রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

নিউজিল্যান্ড সফর হারে শুরু

আপডেট : ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১২:৩৪ এএম

বিপিএলের বর্ণিল আয়োজনে প্রায় এক মাসের বেশি সময় বুঁদ হয়ে থাকার পর এবার চোখ ফেরাতে হচ্ছে আন্তর্জাতিক পরিম-লে। ২০ ওভার ঘরানার ক্রিকেট থেকে ৫০ ওভারের ক্রিকেটে অভ্যস্ত হওয়ার সময়টা বড্ড কম। এই কম সময়েই গতকাল শুরু হয়ে গেল বাংলাদেশের নিউজিল্যান্ড সফর। গতকাল রবিবার সফরে একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচে নামে টাইগাররা। শুরুটা অবশ্য হার দিয়ে। নিউজিল্যান্ড একাদশের কাছে ‘খর্বশক্তির’ বাংলাদেশ হেরেছে ২ উইকেটে। খর্বশক্তির বলার কারণ এখনো যে দলের অধিনায়ক মাশরাফী বিন মোর্ত্তজাসহ বেশ কজন সদস্য পৌঁছেননি নিউজিল্যান্ডে।

তাদের ছাড়াই খেলতে নেমে বাংলাদেশের হারটা অনভিজ্ঞ এক দলের বিপক্ষে। যে দলের কেউই নেই আসন্ন ওয়ানডে সিরিজের কিউই স্কোয়াডে। মাশরাফী ও সহঅধিনায়ক তামিম ইকবালের অনুপস্থিতিতে অধিনায়ক হিসেবে টস করতে নেমে লিঙ্কনের বার্ট সাকলিফ ওভাল স্টেডিয়ামে হারের স্বাদ পান মেহেদী হাসান মিরাজ। স্বাগতিক দলের ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণে নেমে মাত্র ৩১ রানে ৪ উইকেট হারানো সফরকারীরা শেষ পর্যন্ত ৪৬.১ ওভার খেলে সংগ্রহ করে ২৪৭ রান। ১১ বল হাতে রেখে স্বাগতিক দল লক্ষ্যটা ছুঁয়ে ফেলে ৮ উইকেট হারিয়ে।বিপিএলের ফাইনালের কারণে তামিম, রুবেল হোসেন এবং মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন দেশ ছেড়েছেন শনিবার। দুদিন বিশ্রাম নিয়ে তাদের সঙ্গেই দেশ ছাড়েন অধিনায়ক মাশরাফী। সুবাদে এই চারজনকে ছাড়াই কালকের ম্যাচের একাদশ সাজাতে হয় কোচ স্টিভ রোডসকে। ওয়ানডে স্কোয়াডের সঙ্গেই নিউজিল্যান্ড যাওয়া টেস্ট স্কোয়াডের দুই সদস্য মুমিনুল হক ও সাদমান ইসলামের মধ্য থেকে মুমিনুলকে একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচের জন্য বেছে নেওয়া হয়। যদিও টেস্ট স্পেশালিস্ট নিজেকে মেলে ধরতে পারেননি। লিটন দাসের সঙ্গে ওপেন করতে নেমে তৃতীয় ওভারেই বিদায় নিতে হয় ৬ রান করা এ বাঁহাতিকে। পরের ওভারেই লিটন ফিরেছেন ৩ রান করে। আর সপ্তম ওভারে ওয়ান ডাউনে নেমে ১ রান করে সাজঘরে ফিরেছেন সৌম্য সরকার। পরের ওভারেই ব্যর্থ হয়ে ফেরা মোহাম্মদ মিঠুনের নামের পাশেও ১।

মাত্র ৩১ রানে টপ অর্ডারের এমন ভেঙে পড়ায় ইনিংস মেরামতের দায়িত্ব এসে পড়ে দুই সিনিয়র মুশফিকুর রহিম ও মাহমুদউল্লাহর ঘাড়ে। ১০৮ রানের জুটি গড়ে শুরুর আঘাত ভালোই সামলেছেন এ দুজন। যদিও ৬১ বলে ৬২ রানের ইনিংস খেলে মুশফিকের সেই সময় ফেরায় দলের সংগ্রহ বড় হয়নি। তার ৮ বাউন্ডারিতে গড়া ইনিংসটা আরেকটু এগিয়ে নিলে হয়তো ম্যাচের ফল অন্যরকমও হতে পারত। মুশফিকের বিদায়ের পর মাহমুদউল্লাহও বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি উইকেটে। ষষ্ঠ শিকারে পরিণত হওয়ার আগে অবশ্য ৮৮ বলে ১০ চারে ৭২ রানের সর্বোচ্চ ইনিংসটি খেলে গেছেন তিনি। এই দুই সিনিয়রের চলে যাওয়ার পর বাংলাদেশের সংগ্রহটা আড়াইশর কাছাকাছি পৌঁছেছে ‘আলোচিত’ সাব্বির রহমানের ৪১ বলে ৪০ রানের কল্যাণে। অপরাজিত থেকে ইনিংস শেষ করতে না পারার দায়টা তার ঘাড়ে বর্তাবে। তবে পাহাড়সম চাপ কাঁধে নিয়ে ব্যাট করতে নামা সাব্বিরের এই ইনিংস অন্তত সামনের ম্যাচগুলোতে তাকে দেবে মহামূল্য আত্মবিশ^াস। শেষদিকে নাঈম হাসানের অপরাজিত ১৭ ও মোস্তাফিজুর রহমানের ১২ লড়াইয়ের পুঁজি দেয় বাংলাদেশকে। নিউজিল্যান্ড একাদশের হয়ে ইয়েন ম্যাকপিক ৪ উইকেট নিয়েছেন ৩৮ রান খরচায়। এছাড়া অ্যান্ড্রু হ্যাজেলডিন ও রাচিন রবীন্দ্র ২টি করে উইকেট পান।

জবাব দিতে নেমে দুই ওপেনার দারুণ শুরু এনে দেন স্বাগতিক দলকে। অধিনায়ক জিত র‌্যাভালকে নিয়ে অ্যান্ড্রু ফ্লেচার গড়েন ১১৪ রানের উদ্বোধনী জুটি। ২২তম ওভারে নাঈম হাসানের শিকারে পরিণত হওয়ার আগে র‌্যাভাল খেলেন ৬৩ বলে ৫২ রানের ইনিংস। এরপর অবশ্য নিয়মিত বিরতিতেই স্বাগতিক দলের উইকেট তুলে নেন বাংলাদেশের বোলাররা। দারুণ এক কাটারে ফ্লেচারকে শতক বঞ্চিত করেন মোস্তাফিজুর। ফেরার আগে অবশ্য ১১২ বলে ৯ বাউন্ডারিতে ৯২ রানের ইনিংস খেলে দলের জয়ে বড় অবদানটা রেখেছেন ফ্লেচার। এছাড়া ফিন অ্যালেন ৩০ রান করেন। মোস্তাফিজ, মিরাজ ও মাহমুদউল্লাহ ২টি করে উইকেট নেন। ১টি করে উইকেট নাঈম ও সৌম্য সরকারের। যদিও তাদের এই চেষ্টা সফল হয়নি নামের পাশে সংগ্রহটা আড়াইশর নিচে হওয়ার কারণেই।

তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথমটি নেপিয়ারে ১৩ ফেব্রুয়ারি। সেই ম্যাচে সফরকারীরা অবশ্য মাঠে নামবে ভিন্নরূপে। যে দলের লাগামটা থাকবে ম্যাজিক্যাল মাশরাফীর হাতে।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত