সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

ফাগুনের আগুনে জ্বলে উঠুক ছাত্রসমাজ

আপডেট : ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১০:৪৪ পিএম

পলাশ-শিমুল ফোটা এমন এক রাঙা ফাগুনেই বাংলার দামাল ছাত্রসমাজ মায়ের ভাষাকে রাষ্ট্রভাষা করার দাবিতে ভাষা আন্দোলনে ঝাঁপিয়ে পড়েছিল। আমাদের কাছে ফাগুন মানে তাই বসন্তের আগমনী, ফাগুন মানে তারুণ্যের শক্তিতে বলীয়ান হয়ে মাথা নত না করার দীপ্ত শপথ। বাহান্নর ভাষা আন্দোলন যেমন এই বসন্তে হয়েছিল তেমনি একাত্তরের মহান মুক্তিযুদ্ধও শুরু হয়েছিল ফাগুনের আগুনঝরা বসন্তকালেই।  সামরিক স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনেও স্মরণীয় হয়ে আছে এমনই এক ফাগুনের দিন। ১৯৮৩ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি ১১টি প্রগতিশীল ছাত্রসংগঠনের সমন্বয়ে গঠিত ছাত্র সংগ্রাম পরিষদ গণবিরোধী শিক্ষানীতি বাতিল, ছাত্রবন্দিদের মুক্তি এবং গণতন্ত্র ও মৌলিক অধিকার প্রতিষ্ঠার দাবিতে আন্দোলনের ডাক দিয়েছিল। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কলাভবনের বটতলা থেকে মিছিল শুরু করে হাজার হাজার ছাত্রছাত্রী আকাশকাঁপানো সেøাগানে নেমে আসেন রাজপথে। স্বৈরাচারী এরশাদের পুলিশ বাহিনীর গুলিতে সেদিন রাজপথে বুকের তাজা রক্ত ঢেলে শহীদ হন দীপালি, জাফর, জয়নাল, মোজাম্মেল, আইয়ুব ও কাঞ্চন।  সাত বছর ধরে চলে লাগাতার সংগ্রামে শেষ পর্যন্ত সংগ্রামী ছাত্রসমাজের এই ফাগুনের আগুনেই ১৯৯০ সালের ৬ ডিসেম্বর পতন হয়েছিল স্বৈরাচারী এরশাদের। গণতন্ত্রের পথে নবযাত্রা শুরু করেছিল বাংলাদেশ। ২৮ বছর পর এই ফাগুনেই আগামী ১১ মার্চ অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ-ডাকসু নির্বাচন। এই প্রজন্মের ছাত্রসমাজ এই ফাগুনের আগুনে জ্বলে উঠেই ডাকসুকে ঘিরে এক নতুন যাত্রা শুরু করুক।

ওয়ারিস হাফিজ, রামপুরা, ঢাকা।  

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত