রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

বিশাল রোড শো দিয়ে প্রিয়াঙ্কার শুরু

আপডেট : ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১:২৬ পিএম

লক্ষ্ণৌতে বিশাল রোডশোর মাধ্যমে রাজনীতির মাঠে নামলেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। রাজনীতিতে আমূল পরিবর্তনের ডাক দিয়ে তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে উত্তর প্রদেশে রাজনীতি শুরু করলেন বলে জানিয়েছে এনডিটিভি।

হালকা রঙের কুর্তা আর চুরিদার পরিহিত প্রিয়াঙ্কা সোমবার কংগ্রেসের সভাপতি রাহুল গান্ধীর সঙ্গে ওই রোডশোতে অংশগ্রহণ করেন।

রোডশোতে রাহুল গান্ধী বলেন, ‘প্রিয়াঙ্কা ও সিন্ধিয়াজি লোকসভা নির্বাচনে কাজ করবে এবং তারা সংসদ নির্বাচনের জন্য তৈরি হবেন। উত্তর প্রদেশে কংগ্রেস সরকার গঠন না করা পর্যন্ত আমরা থামবো না।’ এ সময় কংগ্রেসের নতুন সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াঙ্কা গান্ধীকে জনতার উদ্দেশে কর জোর করে থাকতে দেখা যায়। কংগ্রেস আশা করছে উত্তর প্রদেশে প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর প্রবেশের মধ্য দিয়ে ভারতে নতুন করে কংগ্রেসের উত্থান হবে।

রবিবার এক অডিওবার্তায় প্রিয়াঙ্কা বলেন, ‘আমি আশা করি সবাইকে সঙ্গে নিয়ে নতুন রাজনীতির সূচনা করতে পারব। এমন এক রাজনীতি যেখানে আপনারা সকলেই হবেন এর অংশীদার।’

গত নির্বাচন উত্তর প্রদেশের ৮০টি আসনের মধ্যে ৭৩টি পায় ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি)। প্রিয়াঙ্কা গান্ধী দলের হয়ে পূর্ব উত্তর প্রদেশের সংগঠনের কাজ দেখভাল করবেন। তার সঙ্গে নতুন দায়িত্ব পেয়েছেন মধ্যপ্রদেশের কংগ্রেস নেতা জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া। তিনি পশ্চিম উত্তর প্রদেশে কংগ্রেসকে শক্ত ভিতের ওপর দাঁড় করানোর কাজ করবেন।

লক্ষ্ণৌ বিমানবন্দর থেকে রাজ্যে নিজেদের পার্টি অফিসে যেতে বারো কিলোমিটার রাস্তায়  রোডশোর আয়োজন করে কংগ্রেস। এ সময় রোডশোটি এমন কিছু এলাকা অতিক্রম করে যা বিজেপির শক্তিশালী ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত। এবারই প্রথম ৪৭ বছর বয়সী প্রিয়াঙ্কা কোনো রাজনৈতিক রোডশোতে অংশ নিলেন।

প্রিয়াঙ্কা-রাহুলের কর্মসূচিকে প্রত্যাখ্যানের আহ্বান জানিয়েছে ক্ষমতাসীন বিজেপি। প্রিয়াঙ্কার স্বামী রবার্ট ভাদ্রের দুর্নীতির ইস্যু তুলে কংগ্রেস নেতাদের আক্রমণ করছেন ক্ষমতাসীনরা।

এ ছাড়া বিজেপির সংসদ সদস্য হরিশ দ্বিবেদী মন্তব্য করেছেন, জনগণের নয় কেবল ভোটের রাজনীতি করছেন প্রিয়াঙ্কা। তার দাবি, বিজেপির জন্য প্রিয়াঙ্কা গান্ধী কোনো ফ্যাক্টর নয়। রাহুল গান্ধী যদি ব্যর্থ হন, প্রিয়াঙ্কাও ব্যর্থ হবে বলেও মন্তব্য তার।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত