শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

‘জামিনযোগ্য মামলায়ও জামিন হচ্ছে না খালেদার’

আপডেট : ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১২:৫৭ পিএম

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার অসুস্থতা আরও বেড়েছে জানিয়ে দলটির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, জামিনযোগ্য মামলায়ও তাকে জামিন দেওয়া হচ্ছে না।

মঙ্গলবার সকালে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি একথা বলেন।

রিজভী বলেন, চেয়ারপারসনের সুচিকিৎসার কোনো ব্যবস্থা করা হয়নি। ব্যক্তিগত বিশেষজ্ঞ ডাক্তারদের পরামর্শ নেওয়ারও কোনো সুযোগ দেওয়া হচ্ছে না। না দেওয়া হচ্ছে মুক্তি, না সুচিকিৎসা। আইনত জামিনযোগ্য মামলাতেও জামিন দেওয়া হচ্ছে না।

তিনি বলেন, “শুধু নির্বাচন থেকে দূরে রাখার জন্যই শেখ হাসিনা প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বীকে বাইরে থাকতে দেননি। কারণ খালেদা জিয়া অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের প্রশ্নে আপসহীন থাকতেন। ভোট ডাকাতির বিরুদ্ধে তার প্রবল অবস্থান থাকতো।”

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি মুখপাত্র বলেন, “ভুয়া ভোটের সরকারের অবৈধ শাসনের শুরুতেই দেশব্যাপী চরম অরাজকতা বিরাজ করছে। কোথাও যেন কোনো কিছুই নিয়ন্ত্রণে নেই। আইনশৃঙ্খলা ভেঙে পড়েছে। গুম-খুন-বিচারবহির্ভূত হত্যার সঙ্গে সামাজিক অনাচার মহামারি আকার ধারণ করেছে।”

তিনি আরও বলেন, “গণপরিবহন ও যোগাযোগ ব্যবস্থায় অব্যবস্থাপনার কারণে প্রতিদিনই সড়কে তাজা প্রাণ ঝরছে। আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরসহ দলটির নেতাদের বক্তব্যে অন্যদের প্রতি পরামর্শের ফুলঝুরি থাকলেও নিজেদের ব্যর্থতার কথা বেমালুম ভুলে যাচ্ছেন।”

বিএনপি কিয়ামত পর্যন্ত অভিযোগ বা নালিশ করতেই থাকবে-ওবায়দুল কাদেরের এমন বক্তব্যের জবাবে রিজভী বলেন, “বিএনপির নালিশ মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার আদায়ের পক্ষের নালিশ। আওয়ামী সরকারের অবৈধ সত্তার বিরুদ্ধে নালিশ। এই নালিশ শুধু ন্যায়সংগত নয়, এটি হচ্ছে সময়ের দাবি।”

তিনি বলেন, “এই নালিশ মিড-নাইট সরকারের অবৈধ সকল কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে সতর্ক সাইরেন। অন্যায়ের বিরুদ্ধে এই নালিশগুলোই প্রতিবাদের আকারে রাজপথে ঢেউ তুলবে।”

এসময় দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াসহ সুনির্দিষ্ট করে তৃতীয় দফা বেশ কয়েকজন কেন্দ্রীয় নেতার মুক্তি দাবি করেন বিএনপির এই মুখপাত্র।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত