদের মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে তারা সবাই যোগ্য। এর মাধ্যমে আবারও প্রমাণিত হলো আমাদের প্রিয় প্রধানমন্ত্রী কতটা দক্ষ, বিচক্ষণ এবং দূরদর্শী রাজনীতিবিদ।’

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত