সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

বরিশালে আরও ফ্লাইট চান ডিসি

আপডেট : ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১০:২৮ পিএম

দক্ষিণ বাংলার একমাত্র বিমানবন্দর বরিশালে সপ্তাহে প্রতিদিনই বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট চান বরিশাল জেলা প্রশাসক এস এম অজিয়র রহমান। তাতে বিভাগের ছয়টি জেলার মানুষসহ সাগরকন্যা কুয়াকাটায় ঘুরতে যাওয়া পর্যটকরা অল্প সময়ে ভ্রমণ করতে পারবেন।

গত ৩০ জানুয়ারি বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মহিবুল হক এবং বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) এম মোসদ্দিক আহমেদকে চিঠি লিখে ঢাকা-বরিশাল রুটে বিমানের ফ্লাইট বাড়ানোর আবেদন করেছেন তিনি।

বরিশাল বিমানবন্দরকে বিভাগের প্রবেশদ্বার হিসেবে উল্লেখ করে চিঠিতে তিনি বলেছেন, এ বিভাগের ছয়টি জেলা ছাড়াও আরও কয়েকটি জেলার ভিআইপি, ব্যবসায়ী ও সাধারণ যাত্রীরা এ বিমানবন্দর ব্যবহার করে থাকেন। বর্তমান সরকারের নেওয়া পায়রা বন্দর ঘিরে ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের ফলে এ বিমানবন্দরে যাত্রীসংখ্যা বেড়েছে। এ ছাড়া সাগরকন্যা কুয়াকাটাকে ঘিরে পর্যটকসংখ্যা বাড়ায় বিমানের যাত্রী দিন দিন বাড়ছে।  তিনি বলেন, বরিশালে বিমান ছাড়া অন্য কোনো বাহনে যাতায়াত বেশ সময়সাপেক্ষ হওয়ায় অল্প সময়ে যাতায়াতের জন্য বিমানের যাত্রী দ্রুত হারে বাড়ছে। চাহিদা থাকা সত্ত্বেও ফ্লাইট কম হওয়ায় যাত্রীরা বিমান ব্যবহার করতে পারছেন না উল্লেখ করে ঢাকা-বরিশাল রুটে সপ্তাহে সাত দিনই ফ্লাইট পরিচালনা করতে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সকে অনুরোধ করেছেন তিনি।  এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের মহাব্যবস্থাপক (জিএম) শাকিল মেরাজ দেশ রূপান্তরকে বলেন, এখন সপ্তাহে তিন দিন (বৃহস্পতি, শুক্র ও রবিবার) ঢাকা-বরিশাল রুটে একটি করে ফ্লাইট পরিচালনা করছে বিমান। সপ্তাহে সাত দিনই ফ্লাইট পরিচালনা করার সক্ষমতা রয়েছে বিমানের। এ রুটে যাত্রীসংখ্যা বাড়লে বিমান প্রতিদিনই ফ্লাইট পরিচালনা করবে।

বেসরকারি এয়ারলাইন্স ইউ-এস বাংলা ঢাকা-বরিশাল রুটে সপ্তাহে তিন দিন (শনি, মঙ্গল, বৃহস্পতিবার) ফ্লাইট পরিচালনা করছে উল্লেখ করে প্রতিষ্ঠানটির জিএম কামরুল ইসলাম দেশ রূপান্তরকে বলেন, আমাদের নতুন একটি এয়ারক্রাফট খুব শিগগিরই দেশে এসে পৌঁছবে। তখন আমরা এ রুটে ফ্লাইট বাড়ানোর বিষয়ে চিন্তা-ভাবনা করব।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত