মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

ছেলেকে আনতে গিয়ে প্রাণ গেল বাবা-মায়ের

আপডেট : ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০২:৫৩ এএম

বিদেশফেরত ছেলেকে আনতে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে কুমিল্লা থেকে চট্টগ্রাম শহরে যাচ্ছিলেন আবদুর রহমান (৬৫)। চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলায় পৌঁছার পর তাদের বহনকারী মাইক্রোবাসটি এক লরিকে ধাক্কা দিয়ে এর সঙ্গে আটকে যায়। এ অবস্থায় দ্রুতগামী লরিটি মাইক্রোকে কিছু দূর টেনে নিয়ে যায়। একপর্যায়ে লরি থেকে আলাদা হয়ে আগুন ধরে যায় মাইক্রোতে। এতে দগ্ধ হয়ে আবদুর রহমান, তার স্ত্রী বিবি কুলসুম (৫৫) ও চালক রুহুল আমিন রুবেল মারা যান। গুরুতর আহত হয়েছেন নিহতের দুই ছেলে ও দুই নাতি। গতকাল মঙ্গল ও গত সোমবার সড়ক দুর্ঘটনায় চার জেলায় আরও সাতজন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

ঢাকা : রাজধানীর শ্যামপুর থানাধীন পোস্তগোলা ব্রিজে ছালছাবিল পরিবহনের একটি বাস ও সিএনজিচালিত অটোরিকশার সংঘর্ষে বাবা-ছেলেসহ তিনজন নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে ব্রিজের ওপর এ দুর্ঘটনা ঘটে। শ্যামপুর থানার ওসি মিজানুর রহমান জানান, নিহত তিনজনই অটোরিকশার যাত্রী। তারা হলেন বাচ্চু মিয়া (৬০) ও তার ছেলে জুবায়ের (২৬) এবং চালক সৈয়দ আহমেদ (২৮)। নিহত দুই যাত্রী দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ ইকোরিয়ার মুসলিমনগর ও চালক কদমতলীর মা প্লাজা এলাকার বাসিন্দা। ওসি আরও জানান, বাস ও অটোরিকশা জব্দ করা হয়েছে। দুর্ঘটনার পর কিছুক্ষণ সেতুর ওপর যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকায় যানজটের সৃষ্টি হয়। মরদেহ ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে খিলগাঁও কমিউনিটি সেন্টারের সামনে মোটরসাইকেলের ধাক্কায় আবদুর রাজ্জাক (৬০) নামে এক মাছ বিক্রেতা নিহত হয়েছেন। তিনি শরীয়তপুর জেলার ডামুড্যা উপজেলার চড়দানুকাঠি গ্রামের বাসিন্দা। তিনি খিলগাঁও সি ব্লকে পরিবার নিয়ে ভাড়া থাকতেন। নিহতের ভাগনি শাহনাজ পারভীন জানান, বিকেল ৫টার দিকে রাস্তা পার হওয়ার সময় একটি মোটরসাইকেল তাকে ধাক্কা দেয়। এতে গুরুতর আহতাবস্থায় রাজ্জাককে ঢামেকে নেওয়া হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন বলে জানান হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের সহকারী ইনচার্জ (এএসআই) আবদুল খান।

চট্টগ্রাম : মঙ্গলবার সকাল ৭টার দিকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের মিরসরাইয়ের নিজামপুর কলেজ আগুনের ঘটনায় তিনজন নিহত ও চারজন আহত হয়েছেন। আহতরা হলেন আবদুল মালেক রনি (১২), রাসেল (৯), আবুল কাশেম (৪১) ও আবুল হাসান (৩৭)। দগ্ধ অবস্থায় রনি ও রাসেলকে প্রথমে মিরসরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। সেখানে শারীরিক অবস্থার আরও অবনতি হলে প্রথমে কুমিল্লা ও পরে ঢাকায় পাঠানো হয়। চালক বাদে হতাহত সবাই একই পরিবারের সদস্য। তাদের বাড়ি কুমিল্লা জেলার মনোহরগঞ্জ থানার হাসনাবাদ ইউনিয়নের কমলপুর গ্রামে। চালক রুবেলের বাড়ি নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলার বানসা এলাকার কারিগরবাড়ী।

নিহত আবদুর রহমানের ছেলে মো. রুবেল বলেন, ‘বড় ভাই আবদুল মমিন সোমবার দুবাই থেকে দেশে আসেন। রাতে তিনি চট্টগ্রাম শহরে আমার বাসায় ছিলেন। তাকে আনতে মাইক্রোযোগে চট্টগ্রাম যাচ্ছিলেন মা-বাবা, দুই ভাই ও দুই ভাতিজা।’ তিনি আরও বলেন, ‘দুই ভাতিজা স্থানীয় একটি নূরানী মাদ্রাসার ছাত্র। তারা বাঁচবে কি না জানি না।’ জোরারগঞ্জ পুলিশ ফাঁড়িতে বসে কথা বলার সময় রুবেলের পাশেই ছিলেন প্রবাসী আবদুল মমিন। তিনি মোবাইল ফোনে সন্তানদের খবর নিচ্ছিলেন ও কাঁদছিলেন।

মিরসরাই ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের কর্মকর্তা রবিউল আজম ও জোরারগঞ্জ হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ সোয়েল সরকার জানান, হাদিফকিরহাট এলাকায় একটি দ্রুতগামী লরির পেছনে ধাক্কা দিয়ে একটি মাইক্রোবাস আটকে যায়। এ অবস্থায় নিজামপুর কলেজ পর্যন্ত টেনে নেওয়ার পর মাইক্রোটি লরি থেকে ছুটে থেমে যায়। পর মুহূর্তেই মাইক্রোটিতে আগুন লাগে। দুই কর্মকর্তা বলেন, ধারণা করা হচ্ছে, মাইক্রোবাসের সঙ্গে সড়কের ঘর্ষণের ফলে সৃষ্ট স্ফুলিঙ্গ থেকেই আগুনের সূত্রপাত। তা ছাড়া মাইক্রোতে অনেক দাহ্যবস্তু থাকে, যা আগুন জ্বলতে সহায়তা করে। মাইক্রোর কোনো সিলিন্ডার বিস্ফোরিত হয়নি বলে জানান তারা।

এদিকে জেলার পটিয়া উপজেলার শান্তিরহাট এলাকায় পেছন থেকে মিনিবাসের ধাক্কায় ইছহাক মিয়া (৪৮) নামে এক পথচারীর মৃত্যু হয়েছে। তিনি পটিয়ার কুসুমপুরা ইউনিয়নের ফজল আহমেদের ছেলে। সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৮টার দিকে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে দুর্ঘটনার পর গুরুতর আহতাবস্থায় ইছহাককে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত বলে ঘোষণা করেন।

খুলনা : জেলায় দ্রুতগামী ট্রাকের চাপায় পিষ্ট হয়ে কিশোর কুমার পাল (৫৫) নামে এক কলেজশিক্ষক নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে ফুলতলা উপজেলার খুলনা-যশোর সড়কের উপজেলা পরিষদের সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত কিশোর খুলনা সরকারি বিএল কলেজের উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক। তিনি নগরীর ট্যাংক রোডে বসবাস করতেন। তার গ্রামের বাড়ি বাগেরহাট জেলার রামপাল উপজেলার গিলাতলা গ্রামে। ফুলতলা থানার ওসি মো. মনিরুল ইসলাম ইসলাম বলেন, দামোদর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনের সড়ক হেঁটে অতিক্রম করার সময় যশোরগামী একটি ট্রাক ওই শিক্ষককে চাপা দিয়ে পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

নারায়ণগঞ্জ : জেলার রূপগঞ্জে ট্রাক্টরের চাপায় পিষ্ট হয়ে আয়মন হোসেন (১২) নামে পঞ্চম শ্রেণির মাদ্রাসা শিক্ষার্থী নিহত হয়েছে। মঙ্গলবার বিকেলে বিরাবো এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। সে বিরাবো এলাকার কামাল হোসেনের ছেলে ও তারাইল দাখিল মাদ্রাসার ছাত্র। মাদ্রাসা ছুটি শেষে বাড়ি ফেরার পথে দ্রুতগামী ট্রাক্টরের চাপায় পিষ্ট হয়ে গুরুতর আহতাবস্থায় তাকে স্থানীয় আশিয়ান হাসপাতালে নেওয়া হলেন কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত