রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

বসন্ত বাতাস বিপণিবিতানে

আপডেট : ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১:০৮ পিএম

শীতের আমেজ কাটছে, প্রকৃতি জানান দিচ্ছে বসন্তের। ফাগুনের শুরুতে গুটি গুটি পায়ে এগিয়ে আসছে ভালোবাসা দিবস। ফাল্গুন আর ভালোবাসা দিবসের হাওয়া লেগেছে ঢাকার বিপণিবিতানগুলোতেও। প্রিয়জনদের উপহার দেওয়ার জন্য পোশাকসহ নানা পণ্য বিক্রি বাড়ছে। গতকাল সোমবার রাজধানীর কয়েকটি বিপণিবিতান ঘুরে দেখা গেছে, ফাল্গুন আর ভালোবাসা দিবসের আগে দোকানগুলো সেজেছে অন্যরূপে। সম্পর্কের ধরন বুঝে প্রিয়জনের জন্য নানা উপহারসামগ্রীর পসরা নিয়ে বসেছেন বিক্রেতারা। ফাল্গুন আর ভালোবাসা দিবসে নিজেকে সাজাতে প্রিয়জনকে উপহার দিতে রাজধানীর শপিংমলগুলোতে ভিড় করছেন বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার ক্রেতারা।

সরেজমিন রাজধানী গাউছিয়া, ইস্টার্ন প্লাজা, ইস্টার্ন মল্লিকা, বসুন্ধরাসহ বেশ কয়েকটি শপিংমল ঘুরে দেখা যায়, ফাল্গুনের রং আর ভালোবাসার উপহারে সাজানো সব বিপণিবিতানগুলো। প্লাস্টিকের লাল গোলাপের বক্স, মগ, চাবির রিং, বই, কার্ড, রঙিন মোম, গিফট বক্স, কাপল টি-শার্টসহ হরেকরকম উপহারসামগ্রী বিক্রি করতে ব্যস্ত দোকানিরা। এছাড়া শিশুদের জন্য চকলেট, গল্পের বই, রং-বেরঙের পোশাক তো রয়েছেই।

রাজধানীর নূরজাহান মার্কেটে একপ্রকার ধুম লেগেছে ফাল্গুনী শাড়ি কেনার। কেউ কিনছেন কাঁচা হলুদ রঙের এক পাড়ে সুতি শাড়ি, কেউ আবার কিনছেন হাফ সিল্ক, কেউ আবার শাড়ির সঙ্গে ব্লাউজ ম্যাচিং করতে ব্যস্ত।

কথা হলো ইডেন কলেজের সুলতানা শিল্পীর সঙ্গে। বললেন, ফাল্গুনে কলেজে বড় অনুষ্ঠান। বান্ধবীদের সঙ্গে ম্যাচিং করে শাড়ি কিনছি। তবে এবার গাঢ় নয়, গেরুয়া হলুদ রঙের শাড়ি কিনছি সবাই।

রিফাত শাড়ি হাউজের বিক্রেতা ইকবাল হোসেন বলেন, দুদিন ধরে শাড়ি বিক্রি বেড়েছে। লাল আর হলুদ শাড়ি বেশি বিক্রি হচ্ছে। আমাদের কাছে ৮০০ থেকে শুরু করে ২০ হাজার টাকা দামের শাড়ি রয়েছে। এর মধ্যে সুতি শাড়ি আর সুতি জামদানি বেশি বিক্রি হচ্ছে। নিউমার্কেটের গিফট অ্যান্ড পার্টি শপে হার্ডশিপ ১২০ থেকে ৭০০ টাকা, হার্ডশিপের টেডিবেয়ার ২০০ থেকে ৩০০০ টাকা, গিফট বক্স ৫০ থেকে ২০০ টাকা, গিফট ব্যাগ ৫০ থেকে ২৫০ টাকা, ঘড়ি ৩৮০ থেকে ১০০০ টাকা, লাইটার ৩৫০ থেকে ৮৫০ টাকা, বিভিন্ন উৎসবের নাম লেখা শোপিস ৩৮০ থেকে ৫০০ টাকায় পাওয়া যাচ্ছে। এছাড়াও এখানে পাওয়া যায় জুয়েলারি আইটেম।

ইস্টার্ন মল্লিকাতেও বিক্রি হচ্ছে পায়েল, কাপল রিং, কাপল টি-শার্ট। একজোড়া কাপল টি-শার্ট কিনতে গুনতে হচ্ছে ৩৫০ থেকে ৭০০ টাকা পর্যন্ত। কাপল রিং বিক্রি হচ্ছে ১৫০ থেকে ২৫০ টাকা। এছাড়াও বিভিন্ন গিফট বক্স ২০০ থেকে ৩০০০ টাকার মধ্যে পাওয়া যাচ্ছে। রাজধানীর বসুন্ধরা সিটিতে পাওয়া যাচ্ছে বিভিন্ন রং-বেরঙের কার্ড, তাজমহল, লাভ ক্যান্ডেল, অর্নামেন্টস, মগ, টেডিবিয়ার। সেখানকার পোশাক বিক্রেতা শফিউদ্দিন জানান, বিশেষ দিনের উপহার কেনার ক্ষেত্রে ক্রেতা লাল রংকে বেশি প্রাধান্য দেন। ক্রেতার কথা মাথায় রেখে আমরা লাল রঙের জিনিস বেশি রেখেছি।

ঢাকা শহরে বড় বড় শপিংমল থেকে শুরু করে রাস্তার অলিগলিতে গড়ে ওঠা গিফটশপগুলোতে ভিড় বেশি লক্ষ করা গেছে। এগুলোতে উপহারসামগ্রীর দাম ও ধরনে রয়েছে বৈচিত্র্য। কার্ড গ্যালারিতে পাওয়া যায় জোড়া ডল ৮০০ থেকে ২০০০ টাকা, উৎসবের নাম লেখা মগ ৪৫০ থেকে ৬৫০ টাকা, স্টোন বসানো লাভ লেখা ফ্রেম ১৩০০ টাকা, চাবির রিং ১৫০ থেকে ২৫০ টাকায় মিলছে। এসব গিফটশপ ছাড়াও ১ টু ৯৯ এবং ১ টু ১০০০ গিফটশপ থেকেও উপহার কিনছেন অনেকেই।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত