সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

পোড়াদহ মেলা ৮২ কেজির বাঘাইড় মাছ

আপডেট : ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১:০৯ পিএম

বগুড়ার গাবতলীতে বসেছে ২০০ বছরের ঐতিহ্যবাহী পোড়াদহ মেলা। গতকাল বুধবার ইছামতীর তীরে এ মাছের মেলায় বিক্রেতারা আনেন বিশাল আকৃতির সব মাছ। এর মধ্যে প্রায় ৮২ কেজি ওজনের একটি বাঘাইড় মাছ নজর কাড়ে সবার। ক্রেতাদের আকৃষ্ট করতে মেলায় তোলা হয় মাছসদৃশ বিশাল সব মিষ্টি। মেলা ঘিরে জমজমাট হয়ে ওঠে আশপাশের ২০টি গ্রাম। মেলার প্রধান আকর্ষণ মাছপট্টিতে বাঘাইড় ছাড়াও উঠেছিল বড় বড় চিতল, বোয়াল, রুই, কাতল, সিলভার কার্প ও শোল মাছ। মেলা ঘুরে দেখা যায়, ৮২ কেজি ওজনের বাঘাইড়ের প্রতি কেজি মাছ বিক্রি হয়েছে ১ হাজার ২০০ টাকায়। ৪০ থেকে ৫০ কেজি ওজনের বাঘাইড়ের প্রতি কেজির দাম ১ হাজার টাকা।

পাড়রানীর পাড়ার মনির হোসেন জানান, মেলায় মাছের দাম অনেক বেশি। চার কেজি ওজনের কাতল ও রুই বিক্রি হচ্ছে ৪০০ থেকে ৪৫০ টাকা কেজি। সিলভার কার্প মাছ ৩৫০ টাকা কেজি। তিনি বলেন, ‘এত টাকা দিয়ে মাছ কেনা মুশকিল। প্রচুর মাছ থাকলেও বিক্রেতারা দামে ছাড় দিচ্ছে না।’ মেলায় শিশু-কিশোরদের জন্য ছিল নাগরদোলা, সার্কাস, হোন্ডা খেলা। এক পাশে বসেছিল গৃহস্থালি পণ্য ও মসলাপাতির দোকানপাট। অন্য পাশে কাঠের আসবাবপত্রের দোকান। মহিষাবান সর্বজনীন সন্ন্যাসী পূজা উদ্যাপন কমিটির সভাপতি নিকুঞ্জ কুমার পাল বলেন, ‘এই মেলার প্রকৃত উদ্দেশ্য ছিল সন্ন্যাসী পূজা। বর্তমানে জায়গা নিয়ে জটিলতা ও কমিটির সমন্বয়হীনতায় সেই ঐতিহ্য হারাতে বসছে। মেলা আয়োজক কমিটির সভাপতি ও মহিষাবান ইউপি চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম বলেন, মেলার ঐতিহ্য টিকিয়ে রাখতে সর্বাত্মক চেষ্টা চালানো হচ্ছে।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত