বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

ওয়েব সিরিজকে নাটক বানিয়ে ফেলছে অনেকে

আপডেট : ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০১:৫৫ এএম

এ সময়ের ছোট পর্দার অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেতা ইরফান সাজ্জাদ। অস্ট্রেলিয়া থেকে একটি ওয়েব সিরিজের শ্যুটিং শেষ করে দেশে ফিরেছেন সম্প্রতি। বর্তমানে ব্যস্ত আছেন ভালোবাসা দিবসের নাটকের কাজ নিয়ে। সমসাময়িক বিভিন্ন বিষয়ে তার সঙ্গে কথা বলেছেন মাসিদ রণ লাইট-ক্যামেরা-অ্যাকশন...

 

আজ আমি শ্যুটিং করছি মানিকগঞ্জে। ‘রোমিও মাস্ট ডাই’ শিরোনামের একটি খ-নাটকের শ্যুটিং হচ্ছে এখানে। রুবেল হাসান পরিচালিত এই নাটকটি ভালোবাসা দিবসে যেকোনো একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলে প্রচার হবে। এতে আমার বিপরীতে আছেন নুসরাত ইমরোজ তিশা। নাটকটির গল্পটি খুবই সাদামাটা। তবে উপস্থাপনে বৈচিত্র্য থাকবে বলে আশা করছি। হিন্দু-মুসলিম দুই ধর্মের দুজনের প্রেমের সম্পর্ক নিয়ে গল্পটি এগিয়েছে।

ভালোবাসা দিবসে অল্প কাজ...

আমি ঈদে প্রচুর কাজ করি। কারণ তখন নাটকগুলোর গল্পে বৈচিত্র্য থাকে। আর ভালোবাসা দিবসে তো প্রেমের নাটকই হয়। ফলে গল্পে খুব বেশি ভিন্নতা পাই না। এ জন্য কাজও কম করি। এবার ভ্যালেন্টাইন ডেতে আমার অভিনীত তিন-চারটি নাটক প্রচার হবে। তার মধ্যে একটি তো ‘রোমিও মাস্ট ডাই’। বাংলাভিশনে প্রচার হবে মনসুর আলম নির্ঝরের ‘একটি জরুরি কথা ছিল’, সজীব মাহমুদের ‘বকুল’ ও জয় আহমেদের ‘মেঘপরী’। এই তিনটি নাটকে আমার বিপরীতে আছেন সাবিলা নূর, সাফা কবির ও তাসনুভা তিশা। এর বাইরে কয়েকটি ভালো ব্র্যান্ডের ব্যানারে তিনটি স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবিতে অভিনয় করেছি। সেগুলোও ভালোবাসা দিবসে ইউটিউবে প্রকাশ হবে। এই কাজগুলো নিয়েও আমি বেশ আশাবাদী।

অস্ট্রেলিয়ায় ওয়েব সিরিজ...

সম্প্রতি অস্ট্রেলিয়ায় একটি ওয়েব সিরিজের শ্যুটিং শেষ করে দেশে ফিরেছি। এর নাম ‘আঘাত’। নির্দেশনা দিয়েছেন চলচ্চিত্র নির্মাতা জাহেদ রেজওয়ান। এই কাজটি নিয়ে বেশ আশাবাদী। কারণ এই ওয়েব সিরিজটি ওয়েব সিরিজের মতোই হয়েছে। এটি বলার কারণ আমাদের এখানে এখন বেশির ভাগ ওয়েব সিরিজকে নাটক বানিয়ে ফেলা হচ্ছে। কিন্তু ওয়েব সিরিজ আর নাটক তো এক জিনিস না। এটা সিনেমার অন্য একটি ভার্সন। টানটান উত্তেজনা থাকতে হয় গল্পে। আমার কাজটি তেমনি হয়েছে। গল্পটি খুবই ডার্ক। নির্মাণশৈলীও ছিল সিনেমার মতো। এই ওয়েব সিরিজের সিক্যুয়াল নির্মিত হবে। সেখানেও আমি অভিনয় করব।

এখানে আরও ছিলেন চলচ্চিত্রের দুই নায়িকা বিপাশা কবির ও তানিয়া দিপালী। এই প্রথম আমি অস্ট্রেলিয়ায় গেলাম, তাও শ্যুটিংয়ে। টানা এক সপ্তাহ সিডনিতে কাজ করেছি। এরপর কাজিনদের বাড়িতে বেড়িয়েছি। অনেক ভালো সময় কেটেছে সেখানে।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত